অম্বলপ্পি

স্থানাঙ্ক: ৯°২৩′ উত্তর ৭৬°২১′ পূর্ব / ৯.৩৮৩° উত্তর ৭৬.৩৫০° পূর্ব / 9.383; 76.350
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অম্বলপ্পি
അമ്പലപ്പുഴ
শহর
অম্বলপ্পি শ্রীকৃষ্ণ মন্দির
স্থানাঙ্ক: ৯°২৩′ উত্তর ৭৬°২১′ পূর্ব / ৯.৩৮৩° উত্তর ৭৬.৩৫০° পূর্ব / 9.383; 76.350
রাষ্ট্র ভারত
রাজ্যকেরালা
অঞ্চলকেন্দ্রীয় ত্রিবাঙ্কুর
জেলাআলেপ্পি
সরকার
 • পঞ্চায়েত প্রধানশ্রীমতী সাথী এস নাথ
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট২২,৫৯৩
 • ক্রমজেলায় দ্বিতীয় জনবহুল
ভাষা
 • দাপ্তরিকমালয়ালম
সময় অঞ্চলভারতীয় প্রমাণ সময় (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন৬৮৮৫৬১
যানবাহন নিবন্ধনKL-04 (কেএল-০৪)
লিঙ্গানুপাত১০৪২ ♂/♀
সাক্ষরতার হার৯৩.১৭%
লোকসভা নির্বাচন কেন্দ্রআলেপ্পি[১]
বিধানসভা নির্বাচন কেন্দ্রঅম্বলপ্পি
জলবায়ুনাতিশীতোষ্ণ
ওয়েবসাইটlsgkerala.in/ambalapuzhasouthpanchayat/

অম্বলপ্পি দক্ষিণ ভারতের কেরালা রাজ্যে অবস্থিত আলেপ্পি জেলার একটি ছোট শহর। এটি জেলাসদর আলেপ্পি থেকে ১৪ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত৷

অম্বলপ্পি উত্তর ও দক্ষিণ দুটি পঞ্চায়েতে বিভক্ত৷

কৃষ্ণ মন্দির
কুঞ্জন নাম্বিয়ার স্মৃতিসৌধ
অম্বলপ্পি রামচন্দ্রণ হাতি

ইতিহাস[সম্পাদনা]

চম্পকেশ্বরী অম্বলপ্পি রাজাদের ঐতিহাসিক রাজধানী ছিলো অম্বলপ্পি শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের নিকটেই৷ অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষার্ধ পর্যন্ত চম্পকেশ্বরী রাজাদের তৎপরতায় একটি পৃথক রাজত্বের ভূখণ্ড ছিলো, পরে ত্রিবাঙ্কুরের রাজা মার্তণ্ডবর্মা এই রাজ্যটি দখল করেন৷[২] রাজ্য দখলীকৃৃত হওয়ার পর চম্পকেশ্বরী রাজ পরিবার রাজপাট থেকে সরে যায়৷[৩]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

২০১১ খ্রিস্টাব্দে ভারতের জনগণনা অনুসারে অম্বলপ্পি শহরের জনসংখ্যা ছিল ৩৩,৯৩৯ জন, যার মধ্যে ১৬,৬২০ জন পুরুষ এবং ১৭,৩১৯ জন নারী। ‌ছয় বছর অনূর্ধ্ব শিশুর সংখ্যা ৩,৫৮০। মোট পরিবার সংখ্যা ৭,৮৫৬ টি। তপশিলি জাতি ও তপশিলি উপজাতি পর্যায়ভুক্ত জনসংখ্যার অনুপাত যথাক্রমে ৩.৮২ ও ০.৩৭ জন। শহরটির মোট সাক্ষরতার হার ৯৩.১৭ শতাংশ, যেখানে পুরুষ সাক্ষরতার হার ৯৫.৫২ শতাংশ এবং নারী সাক্ষরতার হার ৯০.৯৩ শতাংশ।[৪]

জাতীয় সড়ক ৬৬ (ভারত)

ভূগোল[সম্পাদনা]

৬৬ নং জাতীয় সড়কের ওপর অবস্থিত অম্বলপ্পি, আলেপ্পি শহরের ১৩ কিলোমিটার (৮.১ মা) দক্ষিণে অবস্থিত একটি সমুদ্র তটবর্তী শহর৷ শহরকেন্দ্র থেকে ১.৫ কিলোমিটার (০.৯৩ মা) পূর্বে রয়েছে শ্রীকৃষ্ণ মন্দির৷

অম্বলপ্পি শ্রীকৃষ্ণ মন্দির[সম্পাদনা]

মনে করা হয় ৭৯০ খ্রিস্টাব্দে স্থানীয় রাজা "চম্পকেশ্বরী পূরারম তিরুনালদেবনারায়ণন তাম্পুরণ" এই মন্দিরটি নির্মাণ করান৷[৩]

হিন্দু ভক্তদের নিকট এই মন্দিরে শ্রীকৃষ্ণের কাছে নিবেদিত "পায়েসম" অতি পরিচিত ভোগ৷ এই ভোগ নিবেদনের পেছনে জনশ্রুতি ও পৌরাণিক কাহিনী রয়েছে৷[৫][ভাল উৎস প্রয়োজন] প্রতি বারো বছরে একবার দার্শনিকগণ সমাবেশ ঘটে ও মন্দিরে 'পল্লীপণ' অনুষ্ঠিত করেন৷ পূর্বে মন্দিরে নরবলি নিবেদন করা হলেও এই প্রথা বর্তমানে লুপ্ত৷[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Assembly Constituencies - Corresponding Districts and Parliamentary Constituencies" (PDF)Kerala। Election Commission of India। ৩০ অক্টোবর ২০০৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১০-২০ 
  2. Sarat Chandra Roy (Ral Bahadur) (১৯৮৬)। Man in India। A. K. Bose। পৃষ্ঠা 323। 
  3. [১]
  4. https://www.census2011.co.in/data/village/628229-ambalappuzha-kerala.html
  5. http://www.hindudevotionalblog.com/2011/07/ambalapuzha-sree-krishna-temple.html
  6. http://zamjose.tripod.com/temple/Ambalapuzha.html