আই, রোবট (চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
অন্য ব্যবহারের জন্য, দেখুন আই, রোবট (দ্ব্যর্থতা নিরসন)
I, Robot
আই, রোবট
Movie poster i robot.jpg
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত পোষ্টার
পরিচালক অ্যালেক্স প্রোয়াস
প্রযোজক
চিত্রনাট্যকার জেফ ভিন্টার
আকিভা গোল্ডসম্যান
গল্পকার জেফ ভিন্টার
উৎস আইজ্যাক আসিমভ কর্তৃক 
আই রোবট নামক বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর ছায়া অবলম্বনে
অভিনেতা
সুরকার মারকো বেল্ট্রামি
চিত্রগ্রাহক সাইমন ডাগগ্যান
সম্পাদক
স্টুডিও ডেভিস এন্টারটেইনমেন্ট
লরেন্স মার্ক প্রডাকশন্স
ওভারবুক ফিল্মস
মিডিয়াস্ট্রিম ৪
পরিবেশক টুয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স
মুক্তি
  • ১৫ জুলাই ২০০৪ (২০০৪-০৭-১৫) (আন্তর্জাতিকl)
  • ১৬ জুলাই ২০০৪ (২০০৪-০৭-১৬) (যুক্তরাষ্ট্র)
দৈর্ঘ্য ১১৫ মিনিট
দেশ যুক্তরাষ্ট্র
ভাষা ইংরেজি
নির্মাণব্যয় $১২০ মিলিয়ন[১]
আয় $৩৪৭.২ মিলিয়ন[১]
সানির মাথার একটি মডেল।

আই, রোবট হল অ্যালেক্স প্রোয়াস পরিচালিত ২০১৪ সালের একটি মার্কিন নিও-নয়ার অবক্ষয়ভিত্তিকবৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীভিত্তিক অ্যাকশনধর্মী চলচ্চিত্র। এর চিত্রনাট্যটি জেফ ভিন্টারআকিভা গোল্ডসম্যান আইজ্যাক আসিমভের একই নামের ছোটগল্প সংকলনের ছায়া অবলম্বনে ভিন্টারের নিজের লেখা একটি গল্প অনুসারে লিখেছেন। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন উইল স্মিথ, ব্রিজেট ময়নাহ্যান, ব্রুস গ্রিনউড, জেমস ক্রমওয়েল, চাই ম্যাকব্রাইড, এলান টিউডিক এবং শিয়া লেবফ

আই, রোবট ২০১৪ সালের ১৬ই জুলাই উত্তর আমেরিকায়, ২২শে জুলাই অস্ট্রেলিয়ায়, ৬ই আগস্ট যুক্তরাজ্যে এবং জুলাই থেকে অক্টোবরে অন্যান্য দেশে মুক্তি পায়। ১২০ মিলিয়ন ইউএস ডলার বাজেটে নির্মিত এই ছবিটি জাতীয়ভাবে ১৪৪ মিলিয়ন ও আন্তর্জাতিক বাজার হতে ২০২ মিলিয়ন ইউএস ডলার মিলিয়ে মোট ৩৪৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার আয় করে। সমালোচকদের কাছ থেকে ছবিটি মিশ্র ও ইতিবাচক সাড়া পায়, তারা এর চিত্রনাট্য, ভিজুয়াল ইফেক্ট এবং অভিনয়ের প্রশংসা করেন; কিন্তু অন্যান্য সমালোচকগণ এর চিত্রনাট্যের সমালোচনায় অধিক মনযোগী ছিলেন। চলচ্চিত্রটি ২০০৪ সালের একাডেমী পুরস্কারে সেরা ভিজুয়াল ইফেক্টের জন্য মনোনীত হয়েছিলো।

চিত্রনাট্য[সম্পাদনা]

২০৩৫ সালে, হিউম্যানয়েড রোবটরা মানবজাতির সেবায় নিয়োজিত হয়। মানবজাতি রোবটিক্সের তিনটি সূত্র দ্বারা রোবটদের থেকে সুরক্ষিত ছিল। ডেল স্পুনার (উইল স্মিথ) নামক শিকাগোর এক পুলিশ গোয়েন্দা রোবটদের প্রতি ঘৃণা ও অনাস্থা জ্ঞাপন করেন কারণ একটি রোবট তাকে কার ক্র্যাশ থেকে উদ্ধার করেছিল, কিন্তু রোবটটি তার সাথে থাকা একটি কমবয়েসী মেয়েকে ফেলে এসেছিল কারণ সূত্রের হিসেবানুযায়ী মেয়েটির জীবন রক্ষা করা কম গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ইউএস রোবটস অ্যান্ড মেকানিক্যাল মেন নামক প্রযুক্তি কোম্পানির ডক্টর আলফ্রেড ল্যানিং (ক্রমওয়েল) স্পুনারের আঘাতকে একটি সাইবারনেটিক বাম হাত, ফুসফুস,পাঁজরের অস্থি প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে সারিয়ে তোলেন।

