ইমরান আহমদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইমরান আহমেদ
সিলেট-৪ আসনের
সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৮৬ – ১৯৮৮
পূর্বসূরীইকবাল হোসাইন চৌধুরী
উত্তরসূরীআব্দুল হান্নান
কাজের মেয়াদ
২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯১ – ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬
পূর্বসূরীআব্দুল হান্নান
উত্তরসূরীসাইফুর রহমান
কাজের মেয়াদ
সেপ্টে ১৯৯৬ – ১ অক্টোবর ২০০১
পূর্বসূরীসাইফুর রহমান
উত্তরসূরীদিলদার হোসেন সেলিম
কাজের মেয়াদ
২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ – চলমান
পূর্বসূরীদিলদার হোসেন সেলিম
মন্ত্রী-প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়
কাজের মেয়াদ
২০১৯ – বর্তমান
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম২২ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৮
সিলেট
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
দাম্পত্য সঙ্গীড. নাসরীন আহমাদ
সন্তানএক পুত্র ও এক কন্যা
পিতামাতাক্যাপ্টেন রশিদ আহমদ (পিতা)
মৃত কমরুন নেছা (মাতা)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ইমরান আহমেদ (জন্ম ২২ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৮) বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী। একজন বাংলাদেশী ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের একজন সদস্য। তিনি আওয়ামী লীগ দলীয় রাজনীতিবিদ। তার নির্বাচনী আসন সিলেট-৪[১]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

ইমরান আহমদ ১৯৪৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ভারতের আম্বালায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ক্যাপ্টেন রশিদ আহমদ এবং মাতা কমরুন নেছা। তার বাড়ি সিলেট জেলার জৈন্তাপুর উপজেলার শ্রীপুরে। তিনি ১৯৬৪ সালে ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ থেকে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট এবং ১৯৬৬ সালে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ১৯৬৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূগোল বিষয়ে স্নাতক সম্মান ডিগ্রি অর্জন করেন।

রাজনীতি[সম্পাদনা]

ইমরান আহমদ শেখ মুজিবুর রহমানের দ্বারা প্রভাবিত একজন রাজনীতিক। তিনি ১৯৮৬ সাল থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি ও জনসেবার সঙ্গে সরাসরি জড়িত আছেন। ইমরান আহমদ তৃতীয় (১৯৮৬)[২], পঞ্চম (১৯৯১)[৩], সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ উপনির্বাচন[৪], নবম (২০০৮)[৫], দশম (২০১৪)[৬] এবং একাদশ জাতীয় সংসদ (২০১৮)[৭] নির্বাচনে সিলেট-৪ (জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কোম্পানিগঞ্জ) আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি পঞ্চম জাতীয় সংসদে বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি সপ্তম জাতীয় সংসদে সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির সভাপতি এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নবম জাতীয় সংসদে লাইব্রেরি কমিটি এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। দশম জাতীয় সংসদে তিনি ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালনকালীন সময় মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপনে উদ্যোগী ভূমিকা পালন করেন।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০১৮[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইমরান আহমদ সিলেট-৪ আসন থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। তিনি ২ লাখ ২৩ হাজার ৬৭২টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী দিলদার হোসেন সেলিম ৯৩ হাজার ৪৪৮ ভোট পেয়েছিলেন। দিলদার হোসেন সেলিম বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

এমপি ইমরান আহমদ একাদশ সংসদের মন্ত্রিপরিষদে প্রথমে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ও পরে মন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ইমরান আহমেদ পেশায় একজন ব্যবসায়ী। তার একটি চা বাগান ও কনসালটেন্সি ব্যবসা আছে। তিনি সিলেট অঞ্চলের অন্যতম ধনী ও প্রভাবশালী ব্যবসায়ী। তিনি ১৯৭০ সালে জেমস্ ফিনলের চা বাগানে তার কর্মজীবন শুরু করেন। বর্তমানে তিনি শ্রীপুর টি গার্ডেন' নামে নিজের চা বাগান পরিচালনা করছেন।

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

ইমরানের স্ত্রী ড. নাসরীন আহমাদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও উপ-উপাচার্য পদে আছেন। তারা এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Final Election Result from EC"bssnews.net (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০২-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ 
  2. "৩য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "৫ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. "৯ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা"জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার 
  6. "১০ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা"জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার 
  7. "বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জানুয়ারি ১, ২০১৯" (PDF)ecs.gov.bdবাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১ জানুয়ারি ২০১৯। ২ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৯