উইলিয়াম কনোলি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উইলিয়াম কনোলি
William Connolley 2008 Cropped.jpg
২০০৮ সালের মে মাসে কনোলি
জন্ম
উইলিয়াম মাইকেল কনোলি

(1964-04-12) ১২ এপ্রিল ১৯৬৪ (বয়স ৫৭)
জাতীয়তাব্রিটিশ
মাতৃশিক্ষায়তনঅক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাসফটওয়্যার প্রকৌশলী
কর্মজীবন২০০৩ – বর্তমান
পরিচিতির কারণজলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত ব্লগ লেখক
রাজনৈতিক দলইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের গ্রিন পার্টি
সন্তান

উইলিয়াম মাইকেল কনোলি (জন্ম ১২ই এপ্রিল ১৯৬৪) একজন ব্রিটিশ সফটওয়্যার প্রকৌশলী, লেখক এবং জলবায়ুবিদ্যা সম্পর্কিত ব্লগ রচয়িতা। ২০০৭ সালের ডিসেম্বর অবধি তিনি ব্রিটিশ অ্যান্টার্কটিক সার্ভেতে অ্যান্টার্কটিক জলবায়ু ও ভূ পদ্ধতি প্রকল্পের ভৌত বিজ্ঞান বিভাগের বরিষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ছিলেন, সেখানে তিনি জলবায়ু প্রতিরূপ গঠনকারী হিসাবে কাজ করেছিলেন। এর পরে তিনি কেমব্রিজ সিলিকন রেডিওতে সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসাবে কাজ করেন।

বিশ্ব উষ্ণায়ন সম্পর্কিত উইকিপিডিয়া নিবন্ধ সম্পাদনে জড়িত থাকার জন্য, কনোলি, বেশ কয়েক বছর ধরে জাতীয় সংবাদ প্রতিষ্ঠানের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন। ২০০৭ সাল পর্যন্ত কনোলি রিয়েলক্লাইমেট ওয়েবসাইটের সদস্য ছিলেন এবং এখন জলবায়ু সম্পর্কিত সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করা হয় এমন একটি ওয়েবসাইট এবং ব্লগ পরিচালনা করেন। তিনি গ্রিন পার্টির সদস্য হিসাবে স্থানীয় রাজনীতিতেও সক্রিয় ছিলেন।

পটভূমি[সম্পাদনা]

কনোলি গণিতে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছিলেন এবং তারপর সাংখ্যিক বিশ্লেষণ সম্পর্কে কাজ করে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট এডমন্ড হল থেকে ডক্টর অব ফিলোসফি ডিগ্রি অর্জন করেছেন।[১] তিনি কেমব্রিজ সিলিকন রেডিওতে সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসাবে কাজ করেন এবং এম্বেডেড ফার্মওয়্যারের নকশা তৈরি করেন।[২]

২০০৭ সালের ডিসেম্বর অবধি, ব্রিটিশ অ্যান্টার্কটিক জরিপে, তিনি অ্যান্টার্কটিক জলবায়ু ও ভূ পদ্ধতি প্রকল্পের ভৌত বিজ্ঞান বিভাগের বরিষ্ঠ বৈজ্ঞানিক হিসাবে কাজ করেছিলেন। তাঁর গবেষণার কেন্দ্রবিন্দু ছিল সামুদ্রিক বরফের পরিমাপ এবং নকশা তৈরি। তাঁর তৈরি মডেলের মধ্যে ছিল হ্যাডসিএম৩ (হ্যাডলি সেন্টার কাপলড মডেল, ৩য় সংস্করণ) বিশ্বব্যাপী জলবায়ু মডেল (জিসিএম)। কনোলি ওয়েডেল সাগর অঞ্চলে আরও প্রত্যক্ষ উর্ধ্বমুখী শাব্দিক পর্যবেক্ষণের ​​স্যাটেলাইট (বিশেষ সেন্সর মাইক্রোওয়েভ / ইমেজার) তথ্যের বৈধতা নিয়ে কাজ করেছিলেন।[৩][৪] তিনি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিলেন যে নাসার সরবরাহ করা তথ্যের চেয়ে বুটস্ট্র্যাপের তথ্য আরও ভালভাবে ব্যবহার করা যায় এবং জিসিএম এর পূর্বাভাসগুলি আগে যা মনে করা হত তার চেয়ে অনেক বেশি বাস্তবসম্মত।[৪]

২০০৭ সালের মে পর্যন্ত কনোলি কটন গ্রামে প্যারিশ কাউন্সিলর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[৫] তিনি দক্ষিণ কেমব্রিজশায়ার জেলা কাউন্সিল এবং কেমব্রিজশায়ার কাউন্টি কাউন্সিলের গ্রিন পার্টির প্রার্থীও ছিলেন।[৬]

