এবাদত (চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(এবাদত থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এবাদত
এবাদত চলচ্চিত্রের ভিসিডি কভার.jpg
ভিসিডি কভার
পরিচালকএটিএম শামসুজ্জামান
প্রযোজকহাবিবুর রহমান হাবিব
রচয়িতাএটিএম শামসুজ্জামান
শ্রেষ্ঠাংশেরিয়াজ
শাবনূর
এটিএম শামসুজ্জামান
প্রবির মিত্র
ডলি জহুর
কাবিলা
নাসরিন
সুরকারআলম খান
চিত্রগ্রাহকজেড এইচ মিন্টু
সম্পাদকআমজাদ হোসেন
পরিবেশকউম্মে ফিল্মস
মুক্তিজুলাই, ২০০৯
দেশ বাংলাদেশ
ভাষাবাংলা ভাষা

এবাদত এটি ২০০৯ সালের ৩ জুলাই মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র।[১] ছবিটি পরিচালনা করছেন দেশবরেণ্য অভিনেতা ও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ব্যবসা সফল ছবির কাহিনীকার এটিএম শামসুজ্জামান এবং এটি তার পরিচালিত প্রথম ছবি।[২][৩] ইসলাম ধর্ম ভিত্তিক গল্পে নির্মিত এই ছবিটিতে অভিনয় করেছেন রিয়াজ, শাবনূর, এটিএম শামসুজ্জামান, প্রবির মিত্র, ডলি জহুর, কাবিলা, নাসরিন সহ আরো অনেকে।[৪]

চলচ্চিত্রটি ২০০৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এর শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে ছবিটি মনোনয়ন পেয়েছিল।[৫]

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

“নুরজাহান” (শাবনূর) স্বভাবে নম্র ভদ্র ও ধর্মভীরু, যে সৃস্টিকর্তাকে ভয় করে চলে সব সময়। সমাজের কোন মন্দকেই সে প্রশ্রয় দেয় না। এদিকে “খোকা” (রিয়াজ) একজন সন্ত্রাস, চাঁদাবাদ যে পূরো এলাকা তার খমতায় জিম্মি করে রেখেছে। একদিন নুরজাহানকে একা পেয়ে খোকা অপমান করে এতে নুরজাহান তার অপরাদ আর অনাচারকে ধিক্কার জানায়। খোকা রাগে ক্ষোভে অস্হির হয়ে ওঠে রাতের আঁধারে সে চলে আসে নুরজাহানের বাড়ি। এবং নুরজাহানের অসুস্হ বাবাকে বেধে তার সম্মান হানি করতে গেলে নুরজাহান বলে- আমি এই মাত্র অজু করে এলাম এখনো মুখ থেকে অজুর পানি শুকায়নি। ওমনি খোকার বাবার কথা মনে পড়ে যায় তিনি বলেছিলেন অজুর পানিতে আল্লাহর রহমত আছে তিনি ছিলেন একজন মসজিদের ঈমাম। ওকে ছেড়ে দিয়ে কিছু না বলেই খোকা চলে যায়। এবং এই আগুনে পুড়তে থাকে সে, এক সময় তার ভিতরে ঘুমিয়ে থাকা মানুষটা জেগে ওঠে। এবং সকল মন্দ কাজ ছেড়ে দেয়। কামারের দোকানে কাজ নেয় এবং রমজান মাসের প্রথম থেকে রোজা রাখা শুরু করে খোকা। নুরজাহান জেনে খুশি হয় এবং তার জন্য সেহরীর খাবার পাঠায়। ঘটনাক্রমে ওদের বিয়ে হয় কিন্তু যে অপরাধ জগৎ থেকে ফিরে এসেছে খোকা সেই জগতের লোক গুলোর অপরাধ থেমে নেই। “লেদু” (এটিএম শামসুজ্জামান) বাহিনী বার বার হামলা করে ওদের উপর এবং একটি মেয়েকে দিয়ে ষড়যন্ত্র করে পুলিশে ধরিয়ে দেয় খোকাকে এতে নুরজাহানও কিছুটা ভুল বোঝে তাকে। কিন্তু মেয়েটিকে যখন বুঝতে পারলো তাকে দেয়া প্রলোভন পুরোটাই মিথ্যে তখন সে পুলিশের কাছে সব ফাঁস করে দেয়। এতে পুলিশ খোকাকে মুক্তি দেয়। পরিশেষে সকল অপশক্তি নির্মূল করে পুরো এলাকাতে শান্তি ফিরিয়ে আনে সবাই মিলে।

শ্রেষ্ঠাংশে[সম্পাদনা]

সংগীত[সম্পাদনা]

এবাদত ছবির সংগীত পরিচালনা করেন বাংলাদেশের বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক আলম খান।

গানের তালিকা[সম্পাদনা]

ট্র্যাক গান কণ্ঠশিল্পী নোট পর্দায়
আইলোরে এই গঞ্জে নয়া মাহমান নাসরিন
পোড়া এই মাটির দেহে আছে আগুন নকুল কুমার বিশ্বাস
তুমি আঁধার থেকে আলোর শহরে অ্যান্ড্রু কিশোরসাবিনা ইয়াসমিন রিয়াজশাবনূর
দুরে সরে গিয়ে অনেক কাঁদাবো সাবিনা ইয়াসমিন শাবনূর

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]