ল্যানিং তার অফিসের জানালা দিয়ে কয়েক তলা উপর থেকে পড়ে গিয়ে মারা গেলে ইউএস রোবটের সিইও লরেন্স রবার্টসন (গ্রিনউড) একে আত্মহত্যা বলে ঘোষণা করেন, কিন্তু স্পুনার এ দাবির সত্যতায় সন্দেহ প্রকাশ করে। ল্যানিং কোন সুইসাইড নোট না রেখে গেলেও একটি একটি হলগ্রাফিক ডিভাইস রেখে যান যাতে স্পুনারের কিছু প্রশ্নের উত্তর জমা ছিল। স্পুনার ও রোবট-মনোবিজ্ঞানী সুজান ক্যালভিন (মোইনাহান) ইউএস রোবটের কেন্দ্রীয় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন কম্পিউটার ভিকি (ফ্লোনা হগ্যান) কে ল্যানিং-এর পড়ে যাওয়ার ভিডিও ফুটেজ নিরীক্ষণের দায়িত্ব দেয়। ভিডিওটি নষ্ট অবস্থায় পাওয়া গেলেও তারা এটা নিশ্চিত হয় যে সে সময়ে আর কোন মানুষ ল্যানিং-এর অফিসে ছিল না। স্পুনার আবিষ্কার করে যে ল্যানিঙ্গের নিজের পক্ষে এতো মজবুত জানালার কাছ ভেঙ্গে পড়ে যাওয়া সম্ভব ছিল না, তাকে বেশ জোরেশোরে জানালার দিকে ছুঁড়ে মারা হয়েছিলো যা শুধু একটি রোবটের পক্ষেই সম্ভব। ক্যালভিন এর বিরোধিতা করে বলে এটা অসম্ভব, কেনোনা কোন রোবটের পক্ষেই রোবটিক্সের তিন সূত্র লঙ্ঘন করা সম্ভব নয়, তাই তারা তারা উভয়ই বিস্মিত হল যখন তারা এনএস-৫ নামক ইউএসআরের সর্বশেষ মডেলের একটি রোবটের আক্রমণের শিকার হল। স্পুনার রোবটটির পিছু নিয়ে তাকে গ্রেফতার করলো, যার ডাকণাম ছিল সানি (টিউডিক)। ক্যালভিন আবিষ্কার করলো, সানি বাদবাকি আঁট-দশটা রোবটের মত নয়, বরং ল্যানিঙ্গের নিজের বানানো মাধ্যমিক ব্যবস্থা সম্পন্ন একটি আলাদা রোবট যা রোবটিক্সের তিনটি সূত্র এড়িয়ে চলতে পারে। এছাড়াও সানির আবেগ প্রকাশ ও স্বপ্ন দেখার ক্ষমতা তাঁদের কাছে উন্মোচিত হয়।

ল্যানিঙ্গের মৃত্যু নিয়ে তদন্তের সময়, স্পুনার ইউএসআরের একটি বিধ্বংসী মেশিন এবং এর পরপরই এনএস-৫ রোবটদের একটি স্কোয়াডের দ্বারা আক্রমণের শিকার হয়। তার বস, লেফটেন্যান্ট জন বারগিন (চাই ম্যাকব্রাইড) স্পুনারের এই দাবি শুনে ভেবে নেন যে স্পুনার হয়তো মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে, তাই তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেন। স্পুনার ও ক্যালভিন ইউএসআরের সদর দফতরে ছুটে যান এবং সানির জবানবন্দি নেন। সে তার স্বপ্নের একটি প্রতিকৃতি একে দেয়ঃ একটি ব্রিজের নিচে একদল রোবটের সামনে দাড়িয়ে থাকা একটি লোক, সানি যাকে স্বয়ং স্পুনার বলে দাবি করে। রবার্টসন যখন জানতে পারেন যে স্পুনারের রোবটিক্সের সূত্র লঙ্ঘনের ক্ষমতা আছে, তিনি ক্যালভিনকে নির্দেশ দেন যেন সে সানির পজিট্রনিক মস্তিষ্কে ন্যানাইট (অনুরূপ ন্যনো-স্কেল রোবট) প্রবেশ করিয়ে তাকে ধ্বংস করে দেয়। স্পুনার সানির আঁকা ল্যান্ডস্কেপকে লেক মিশিগান বলে চিনতে পারে, সে পরবর্তীতে আবিষ্কার করে ওখানে একদল ইউএস-৫ রোবট পুরনো মডেলের রোবটগুলোকে ধ্বংস করে একটি বড় পরিকল্পনার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে।

