এ. কে. রায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এ কে রায়
লোকসভার সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৭৭ – ১৯৮৪
পূর্বসূরীরাম নারায়ণ শর্মা
উত্তরসূরীশঙ্কর দয়াল সিং
সংসদীয় এলাকাধানবাদ
কাজের মেয়াদ
১৯৮৯ – ১৯৯১
পূর্বসূরীশঙ্কর দয়াল সিং
উত্তরসূরীরীতা ভার্মা
সংসদীয় এলাকাধানবাদ
বিহার বিধানসভা
কাজের মেয়াদ
১৯৬৭ – ১৯৭৭
সংসদীয় এলাকাসিন্ড্রি
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৫ জুন ১৯৩৫
মৃত্যু২১ জুলাই ২০১৯ (বয়স ৮৪)
রাজনৈতিক দলমার্ক্সিস্ট কোঅর্ডিনেশন কমিটি
প্রাক্তন শিক্ষার্থীকলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়

এ কে রায় (১৫ জুন ১৯৩৫ – ২১ জুলাই ২০১৯) একজন ভারতীয় প্রকৌশলী ও রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি মার্ক্সিস্ট কোঅর্ডিনেশন কমিটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি একজন সাংসদ ও বিধায়ক ছিলেন। তার পুরো নাম অরুণ কুমার রায়।

জীবনী[সম্পাদনা]

এ. কে. রায় ১৯৩৫ সালের ১৫ জুন অধুনা বাংলাদেশের রাজশাহী জেলার সাপুরায় জন্মগ্রহণ করেন।[১] তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে কেমিকৌশল নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন। সেখান থেকে পড়াশোনা শেষ করার পর তিনি উচ্চ শিক্ষা অর্জনের জন্য জার্মানি গমন করেছিলেন।

দেশে ফিরে এসে তিনি কয়লা খনিতে প্রকৌশলী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তারপর, তিনি বামপন্থী রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন ও সিপিআইএমে যোগ দেন। তিনি ১৯৬৭, ১৯৭২ ও ১৯৭৭ সালে সিন্ড্রি থেকে তৎকালীন বিহার বিধানসভার বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন।

এ কে রায় ১৯৭৭, ১৯৮০ ও ১৯৮৯ সালে ধানবাদ থেকে ভারতীয় আইনসভার নিম্নকক্ষে সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি শুরুতে সিপিআইএমের সাথে যুক্ত থাকলেও পরে মার্ক্সিস্ট কোঅর্ডিনেশন কমিটি প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি ১৯৭১ সাল থেকে ঝাড়খণ্ড আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েছিলেন। ঝাড়খণ্ড আন্দোলনের দরুন ২০০০ সালে ঝাড়খণ্ড বিহার থেকে আলাদা হয়ে ভারতের একটি স্বতন্ত্র প্রদেশ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছিল।

এ কে রায় ২০১৯ সালের ২১ জুলাই প্রয়াত হন।[২][৩][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ROY, SHRI A. K."www.loksabhaph.nic.in। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯ 
  2. "Trade union leader, three-time MP A.K. Roy dead"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯ 
  3. "Bihar: Veteran Leftist, three-time Lok Sabha member AK Roy passes away"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯ 
  4. "প্রয়াত এ কে রায়"এই সময়। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