আব্দুর রহিম (জেনারেল)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আব্দুর রহিম
ডাকনামনান্নু
জন্মকসবা উপজেলা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা
মৃত্যু১৫ আগস্ট ২০২১
ঢাকা
আনুগত্যবাংলাদেশ
সার্ভিস/শাখাবাংলাদেশ সেনাবাহিনী
পদমর্যাদাবিগ্রেডিয়ার জেনারেল
নেতৃত্বসমূহমহাপরিচালক - জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা

আব্দুর রহিম (মৃত্যু : ১৫ আগস্ট ২০২১) ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত বিগ্রেডিয়ার জেনারেল। তিনি ২০০১ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দার মহাপরিচালক ছিলেন।[১]

তিনি ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করে সেনাবাহিনীর কমিশন কোরে যোগদান করেন।

অভিযোগ[সম্পাদনা]

২০০৪ সালের ঢাকা গ্রেনেড হামলা মামলায় তিনি অভিযুক্ত ছিলেন। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের শাসনামলে হাওয়া ভবনের যাতায়াত ছিল তার।[২] চট্টগ্রামে ১০ ট্রাক অস্ত্র আটক মামলায় ২০১৪ সালের ৩০ জানুয়ারি চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালত ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ রায় ঘোষণা করে। ওই মামলায় বিএনপি নেতা সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও তাকেসহ ১৪ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত।[৩] তার মৃত্যুর সময় পর্যন্ত মামলাটি উচ্চ আদালতে বিচারাধীন ছিল।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২৬ জুলাই ২০২১ সালে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এ থাকা অবস্থায় তার করোনা শনাক্ত হয়। পরে তাকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। ১৫ আগস্ট ২০২১ সালে তিনি সেখানে মৃত্যুবরণ করেন।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুর রহিম মারা গেছেন"কালের কণ্ঠ। ১৫ আগস্ট ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০২১ 
  2. "গ্রেনেড হামলার আগে হাওয়া ভবনে যান আব্দুর রহিম: আদালতে সাক্ষী"banglanews24.com। ১৩ জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০২১ 
  3. "সাবেক দুই গোয়েন্দা প্রধানের ফাঁসি, তিন আইজিসহ ৮ পুলিশের সাজা"Sarabangla.net। ২০১৮-১০-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১২ 
  4. "সাবেক এনএসআই প্রধান আব্দুর রহিম কারাবন্দী অবস্থায় মারা গেছেন"দৈনিক নয়াদিগন্ত। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০২১