আডেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আডেল
Adele.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামআডেল লরী ব্লু অ্যাডকিন্স
জন্ম (১৯৮৮-০৫-০৫) ৫ মে ১৯৮৮ (বয়স ৩০)
টোট্টেনহ্যাম, গ্রেটার লন্ডন, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য
পেশাগায়ক, গীতিকার, সঙ্গীতজ্ঞ, সঙ্গীত রচয়িতা, সঙ্গীত ব্যবস্থাপক
বাদ্যযন্ত্রসমূহVocals, guitar, keyboards, bass guitar, percussion
কার্যকাল২০০৬–বর্তমান
লেবেলXL, Columbia
ওয়েবসাইটadele.tv

আডেল লরী ব্লু অ্যাডকিন্স (ইংরেজি: Adele Laurie Blue Adkins)[১] MBE (জন্ম ৫ মে ১৯৮৮), শুধুমাত্র আডেল হিসেবেই অধিক জনপ্রিয় একজন ইংরেজ গায়ক, গীতিকার, সঙ্গীতজ্ঞ, সঙ্গীত রচয়িতা এবং সঙ্গীতযন্ত্র বিশারদ। আডেল ২০০৬ সালে এক্সএল রেকর্ডিং থেকে চুক্তি প্রস্তাব লাভ করে যখন তার একজন বন্ধু মাইস্পেস নামক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার একটি ডেমো প্রকাশ করে। পরবর্তি বছর তিনি ব্রিট পুরস্কারের পক্ষ থেকে সমালোচক পুরস্কার লাভ করেন এবং বিবিসির পক্ষ থেকে ২০০৮ সেরা সঙ্গীত খেতাব অর্জন করেন। তার প্রথম সঙ্গীত এ্যালবাম 19 ২০০৮ এ প্রকাশিত হয় যা ব্যাপক ব্যবসা সাফল্য এবং সমালোচনা লাভ করে।এই এলবাম বেশ কিছু পুরস্কার অর্জন করতে সক্ষম হয়।[২][৩] ২০০৯ সালের গ্র্যামী পুরস্কার অণুষ্ঠানে, আডেল নবাগত শিল্পী এবং সেরা নারী পপ কণ্ঠশিল্পীর পুরস্কার অর্জন করেন।[৪][৫]

২০১১ সালে আডেল তার দ্বিতীয় এ্যালবাম ২১ প্রকাশ করেন।[৬][৭] যা ব্যাপক সমালোচনার সাথে গৃহীত হয়[৮] এবং বছরের সেরা এ্যালবাম পুরস্কারসহ তাকে মোট ছয়টি গ্র্যামী পুরস্কার এনে দেয়। [৯][১০] এই অ্যালবামটির জন্য আডেল ২০১২ ব্রিট এয়ার্ড এবং তিনটি আমেরিকান মিউজিক এওয়ার্ডসহ আরও অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করে। এই অ্যালবামটিকে যুক্তরাজ্যে ১৬ বার প্লাটিনাম খেতাব দেয়া হয়।[২][১১][১২][১৩] ইন্টারন্যশনাল ফেডারেশন অব ফনোগ্রাফিক ইন্ডাস্ট্রি বর্ননা অণুযায়ী এই অ্যালবামটি বিশ্বে ২৬ মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়।[১৪] 21এর ব্যাপক সাফল্যের অনেকগুলো রেকর্ড গিনেস বুকে উল্লেখিত হয়। আডেলই সর্বপ্রথম যুক্তরাজ্যে এক বছরে ৩ মিলিয়ন কপি অ্যালবাম বিক্রি করতে সক্ষম হন।[১৫]

