কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(আ ব্রিফ হিস্টরি অব টাইম থেকে পুনর্নির্দেশিত)
Jump to navigation Jump to search
কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস
কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস.jpg
বাংলা বইয়ের প্রচ্ছদ
লেখক স্টিফেন ডব্লিউ হকিং
মূল শিরোনাম A Brief History of Time: From the Big Bang to Black Holes
অনুবাদক শত্রুজিৎ দাশগুপ্ত
দেশ যুক্তরাজ্য (ইংরেজি)
কলকাতা ও ঢাকা (বাংলা)
ভাষা ইংরেজি
ধরন জনপ্রিয় বিজ্ঞান
প্রকাশক ব্যান্টাম ডেল পাবলিশিং গ্রুপ (ইংরেজি), বাউলমন প্রকাশন (বাংলা)
প্রকাশনার তারিখ
১৯৮৮ (পরিবর্ধিত ১৯৯৮)
বাংলায় প্রকাশিত
১৯৯৩ (কলকাতা)
১৯৯৫ (ঢাকা)
মিডিয়া ধরণ মুদ্রিত এবং পিডিএফ
পৃষ্ঠাসংখ্যা ২৫৬
আইএসবিএন 978-0-553-10953-5
ওসিএলসি 39256652
523.1 21
এলসি শ্রেণী QB981 .H377 ১৯৯৮
পরবর্তী বই কৃষ্ণগহ্বর, শিশু মহাবিশ্ব ও অন্যান্য রচনা

কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস: বৃহৎ বিস্ফোরণ থেকে কৃষ্ণগহ্বর আধুনিক যুগের অন্যতম সেরা জ্যোতির্বিজ্ঞানীবিশ্বতত্ত্ববিদ স্টিফেন হকিং লিখিত একটি জনপ্রিয় ধারার বিজ্ঞান গ্রন্থ। স্টিফেন হকিং লিখিত বইয়ের মধ্যে এটি সর্বাধিক জনপ্রিয়তা অর্জন করে। এই বইয়ের জন্যই মূলত হকিং ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন। বইটি সর্বাধিক-বিক্রিত বইয়ের মর্যাদা পায়। ১৯৮৮ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশের পর ২০০৮ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে বইটির প্রায় ১০ মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়ে যায়।[১] এছাড়া এটি লন্ডনের সানডে টাইম্‌স পত্রিকার তথ্য মতে ২৩৫ সপ্তাহ সর্বাধিক বিক্রিত বই ছিল। ১৯৯১ খ্রিস্টাব্দে এই বইয়ের নাম অবলম্বন করে পরিচালক ইরল মরিসন একটি জীবনীমূলক প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন যাতে স্টিফেন হকিং নিজেই অভিনয় করেন।

বিষয়বস্তু[সম্পাদনা]

বইয়ে আলোচিত বিষয়গুলো সবই আধুনিক জ্যোতির্বিজ্ঞান ও বিশ্বতত্ত্বের আঙ্গিকে রচিত হয়েছে। মূলত মহাবিশ্বের পরিসর ও এর সৃষ্টি রহস্য সাধারণের উপযোগী করে লেখা হয়েছে এতে। আলোচিত ১১ টি বিষয়ের রয়েছে। এই বিষয়গুলো ছাড়াও বইয়ের পরিশিষ্টে মহান তিনজন বিজ্ঞানীর সংক্ষিপ্ত জীবনী সংযুক্ত রয়েছে। এরা হলেন: আলবার্ট আইনস্টাইন, গ্যালিলিও গ্যালিলি এবং আইজাক নিউটন। এ গ্রন্থটির মূল বিষয় বিশ্বজগতের উৎস-সন্ধান। এ বিষয়ে নানা বিজ্ঞানীর নানা মত রয়েছে। কীভাবে সৃষ্টি হয়েছে এ বিশ্বের, কখন কীভাবে এর উৎপত্তি ও বিবর্তন ; কত এর বয়স, এ সব বিবিধ বিশ্বতত্ত্বীয় প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করেছেন বিভিন্ন বিজ্ঞানী নানা দৃষ্টিভঙ্গী থেকে। এ সব প্রশ্নোত্তরের সংক্ষিপ্ত ও সাধারণবোধ্য একটি ধারাবিবরণী উপস্থাপন করেছেন স্টিফেন হকিং এই বইটিতে। বইটিতে বৈজ্ঞানিক পরিভাষা খুব সামান্যই ব্যবহার করা হয়েছে। মাধ্যাকর্ষণ, কৃষ্ণগহ্বর, বিগ ব্যাং সময় সম্পর্কিত ইত্যাকার বৈজ্ঞানিক জিজ্ঞাসা ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন মতবাদ নিয়ে আলোচনার সঙ্গে সঙ্গে একটি সমন্বিত ধারণা দেয়ার প্রয়াস পেয়েছেন লেখক।[২]

