আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া
الجامعۃ اُلاشرفیہ
আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া.png
আল জামিয়াতুল আশরাফিয়ার একাংশ
ধরনইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৯৭২
সভাপতিমাওলানা আব্দুল হাফিজ মুরাদাবাদী
উপ-সভাপতিহাজী মুহাম্মদ নিজামুদ্দীন মুবারকপুরী
অধ্যক্ষমুফতি নিজামুদ্দীন রেজভী
শিক্ষার্থী৫৫০০+ (প্রায়)
অবস্থান, ,
ওয়েবসাইটaljamiatulashrafia.in
আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া লোগো.png

আল জমিয়াতুল আশরাফিয়া ( উর্দু: الجامعۃ اُلاشرفیہ‎‎ , হিন্দি: अल जामियत-उल-अशरफ़िया) ভারতের আহলে-সুন্নাত ওয়াল জামাআতর বেরেলভী শাখার একটি ইসলামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এটি উত্তর প্রদেশ রাজ্যের মুবারকপুরে অবস্থিত। আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া ভারতের বৃহত্তম ইসলামিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অন্যতম। এর পাশে রয়েছে উপমহাদেশের বিশ্ববিখ্যাত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দারুল উলুম দেওবন্দ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৯৮ সালে তৎকালীন ব্রিটিশ ভারত মুবারকপুর শহরে মিসবাহুল উলুম নামে একটি মাদরাসা শুরু হয়েছিল। [১] কিচাচের সৈয়দ শাহ আলী হুসেন আশরাফের নামানুসারে এর নামকরণ করা হয়েছিল 'আশরাফিয়া'। বহু বছর ধরে লড়াই করার পর এবং কয়েকবার লোকেশন সরিয়ে নেওয়ার পরে, হাফিজ আবদুল আজিজ মুরাদাবাদীর অর্থ সংগ্রহের মাধ্যমে একটি নতুন ভবন নির্মিত হয়েছিল। এটি বর্তমানে দারুল উলুম আহলে সুন্নাত আশরাফিয়া মিসবাহুল উলুম নামে পরিচিত। [২]

জামিয়াটি খুব ছোট তা বুঝতে পেরে হাফিজ আবদুল আজিজ ১৯৭২ সালের মে মাসে আশরাফিয়াকে আরও বড় ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত করার বিষয়ে আলোচনা করার জন্য একটি শিক্ষামূলক সম্মেলনের আয়োজন করেছিলেন। রেজভী আন্দোলনের ইসলামিক স্কলার মুস্তাফা রাজা খানের পুত্র আহমদ রাজা খান এবং আল্লামা আরশাদ কাদেরী ১৯৭২ সালে সুন্নি হানাফী ইসলামী ভাবাদর্শ প্রতিষ্ঠা করার জন্য আজমগড় শহরের বাহিরে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। [৩] আল্লামা জিয়াউল মোস্তফা, আল্লামা আরশাদুল কাদেরী, আল্লামা মুমতাজ আহমদ আশরাফুল কাদেরী, মুফতি আবদুল মান্নান, মাওলানা শফী,জনাব ক্বারী ইয়াহইয়া ও কামারুজ্জামান আজমির মতো ব্যক্তীত্বরা প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয় তহবিল সংগ্রহের জন্য আবদুল আজিজ মুরাদাবাদীর সাথে কাজ করেছিলেন। [৪]

রেজা মুবারক শাহ মসজিদ।
আজিজ হোস্টেলের সম্মুখ ভাগ।
আজিজ হোস্টেলের সম্মুখ ভাগ।

ছাত্র[সম্পাদনা]

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ৫৫০০+ ছাত্র রয়েছে।

ভর্তি[সম্পাদনা]

ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হতে হয়। যারা ভর্তি হতে ইচ্ছুক তাদের ৯ শাওয়াল সবাইকে ডাকা হয়। ১০ বা ১১ শাওয়াল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ১৮ শাওয়াল যথারীতি ক্লাশ আরম্ভ হয়।[৫]

বিভাগ[সম্পাদনা]

  • কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগ
  • হিফজুল কুরআন বিভাগ
  • দরসী নিজামী কোর্স
  • তাজভীদ ও কেরাআত বিভাগ
  • তাখাসসুস ফিল ফিকহিল হানাফী
  • আরবী সাহিত্য বিভাগ
  • ফতোয়া প্রশিক্ষণ বিভাগ
  • হাদীস বিভাগ
  • ধর্মতত্ব বিভাগ
  • দাওয়াত ও তাবলীগ বিভাগ। [৬]

সুন্নি বোর্ড স্থাপন[সম্পাদনা]

১৯৯২ সালে মোবারকপুরের আল জামিয়াতুল আশরাফিয়া এর তত্ত্বাবধানে মুফতিদের নিয়ে গঠিত একটি সংস্থা হিসাবে সুন্নি বোর্ড গঠন করা হয়েছিল।[৭]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  1. Sanyal 2008: 32
  2. Sanyal 2008: 33
  3. Sanyal 2008: 34
  4. "Great Religious Leader of the 21st Century"। Allama Azmi। ২০১২-০৩-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১০-১০ 
  5. "Admission | Al Jamiatul Ashrafia"aljamiatulashrafia.in। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১২ 
  6. http://aljamiatulashrafia.in/departments.php
  7. [Reader-List] relay ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ মে ২০০৮ তারিখে

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]