আডেলই প্রথম শিল্পী যার ৩টি গান একই সময়ে বিলবোর্ডের সেরা ১০০ গানের তালিকার প্রথ ১০টি স্থান করে নেয় এবং প্রথম নারী সঙ্গীতশিল্পী যার দুটি অ্যালবাম বিলবোর্ডের সেরা ৫টি এ্যালবামের মধ্যে স্থান করে নেয়।[১৬] 21 যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে তালিকার শীর্ষে থাকা নারী কন্ঠের শিল্পীর অ্যালবাম।[১৭][১৮] ২০১২ এবং ২০১২ সালে বিলবোর্ড ম্যাগাজিন আডেল বছরের সেরা শিল্পী হিসেবে ঘোষনা করে।[১৯][২০] ২০১২ সালে আডেল ভিএই1 প্রনীত সঙ্গীতের সেরা ১০০ নারীর তালিকায় ৫ম স্থান অর্জন করেন[২১] এবং টাইম পত্রিকা তাকে বিশ্বের সেরা অণুপ্রেরণা দানকারীদের অন্যতম হিসেবে ঘোষনা করে।[২২]

২০১৩ সালে আডেল জেমস বন্ড সিরিজের ২৩তম ছবি স্কাইফল এর থিমসং স্কাইফলের জন্য ৮৫ তম একাডেমী পুরস্কার এবং গোল্ডেন গ্লোব সেরা মৌলিক গানের পুরস্কার অর্জন করেন।[২৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Frehsée, Nicole (22 January 2009), "Meet Adele, the U.K.'s Newest Soul Star", Rolling Stone. (1070):26
  2. "Certified Awards Search"British Phonographic Industry। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১১ 
  3. "Recording Industry Association of America"। RIAA। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  4. "Brits on top: Duffy, Adele and Coldplay clinch top awards as they lead British winners at Grammys"Daily Mail। London: Associated Newspapers। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১১ 
  5. Jody Thompson (৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। "Coldplay, Robert Plant, Radiohead, Duffy and Adele win at Grammy Awards after Rihanna pulls out of show – 3am & Mirror Online"। Mirror.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  6. "Adele: New Record is 'Quite Different'"Spin Magazine। ২ নভেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১১ 
  7. "Adele to Release '21' Sophomore Album in February Billboard 2 November 2010"Billboard। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১১ 
  8. "British soul singer Adele preps summer U.S. tour"Los Angeles Times। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১১ 
  9. "Grammy Awards 2012: Adele wins six awards tying with Beyoncé for most trophies won in one night"। Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  10. "Grammys 2012 winners: Adele wins SIX Awards as music world remembers Whitney Houston | Mail Online"। Dailymail.co.uk। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  11. Caulfield, Keith (29 February)। "Adele's '21': Longest-Running No. 1 Album Since 'Purple Rain'"Billboard। সংগ্রহের তারিখ 1 March 2012  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  12. Caulfield, Keith (13 June)। "Adele's '21' Hits 24th Week at No. 1 on Billboard 200"Billboard। সংগ্রহের তারিখ 14 June 2012  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  13. Keith Caulfield (27 Nov 2012). "Adele's '21' Hits 10 Million in U.S. Sales". Billboard. Retrieved 29 November 2012
  14. "Digital Music Report 2013: Top selling global albums" (PDF)International Federation of the Phonographic Industry। ২০১৩-০২-২৬। পৃষ্ঠা 11। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০২-২৬ 
  15. Kaufman, Gil (১৪ সেপ্টেম্বর ২০১১)। "Adele, Lady Gaga, Justin Bieber Land New Guinness Records"। MTV। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  16. Trust, Gary (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Analysis: How Adele Scored Two Titles Each in the Hot 100 & Billboard 200's Top Five"Billboard (magazine)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  17. "CBBC – Newsround – Adele makes music history again with album chart record"। BBC News। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  18. "Adele breaks Houston's chart record – Entertainment (Australian Broadcasting Corporation)"। Abc.net.au। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  19. Keith Caulfield (৯ ডিসেম্বর ২০১১)। "The Year in Pop: Adele Makes History"। Billboard.com। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  20. "Adele named Billboard top artist of 2012". BBC News. Retrieved 17 December 2012
  21. Graham, Mark (১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "VH1′s 100 Greatest Women In Music (COMPLETE LIST) – | VH1 Tuner"। Vh1.com। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  22. Pink (১৯ এপ্রিল ২০১২)। "Adele – 2012 Time 100: The Most Influential People in the World"TimeTime Inc.. (Time Warner)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০১২ 
  23. "2013 Oscars Nominees"। oscars। জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]