রচনা ও সম্পাদনা[সম্পাদনা]

জলবায়ুবিদ্যা সম্পর্কিত গবেষণার ক্ষেত্রে অ্যান্টার্কটিকার জলবায়ু এবং সামুদ্রিক বরফের অধ্যয়নের উপর জোর দিয়ে কনোলি অনেক নিবন্ধ লিখেছেন ও সাহিত্যের পর্যালোচনা করেছেন। এছাড়াও তিনি অনেক নিবন্ধ ও সাহিত্য পর্যালোচনার সহ-লেখক।[৭] কনোলি ২০০৭ সাল পর্যন্ত রিয়েলক্লাইমেট ওয়েবসাইটের সদস্য ছিলেন,[৮][৯] এবং তিনি একটি ওয়েবসাইট ও ব্লগ পরিচালনা করেন যেখানে জলবায়ুর সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করা হয়।[১০] তাঁর ব্লগ এবং একটি গবেষণাপত্র থেকে এই সিদ্ধান্তে আসা গেছে যে ১৯৭০ এর দশকে বেশিরভাগ বৈজ্ঞানিক গবেষণাগুলি বিশ্বব্যাপী শীতলতা নয়, বরঞ্চ, উষ্ণায়নের পূর্বাভাস দিয়েছিল।[১১][১২][১৩] ২০০৭ সালে দ্য ক্রিশ্চিয়ান সায়েন্স মনিটর লক্ষ্য করেছিল যে, কনোলির "ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে এবং রিয়েলক্লাইমেট.ওআরজি এর (কর্মরত জলবায়ু বিজ্ঞানীদের দ্বারা লিখিত এবং সম্পাদিত একটি ওয়েবসাইট) অবদানকারী হিসাবে, তিনি বেশ কয়েকটি নিবন্ধ লিখেছিলেন যেখানে বিজ্ঞানের ইতিহাসে বৈশ্বিক শীতল হওয়ার অবস্থানটি স্পষ্ট করার চেষ্টা করা হয়েছে" এবং মন্তব্য করেছিল, "কনোলি এবং স্নাইডার বলেছেন যে জনসাধারণ যদি জনপ্রিয় গণমাধ্যম দ্বারা সম্প্রচারিত খবরের দিকে নজর না দিয়ে সরাসরি সহকর্মী-পর্যালোচিত বৈজ্ঞানিক কাগজপত্রের দিকে নজর দিত, তারা বিশ্বব্যাপী শীতলকরণের জন্য ভয়ের কোনও ভিত্তি খুঁজে পেত না।"[১৪]

উইকিপিডিয়া সম্পাদনা[সম্পাদনা]

