আলো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চিত্র ১. শীর্ষকভেদী আলোর ৭ রঙে বেনীআসহকলা বিন্যাস-প্রবাহ

আলো (Light) এক ধরনের তড়িচ্চুম্বকীয় শক্তি বা বাহ্যিক কারণ , যা চোখে প্রবেশ ক'রে দর্শনের (দেখতে পাওয়ার) অনুভূতি জন্মায় । আলো বস্তুকে দৃশ্যমান করে , কিন্তু এটি নিজে অদৃশ্য । আমরা আলোকে দেখতে পাই না , কিন্তু আলোকিত (আলোপ্রতিবিম্বক) বস্তুকে দেখি । সাদা আলো সাতটি মৌলিক রঙের মিশ্রণ (চিত্র ১ দ্রষ্টব্য) , শীর্ষক (Prism) এর ভেতর দিয়ে আলোকে সঞ্চালিত করলে ৭ রঙ এ আলাদা আলাদা দেখা যায় । আমরা রংধনুতেও দেখতে পাই এ ৭ রঙকে ।

চিত্র ২. তড়িচ্চুম্বকীয় বর্ণালীধারায় মানব-দৃশ্যমান আলোর অবস্থান অর্থাৎ দৃশ্যমান আলো মূলত এক ধরনের তড়িত্‍ চুম্বকীয় বর্ণালি তরঙ্গেরবিকিরণ শক্তি যা জ্ঞানলব্ধ আলোধারার ছোট্ট এক অংশমাত্র (চিত্র ২ দ্রষ্টব্য) ।

আলো আড় তরঙ্গের আকারে এক স্থান থেকে আরেক স্থানে গমন করে ।

মাধ্যমভেদে আলোর বেগের পরিবর্তন হয়ে থাকে । আলোর বেগ মাধ্যমের ঘনত্বের ব্যস্তানুপাতিকশুণ্য মাধ্যমে আলোর বেগ সবচেয়ে বেশি । শূন্যস্থাণে আলোর বেগ প্রতি সেকেন্ডে ৩x১০ মিটার (১৮৬০০০ মাইল/সেকেন্ড) যে মহাগতি মানবজাতির অর্জনসাপেক্ষে অলঙ্ঘ্য ব'লেই ধ'রে নেয়া হচ্ছে ।


'আলোর ক্রিয়াদি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]