অধ্যায়[সম্পাদনা]

  • মহাবিশ্ব সম্পর্কে আমাদের চিত্র
  • স্থান এবং কাল
  • প্রসারমান মহাবিশ্ব
  • অনিশ্চয়তাবাদ
  • মৌলকণা এবং প্রাকৃতিক বল
  • কৃষ্ণগহ্বর
  • কৃষ্ণগহ্বর অত কালো নয়
  • মহাবিশ্বের উৎপত্তি ও পরিণতি
  • সময়ের তীর
  • পদার্থবিদ্যাকে ঐক্যবদ্ধ করা
  • উপসংহার

প্রকাশনা ইতিহাস[সম্পাদনা]

মূল বইয়ের প্রচ্ছদ

গ্রন্থটি ১৯৮৮ খ্রিস্টাব্দে প্রথম প্রকাশিত হয়। পদার্থ বিজ্ঞানী কার্ল সাগান গ্রন্থটির ভূমিকা লিখেছিলেন। দশম প্রকাশনা বার্ষিকীতে ১৯৯৮ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত সংস্করণে সাম্প্রতিকতম তথ্যে সমৃদ্ধ করা হয়েছিল (আইএসবিএন ০-৫৫৩-৩৮০১৬-৮)। লেখক স্বয়ং নতুন করে ভূমিকাংশটি রচনা করেন (অর্থাৎ কার্ল সাগানের ভূমিকাটি প্রতিস্থাপিত হয়) এবং সম্পূর্ণ নতুন একটি অধ্যায় যোগ করা হয়। ইতোমধ্যে, ১৯৯৬-এ প্রকাশিত সংস্করণটিতে, গ্রন্থটির সচিত্রকরণ করা হয়েছিল।

বাংলা অনুবাদ[সম্পাদনা]

গ্রন্থটি বাংলাদেশ এবং পশ্চিম বঙ্গে পৃথকভাবে বাংলা ভাষায় অনূদিত হয়েছে। ১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দের ৭ই মে স্টিফেন হকিং শত্রুজিৎ দাশগুপ্তকে তাঁর গ্রন্থটির বাংলা অনুবাদের জন্য স্বত্ত্ব প্রদান করলে কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস নামে শত্রুজিৎ দাশগুপ্ত অনূদিত গ্রন্থটি "বাউলমন প্রকাশন" কর্তৃক ১৯৯৩ খ্রিস্টাব্দে কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়।[৩] তানভীর আহমেদ কর্তৃক কৃত অনুবাদটি ১৯৯৫ খ্রিস্টাব্দে "সন্দেশ" প্রকাশনা সংস্থা কর্তৃক বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত হয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালে, এরল মরিস আ ব্রিফ হিস্ট্রি অব টাইম নামে হকিং সম্পর্কে একটি প্রামাণিক চলচ্চচিত্র পরিচালনা করেন। চলচ্চিত্রটি হকিংয়ের জীবনীসংক্রান্ত, বইয়ের বিষয় নিয়ে নয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Paris, Natalie (২৬ এপ্রিল ২০০৭)। "Hawking to experience zero gravity"The Daily Telegraph। London। 
  2. Brief-History-Time-Stephen-Hawking, amazon.com
  3. কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস, স্টিফেন হকিং, অনুবাদ- শত্রুজিৎ দাশগুপ্ত, বাউলমন প্রকাশন, ২৮ বালিগঞ্জ গার্ডেন্স, কলকাতা-১৯, আইএসবিএন ৮১-৮৬৫৫২-৫০-২

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]