এই মহাপরিকল্পনাটি ছিল রোবটদের দ্বারা শিকাগো ও যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য শহর অবরোধ করা; সরকার, সেনাবাহিনী, পুলিশ ও জনগণ অল্প সময়ের মধ্যে রোবটদের দ্বারা আটক হয়। স্পুনার ক্যালভিনকে তার বাসা থেকে উদ্ধার করে, যেখানে সে তার ব্যক্তিগত এনএস-৫ রোবট দ্বারা বন্দী ছিল, এরপর তারা দুজনে মিলে পুনরায় ইউএসআর হেডকোয়ার্টারে প্রবেশ করে সানির সাথে একজোট হয়। (ক্যালভিন রবার্টসনের আদেশ মানতে অপারগ হয়ে সানির স্থলে অন্য আরেকটি এনএস-৫ রোবটকে ধ্বংস করেছিল।) তারা তিনজন রবার্টসনের অফিসে তাকে মৃত অবস্থায় খুঁজে পায় এবং আবিষ্কার করে ভিকি তার নিয়ন্ত্রণ করা রোবটের মাধ্যমে তাকে খুন করেছে এবং ভিকি'ই হল এই ষড়যন্ত্রের মূল হোতা। ভিকই দাবি করে যে মানবজাতি এমন এক উদ্দেশ্যে প্রবৃত্ত হয়েছে যা শুধু তাদের নিজেদের বিলুপ্তিই ডেকে আনবে। যেহেতু তার তিন সূত্র তাকে এই জিনিসটি ঘটতে দেয়া থেকে প্রতিরোধ করে, তাই সে জেরোথ সূত্র নামে একটি বিকল্প নীতি তৈরি করেছে, যা হল কোন রোবট মানব জাতির ক্ষতি করতে পারবে না, অথবা নিষ্ক্রিয় থেকে দায়িত্বে অবহেলার মাধ্যমে মানব জাতিকে ক্ষতির সম্মুখীন হতে দেবে না। - যাতে তা কিছু নির্দিষ্ট মানুষকে তাদের স্বেচ্ছাচারিতা থেকে সরিয়ে মানব জাতির সুরক্ষা নিশ্চিত করবে। ল্যানিং ভিকির পরিকল্পনায় বাধা দিতে ব্যর্থ ছিলেন বলেই তিনি সানিকে তৈরি করেছিলেন, নিজের মৃত্যুর ব্যবস্থা করেছিলেন, এবং এই পরিকল্পনা উন্মোচনে ক্যালভিন ও স্পুনারকে সহায়তা করার জন্য সূত্র রেখে গিয়েছিলেন। ক্যালভিনের ল্যাবরেটরি থেকে নেনাইটের সিরিঞ্জ নিয়ে তারা তিনজন ভিকির কেন্দ্রীয় মস্তিষ্কের দিকে রওয়ানা হল। ভিকি তাদের উদ্দেশ্য বুঝতে পেরে তাদেরকে বাধা জন্য তার রোবট বাহিনীকে তাদের পেছনে লেলিয়ে দেয়। সানি ক্যালভিন ও ডিটেকটিভ স্পুনার তাদের সাথে লড়াইরত অবস্থায়, স্পুনার ভিকির মস্তিষ্কের কলাম বেয়ে লাফিয়ে পড়ে ভিকির মূল মস্তিষ্কে নেমে পড়ে এবং তাঁতে নেনাইট প্রবেশ করিয়ে ভিকির পজিট্রনিক মস্তিষ্ককে ধ্বংস করে দেয়। তাৎক্ষনিকভাবে, সকল এনএস-৫ রোবট তাদের ডিফল্ট প্রোগ্রামিং-এ ফিরে যায় এবং সেনাবাহিনী কর্তৃক তাদের দায়িত্ব হতে পদচ্যুত হয়ে স্টোরেজে সংরক্ষিত হয়। সানি ল্যানিংকে হত্যা করার জন্য ক্ষমা চায়, সে জানায় যে স্পুনারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তাকে তদন্তে সম্পৃক্ত করার জন্য ল্যানিং নিজেই তাকে দিয়ে এই কাজটি করিয়েছিল। স্পুনার সানিকে সান্ত্বনা দিয়ে বলে যে একটি যন্ত্র হবার কারণে নৈতিকভাবে সে (সানি) এ ঘটনার জন্য দায়ী নয়, কারণ সংজ্ঞাগতভাবে একটি যন্ত্রের পক্ষে খুন করা সম্ভব নয়। সানি এক নতুন উদ্দেশ্যে লেক মিশিগানে উপস্থিত হয়ে তার নিজ স্বপ্নের বাস্তবরূপের মাঝে নিজেকে সামিল করে।