কনোলি ২০০৩ সালে উইকিপিডিয়া সম্পাদনা শুরু করেছিলেন এবং ২০০৬ সাল থেকে ২০০৯ সাল অবধি উইকিপিডিয়া প্রশাসক হিসাবে কাজ করেছেন। তাঁর এই সব সক্রিয়তার কারণে, বিশেষত জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে তাঁর সম্পাদনার বিষয় নিয়ে, গণমাধ্যমে তাঁকে নিয়ে আলোচনা হয়েছে এবং তাঁর উদ্ধৃতি তুলে ধরা হয়েছে। নেচার পত্রিকার ২০০৫ সালের ডিসেম্বরের উইকিপিডিয়া নির্ভরযোগ্যতার পর্যালোচনা সংখ্যায়, তাঁকে উইকিপিডিয়া সম্পাদনার একজন বিশেষজ্ঞের উদাহরণ হিসাবে দেখানো হয়েছিল।[১৫] ২০০৬ সালে নেচার কনোলিকে উদ্ধৃত করে বলেছিল যে "কিছু বিজ্ঞানী উইকিপিডিয়া নিয়ে হতাশ হয়েছেন" তবে "দ্বন্দ্বের ফলে মাঝে মাঝে আরও ভাল নিবন্ধ তৈরি হতে পারে"।[১৬] ২০০৬ সালের জুলাই মাসে, একটি নিউ ইয়র্কার নিবন্ধে তাঁকে কিছুদিনের জন্য "বিশ্ব উষ্ণায়ন বিষয়ক নিবন্ধ লিপিবদ্ধকরণের ক্ষেত্রে সম্পাদনা যুদ্ধের শিকার" হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে, যার মধ্যে একজন সন্দেহবাদী বার বার গ্রীনহাউজ প্রতিক্রিয়া নিবন্ধেরর ব্যাখ্যায় "জল ঢেলে" দিয়েছিলেন।[১৭] কনোলি পত্রিকাটিকে বলেছিলেন যে "যারা জানে তারা কী বিষয়ে কথা বলছে তাদের" উইকিপিডিয়া বিশেষ কোনও সুযোগ সুবিধা দেয় না"।[১৭] উইকিপিডিয়ায় বিশেষজ্ঞ সম্পাদকদের যে সাইটের নামবিহীন সম্পাদকদের চেয়ে "বেশি কোনও বিশ্বাসযোগ্যতা" দেওয়া হয় না, কনোলি তার একটি উদাহরণ এবং এটি অনেক বইতে উদ্ধৃত করা হয়েছে।[১৮][১৯][২০] ২০০৭ সালে, লন্ডনের দ্য সানডে টাইমস লেখক অ্যান্ড্রু কীনের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছিল যেখানে কনোলি এবং তাঁর উইকিপিডিয়া সম্পাদনা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছিল। সেটিতে কনোলিকে "বিশ্ব উষ্ণায়নের বিশেষজ্ঞ" হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছিল, বলা হয়েছিল: "ভুলগুলি সংশোধন করার চেষ্টা করার পরে কনোলির বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছিল 'যে দৃষ্টিভঙ্গি তাঁর নিজের সাথে মেলে না' তা তিনি মুছে ফেলার চেষ্টা করেন। শেষ পর্যন্ত তাঁকে প্রতিদিন কেবলমাত্র একটি সম্পাদনা করার মধ্যে সীমাবদ্ধ করা হয়েছিল।" নিবন্ধে বলা হয়েছিল যে উইকিপিডিয়া মধ্যস্থতা কমিটি "[কনোলির] দক্ষতার কোনও মূল্য দেয়নি, এবং তাঁর সাথে তাঁর অনামী প্রতিপক্ষের মতোই একইরকম বিশ্বাসযোগ্য রূপে ব্যবহার করা হয়েছিল।"[২১]

কনোলি উইকিপিডিয়ায় দুটি অভ্যন্তরীণ বিরোধের সাথে জড়িত হয়ে পড়েছিলেন, যেগুলি অতিরিক্ত প্রচার পেয়েছিল। ২০০৫ সালের জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত উইকিপিডিয়ার একটি বিতর্ক, যেটি বিষয়বস্তুর পক্ষপাতিত্বের বদলে শিষ্টাচার লঙ্ঘনের সাথে জড়িত ছিল। জার্নাল অফ সায়েন্স কম্যুনিকেশন এর একটি গবেষণাপত্রে সেটিকে এমন উদাহরণ হিসাবে দেখানো হয়েছিল যেখানে "বিতর্কিত উইকি-ওয়াটারে জড়িত সম্মানিত বিশেষজ্ঞদের কী ঘটতে পারে তা গভীরভাবে অনুরণিত হয়েছে"। গবেষণাপত্রটিতে বলা হয়েছিল যে কনোলি ""ক্ষতিগ্রস্থ হননি...সানন্দে বোকা বানিয়েছিলেন।"[২২] ২০০৯ সালে একই পত্রিকায় উইকিপিডিয়া মধ্যস্থতার কথা উল্লেখ করা হয়েছিল, যেখানে শেষ সিদ্ধান্ত হয়েছিল যে বিষয়বস্তু সংক্রান্ত বিরোধে কনোলি প্রশাসকের ক্ষমতাকে নিজের সুবিধার্থে ব্যবহার করেছেন। এরপর তাঁর এই বিশেষ ক্ষমতাগুলি সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।[২২] অন্যান্য শিক্ষামূলক গবেষণাপত্রগুলিতে উইকিপিডিয়ায় কনোলির সম্পাদনা কার্যক্রম এবং তাঁর ওপর প্রযুক্ত বিতর্কের সমাধান প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হয়েছিল।[২৩]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

কনোলির দুটি সন্তান রয়েছে।[২৪]

