ওয়েবক্যাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
বৈশিষ্টসূচক কম খরচে ওয়েবক্যাম যা ব্যক্তিগত কম্পিউটারের সাথে ব্যবহৃত করা হয়।

ওয়েবক্যাম হলো বিশেষ ধরণের ভিডিও ক্যামেরা যা একটি কম্পিউটারের সাথে ইউএসবির মাধ্যমে যুক্ত হয়ে ইন্টারনেটে ভিডিও আদান-প্রদান করতে পারে। ১৯৯১ সালে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় এ ওয়েবক্যাম আবিষ্কার হয়। একুশ শতক থেকে ল্যাপটপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো ল্যাপটপেই ওয়েবক্যাম যুক্ত করা শুরু করেছে।

industrial CT scanning
A webcam installed near Sumburgh Head lighthouse, (shetland). The cliffs are home to large numbers of seabirds and the area is an RSPB nature reserve.

প্রযুক্তি[সম্পাদনা]

ওয়েবক্যামে সাধারণত একটি লেন্স (উপরে), ইমেজ সেন্সর (নিচে), এবং সমর্থনকারী সার্কিট।

ওয়েবক্যামে লেন্স, ইমেজ সেন্সর ও মাইক্রোফোন থাকে। ওয়েবক্যামে সাধারণত চার্জ কাপল্‌ড ডিভাইস বা কপ্লিমেন্টারি মেটাল-অক্সাইড-সেমিকন্ডাক্টর সেন্সর ব্যবহার করা হয়, তবে সস্তা হওয়ার কারণে কপ্লিমেন্টারি মেটাল-অক্সাইড-সেমিকন্ডাক্টর অধিক ব্যবহার করা হয়।

ওয়েবক্যাম বা ওয়েব ক্যামেরা হচ্ছে এক ধরণের ভিডিও ক্যামেরা, যা বাস্তব সময়ের ভিডিও ধারণ করে এবং একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে তা কোনো মনিটরে প্রদর্শন করে৷ বাস্তব সময়ের ভিডিও চিত্র ধারণের পর তা ব্যবহারকারী নিজে দেখতে পারে অথবা ইমেইল ইত্যাদির মাধ্যমে অন্য কোথাও প্রেরণ করতে পারে৷ আই পি ক্যামেরা(যা সাধারণত ইথারনেট বা ওয়াই-ফাই এর মাধ্যমে সংযুক্ত হয়), যেভাবে মূল সিস্টেমের সাথে সংযু্ক্ত হয়ে থাকে, ওয়েবক্যাম সেভাবে যুক্ত না হয়ে সাধারণত ইউএসবি ক্যাবলের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে থাকে৷

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

ওয়েবক্যাম সাধারণত এর কম মূল্য কিন্তু ব্যবহারের ক্ষেত্রে অধিক সুবিধার জন্য সুপরিচিত৷[১] দূর হতে ভিডিও কথোপকথনের ক্ষেত্রে ওয়েবক্যাম যেমন বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে থাকে, তেমনি এর বাণিজ্যিক মূল্যও কম৷[২][৩]

ব্যবহার[সম্পাদনা]

ওয়েবক্যাম এর সর্বাধিক ব্যবহার হচ্ছে ওয়েব লিঙ্ক তৈরির মাধ্যমে একটি কম্পিউটার বা ডিভাইসকে অপর একটি কম্পিউটার বা ডিভাইসের সাথে সংযুক্ত করে ভিডিও কথোপকথনের সুবিধা প্রদান৷ এক্ষেত্রে কম্পিউটার বা ডিভাইসটি একটি ভিডিও ফোন অথবা ভিডিও কনফারেন্স স্টেশন হিসাবে কাজ করে৷ এছাড়া ওয়েবক্যাম নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষন, কম্পিউটার ভিশন, স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে, নিরাপত্তা ক্ষেত্রে, ভিডিও সম্প্রচার এবং সামাজিক ভিডিও রেকর্ড করা ইত্যাদি কাজেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে৷[৪]

বিভিন্ন ধরণের কাজে বিভিন্ন রকমের সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে ওয়েবক্যামকে বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে৷

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রথম উন্নতকরণের কাজ করা হয় ১৯৯১ সালে, ক্যমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগে৷[৫] ১৯৯৪ সালে প্রথম সাদা কালো ওয়েবক্যাম বাণিজ্যিকভাবে বাজারে আসে৷ এটি বাজারজাত করে আমেরিকার একটি কোম্পানি কানেকটিক্স৷ ১৯৯৪ সালের আগস্ট মাসে প্রথম অ্যাপল ম্যাকিনটোশ এর কুইকক্যাম বাজারে আসে৷ এ ওয়েবক্যামগুলোর দাম ছিলো ১০০ ডলার করে৷ ১৯৯৫ সালের অক্টোবরে পার্সোন্যাল কম্পিউটার এ ওয়েবক্যাম ব্যবহারের জন্য মাইক্রোসফট উইন্ডোজ সিরিয়াল পোর্ট ও সফ্টওয়্যার বাজারে নিয়ে আসে৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Handbook of Distance Learning for Real-Time and Asynchronous Information Technology Education"। Editors: Solomon Negash, Michael E. Whitman, Amy B. Woszczynski, Ken Hoganson, Herbert Mattord.।  Authors list-এ |প্রথমাংশ1= এর |শেষাংশ1= নেই (সাহায্য)
  2. "How Much Resolution is Enough? Picking a Webcam"। ebay। 
  3. "Five Best Webcams"। lifehacker। 
  4. "Augmented Reality Lets You Try On Clothes from Online Shops"। TIME। 
  5. "Coffee Cam"। University of Cambridge।