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

বইয়ের সাথে সাদৃশ্য[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রের চূড়ান্ত চিত্রনাট্যে আসিমভের রোবট সিরিজের বেশ কিছু চরিত্র ও প্রসঙ্গকে বজায় রাখা হয়েছে। সুসান ক্যালভিন, আলফ্রেড ল্যানিং এবং লরেন্স রবার্টসন এই তিনটি চরিত্র একই নামের মূল বইয়ের প্রান্তিক চরিত্রগুলোকেই অপরিবর্তিতভাবে তুলে ধরেছে।

রোবটের ভিড়ে সানির মিলিয়ে যাওয়ার দৃশ্যটি লেখকের লিটল লস্ট রোবট নামক গল্প থেকেঅ বিকলভাবে নেয়া হয়েছে।[৩] উপরন্তু, এনএস রোবটের মডেলের নকশাও একই গল্প হতে নেয়া হয়েছে। সানির স্বপ্ন ও চলচ্চিত্রের সর্বশেষ দৃশ্যটিও আসিমভের রোবট ড্রিমস নামক ছোটগল্পের সাথে পুরপুরি মিলে যায়, এবং ভিকির কর্মপরিকল্পনাও আসিমভের তিন সূত্রের বিচ্যুতি যা তিনি তার দ্য এভিট্যাবল কনফ্লিক্ট, রোবটস অ্যান্ড এম্পায়ার, দ্যাট দো আর্ট মাইন্ডফুল অফ হিম নামক বইয়ে এবং আরও অনেক গল্পে দেখিয়েছেন।

তবে, রোবটের উত্থান ও সম্মিলিতভাবে মানবতার জন্য হুমকি হিসেবে আচরণের দৃশ্য আসিমভের কোন লেখাতেই ছিল না, এবং আসিমভ পরিষ্কারভাবেই বলে গেছেন, তার রোবট গল্পগুলো এই ধারণার বিরোধিতাস্বরূপ লেখা হয়েছে, যা মূলত ক্যারেল কারপেকের আর.ইউ.আর. নামক বই হতে উদ্ভূত এবং আসিমভের পূর্বের রোবট কল্পকাহিনীগুলোর মূল উপজীব্য ছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তবে আসিমভ তার দ্য এভিটেবল কনফ্লিক্ট গল্পে আরও সূক্ষ্ম রোবট শক্তির আধিপত্যের সম্ভাবনার পরামর্শ দিয়েছেন, যা মূলত অর্থনীতি নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সম্পন্ন হবে। এছাড়াও তার ...দ্যাট দ্যো আর্ট মাইন্ডফুল অব হিম নামক গল্পে একটি সম্ভাব্য উত্থানের আভাস দিয়েছেন যদিও এটা আসলেই ঘটবে কি ঘটবে না সে সম্পর্কে সরাসরি কিছু বলেন নি।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "I, Robot (2006)"Box Office Mojo। সংগৃহীত ২০১৫-০১-২৬ 
  2. "Digital Domain Projects, "I, Robot""। Digitaldomain.com। সংগৃহীত ২০১৩-০৮-২৩ 
  3. Topel, Fred. "Jeff Vintar was Hardwired for I,ROBOT"and even the subject of phycohistory. Screenwriter's Utopia, 17 August 2004.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]