নির্বাচিত প্রকাশনা[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Connolley, W. M. (১৯৮৯)। Preconditioning of iterative methods for linearized or linear systems (গবেষণাপত্র)। Oxford: Oxford University Numerical Analysis Group। পৃষ্ঠা 208। ওসিএলসি 49766487 
  2. Connolley, William. About Page Stoat Blog
  3. "Dr William Connolley / Senior Scientific Officer / Climate Modeller / Physical Sciences Division"। British Antarctic Survey। সংগ্রহের তারিখ ২৪ অক্টোবর ২০১০ 
  4. Connolley, W. M.। "Sea ice concentrations in the Weddell Sea: A comparison of SSM/I, ULS, and GCM data" (PDF)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১০ 
  5. Internet Archive copy of Coton Parish Website
  6. The Green Party South Cambs ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে
  7. See for example, Vaughan, D. G.; Marshall, G. J.; Connolley, W. M.; King, J. C.; Mulvaney, R. (২০০১)। "CLIMATE CHANGE: Devil in the Detail"। Science293 (5536): 1777–9। ডিওআই:10.1126/science.1065116পিএমআইডি 11546858 
  8. Connolley, W. M. (৬ ডিসেম্বর ২০০৪)। "William M. Connolley Filed under: * Contributor Bio's — william @ 6 December 2004"। RealClimate। ১৬ আগস্ট ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১০ 
  9. Connolley, William (1 December 2007). "Goodbye to all that" – announcement of departure from RealClimate. RealClimate. Retrieved 26 October 2010.
  10. "Connolley's webpage analysing papers relevant to a modern Ice Age"। Wmconnolley.org.uk। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১০ 
  11. Peterson, T.C.; Connolley, W. M.; Fleck, J. (২০০৮)। "The Myth of the 1970s Global Cooling Scientific Consensus" (PDF)Bulletin of the American Meteorological Society89 (9): 1325–1337। ডিওআই:10.1175/2008BAMS2370.1বিবকোড:2008BAMS...89.1325P 
  12. William Connolley (২৪ জানুয়ারি ২০০৫)। "The global cooling myth"। RealClimate। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  13. William M. Connolley (২০০৫)। "Was an imminent Ice Age predicted in the '70's? No"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  14. Azios, Tony. "Global-warming skeptics: Is it only the news media who need to chill?" The Christian Science Monitor, 11 October 2007, accessed 24 May 2011
  15. Giles, J. (১৫ ডিসেম্বর ২০০৫)। "Internet Encyclopaedias Go Head to Head"। Nature438 (7070): 900–01। ডিওআই:10.1038/438900aঅবাধে প্রবেশযোগ্যপিএমআইডি 16355180বিবকোড:2005Natur.438..900G 
  16. Giles, J. (৫ অক্টোবর ২০০৬)। "Wikipedia Rival Calls in the Experts"। Nature443 (7111): 493। ডিওআই:10.1038/443493aঅবাধে প্রবেশযোগ্যপিএমআইডি 17024058বিবকোড:2006Natur.443..493G 
  17. Schiff, S. (৩১ জুলাই ২০০৬)। "Know It All: Can Wikipedia Conquer Expertise?"The New Yorker। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১০ 
  18. Rosen, Larry D., Mark Carrier and Nancy A. Cheever. Rewired: Understanding the iGeneration and the Way They Learn, p. 120, Macmillan (2010) আইএসবিএন ০-২৩০-৬১৪৭৮-৭
  19. Tammet, Daniel. Embracing the Wide Sky: A Tour Across the Horizons of the Mind, p. 206, Simon and Schuster (2009) আইএসবিএন ১-৪১৬৫-৭৬১৮-৫
  20. Keen, Andrew. The Cult of the Amateur: How Today’s Internet is Killing Our Culture, p. 43, New York: Doubleday (2007) আইএসবিএন ০-৩৮৫-৫২০৮০-৮
  21. Flintoff, John-Paul. "According to Wikipedia I'm the Mona Lisa", The Sunday Times, 3 June 2007, News Review p. 3
  22. Mathieu O'Neil: http://jcom.sissa.it/archive/09/01/Jcom0901%282010%29C01/Jcom0901%282010%29C04/Jcom0901%282010%29C04.pdf Shirky and Sanger, or the costs of crowdsourcing]". Journal of Science Communication, Vol. 9, Issue 1, March 2010, International School for Advanced Studies
  23. See, e.g., Forte, A.; Bruckman, A. (২০০৮)। Scaling Consensus: Increasing Decentralization in Wikipedia GovernanceProceedings of the 41st Annual Hawaii International Conference on System Sciences (HICSS 2008)। পৃষ্ঠা 157। আইএসবিএন 978-0-7695-3075-8ডিওআই:10.1109/HICSS.2008.383সাইট সিয়ারX 10.1.1.84.8022অবাধে প্রবেশযোগ্য  and the papers cited therein
  24. "William Michael Connolley" website. wmconnolley.org, accessed 14 May 2011
  25. "William M. Connolley's page about Fourier 1827: MEMOIRE sur les temperatures du globe terrestre et des espaces planetaires"wmconnolley.org.uk। William M. Connolley। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]