আবু তাহের মজুমদার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আবু তাহের মজুমদার
চিত্র:পুরুষ
পেশা শিক্ষাবিদ, কবি, লেখক এবং অণুবাদক
জাতীয়তা বাংলাদেশী
জাতি বাঙালি
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
একই নামের অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের জন্য দেখুন আবু তাহের (দ্ব্যর্থতা নিরসন)

আবু তাহের মজুমদার বাংলাদেশের একজন শিক্ষাবিদ, কবি, লেখক এবং অণুবাদক।[১] পিতা সাফায়েত আহমেদ মজুমদার এবং মাতা মোসাম্মাত হাসান বানু বেগমের পুত্র আবু তাহের মজুমদার ফেনী'র হাসানপুরে ২৯শে জানুয়ারি ১৯৪০ তারিখে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বেগম জেকিয়া সুলতানার সঙ্গে পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ। তিনি দীর্ঘকাল জাহাঙ্গীরনগন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজী সাহিত্যের অধ্যাপনা করেছেন। তাঁর জীবনানন্দ একটি উল্লেখযোগ্য সাহিত্যসমালোচনা গ্রন্থ। [২]

শিক্ষা ও জীবন[সম্পাদনা]

প্রবেশিকা : আর্মানিটোলা গভর্নমেন্ট হাই স্কুল, ঢাকা (১৯৫৫); উচ্চ মাধ্যমিক : ভিক্টোরিয়া কলেজ, কুমিল্লা (১৯৫৭); স্নাতক সম্মান (ইংরেজি) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৬১); স্নাতকোত্তর (ইংরেজি) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৬২); স্নাতকোত্তর (ইংরেজি)। ১৯৭২ খ্রিস্টাব্দে যুক্তরাজ্যের ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও গবেষণার মাধ্যমে এম. এ. ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি ১৯৭৮-৭৯ মেয়াদে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের কিংস কলেজে কমন্‌ওয়েলথ্‌ একাডেমিক স্টাফ ফেলো হিসেবে গবেষণা করেছেন। অতঃপর ১৯৯০-৯১ মেয়াদে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ফ্লোরিডায় সিনিয়র ফুলব্রাইট রিসার্চ ফেলো হিসেবে গবেষণা করেছেন। বিভিন্ন বেসরকারী এবং সরকারী কলেজে শিক্ষকতার পর ১৯৭৩ খ্রিস্টাব্দে তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে যোগদান করে ১৯৮৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে ২০০৬ অবধি অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। [৩] ২০০৮ থেকে তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি-এর ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপক এবং চেয়ারম্যান কর্মরত। তিনি "সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক"-এর জাতীয় কমিটির একজন নির্বাহী সদস্য। [৪]

প্রকাশিত গ্রন্থসমূহ[সম্পাদনা]

কবিতা[সম্পাদনা]

বইয়ের নাম প্রকাশিত হয়েছেচ
এবং দেয়ালের ফ্রেমে ১৯৮৯
ফেরার পথে ১৯৮৯
মানুষ শ্বাপদ হয় ১৯৯০
এই পথে ১৯৯১
কলহান্তরিতা ১৯৯৫
চিঠি দিও ১৯৯৭
অনন্তকাল এই জানালায় ২০০২
হৃদয় তোমার বিস্ফোরণে ২০০৪
আমি আঁধারেই থাকতে চাই ২০০৫

ছোটগল্প[সম্পাদনা]

মূর্ছিত দর্পণে (১৯৯২)।

প্রবন্ধ-গবেষণা[সম্পাদনা]

স্যার উইলিয়াম জোনস ও অন্যান্য প্রবন্ধ (১৯৮৮); ঝরৎ ডরষষরধস ঔড়হবং : ঞযব জড়সধহঃরবং ধহফ ঃযব ঠরপঃড়ৎরধহং (১৯৭৬); ঝরৎ ডরষষরধস ঔড়হবং : অ চড়বঃরপধষ ঝঃঁফু, (১৯৭৮); ঝরৎ ডরষষরধস ঔড়হবং ধহফ ঃযব ঊধংঃ (১৯৭৮); এষরসঢ়ংবং রহঃড় ঊরমযঃববহঃয ঈবহঃঁৎু ঈৎরঃরপধষ ঞযড়ঁমযঃং (১৯৮০); খরঃবৎধৎু ধহফ ড়ঃযবৎ ঊংংধুং (১৯৮৯); ঞযৎবব ঊংংধুং ড়হ ঝরৎ ডরষষরধস ঔড়হবং (১৯৯৩); ডি. এইচ. লরেন্সের লেডি চার্টারলিজ লাভার এবং সেক্স বনাম লাবণ্য (১৯৯৭); জীবনানন্দ (২০০২)।

শিশুসাহিত্য[সম্পাদনা]

ডানে ও আছি বামেও আছি (ছড়া, ১৯৯২)।

অণুবাদ[সম্পাদনা]

এবারক্রম্বির সাহিত্য সমালোচনা (১৯৮৭) টি. এস. এলিয়ট তত্ত্ব ও কৃতি (১৯৯৩); অধিকতর আর্থিক সয়ম্ভরতার লক্ষ্যে (১৯৯৪); ব্যবহারিক ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়েল (১ম ও ২য় খ- ১৯৯৪); ঞযব ছঁবংঃ ভড়ৎ ঞৎঁঃয : ঝবপঁষধৎ চযরষড়ংড়ঢ়যু (যৌথ, ১৯৯৮); বোর্হেসের সাত রাত (২০০৩)[৫]। সম্পাদনা : ঋরভঃু ঝবাবহ খবঃঃবৎং ড়ভ উৎ. ঝুবফ ঝধললধফ ঐঁংধরহ (২০০০)।

আত্মস্মৃতি[সম্পাদনা]

স্মৃতিসুধার জ্যাকসনভিল (২০০৮)[৬]

গ্রন্থসূত্র[সম্পাদনা]

  • বাংলা একাডেমী লেখক অভিধান, ঢাকা, ২০০৭।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]