আব্দুর রইছ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাননীয় সংসদ সদস্য
আব্দুর রইছ
পূর্বসূরীশুরু (স্বাধীনতা লাভ)
উত্তরসূরীদেওয়ান শামছুল আবেদীন
১ম জাতীয় সংসদ-এ সুনামগঞ্জ-৩ আসন-এর
সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
৭ মার্চ ১৯৭৩ – ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯
সংখ্যাগরিষ্ঠবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মআব্দুর রইছ
(১৯৩১-০৫-০১)১ মে ১৯৩১
জগন্নাথপুর, সুনামগঞ্জ, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু১৮ ডিসেম্বর ১৯৮৮(1988-12-18) (বয়স ৬৪)
ঢাকা, বাংলাদেশ
নাগরিকত্বব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
দাম্পত্য সঙ্গীরফিকা রইছ চৌধুরী
সন্তানএম. এনামুল কবির ইমন
পেশারাজনীতি
জীবিকাআইনজীবী
যে জন্য পরিচিতসুনামগঞ্জ-৩ আসনের “১ম এমপি
এমপিএ (১ বার)
ধর্মইসলাম

আব্দুর রইছ (১ মে ১৯৩১ - ১৮ ডিসেম্বর ১৯৮৮)[১] হলেন বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ ও পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদজাতীয় সংসদ সদস্য। ১৯৭৩ সালের তিনি ১ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক সিলেট-৩ (বর্তমানঃ সুনামগঞ্জ-৩) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। [২]

জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতি[সম্পাদনা]

আব্দুর রইছ ১৯৩১ সালের ১ মে তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির সুনামগঞ্জ মহুকুমার জগন্নাথপুরের পাটলী ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[১] রফিকা রইছ চৌধুরীর সাথে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।[৩] তাদের সন্তান হলেন সুনামগঞ্জের ১ম জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিষ্টার এম. এনামুল কবির ইমন[৪] তার স্ত্রী ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের আমৃত্যু সভানেত্রী।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি বাংলাদেশের সংবিধান রচনায় গুরত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করেন। ১৯৮৭ সালে জেলা বারের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

আব্দুর রইছ রাজনীতিতে গনতন্ত্র ও এলডি এফ এর সাথে ছিলেন। তিনি ১৯৬৯ সালে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন। ১৯৭০ সালে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৩ সালের ৭ মার্চ অনুষ্ঠিত ১ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে[৫][৬][৭] আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তৎকালীন সিলেট-৩ (বর্তমানঃ সুনামগঞ্জ-৩) আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন।[২][৮][৯] ১৯৭৩ থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের আমৃত্যু সভাপতি। এর আগে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দ্বায়িত্ব পালন করেন তিনি।

স্বাধীকার আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে অবদান[সম্পাদনা]

তিনি স্বাধীনতা সংগ্রামে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।

সমাজসেবামূলক কর্মকান্ড[সম্পাদনা]

মুত্যু[সম্পাদনা]

১৮ ডিসেম্বর ১৯৮৮সালে মৃত্যু বরণ করেন।

পুরস্কার, স্মারক ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "একজন জননতো অ্যাডভোকেট আব্দুর রইছ"জেপিনিউজ২৪.কম অনলাইন। ১ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  2. "১ম জাতীয় সংসদ সদস্য তালিকা (বাংলা)"www.parliament.gov.bd। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  3. "বিনম্র শ্রদ্ধায় মমতাময়ী প্রয়াত রফিকা রইছ চৌধুরী"জনতারনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম অনলাইন। ১১ নভেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "সুনামগঞ্জের আওয়ামী রাজনীতির আগামী দিনের কান্ডারী ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন"জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম অনলাইন। ১৩ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "সংসদের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস (১৯৩৭-২০০৯)" (PDF)www.parliament.gov.bd। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  6. "বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের ইতিহাস"ডয়েচ ভেল অনলাইন। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  7. "বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচন ১৯৭৩-২০১৪"সিএসবি নিউজ অনলাইন। ১৪ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  8. "আওয়ামী লীগে কোন্দল স্বস্তিতে বিএনপি"দৈনিক মানবজমিন (অনলাইন ভার্সন)। ২০ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  9. "নির্বাচনী হাওয়া জগন্নাথপুর-দক্ষিণ সুনামগঞ্জে"সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম অনলাইন। ২৪ আগস্ট ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]