সাহিত্য অকাদেমি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সাহিত্য অকাদেমী ভারতের রাষ্ট্রভাষাগুলিতে রচিত সাহিত্যের উন্নতি ও সমন্বয়ের লক্ষ্যে ভারত সরকার কর্তৃক স্থাপিত একটি প্রতিষ্ঠান। ১২ মার্চ ১৯৫৪ তারিখে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতেএই সংস্থাটি স্থাপিত হয়। ৭ জানুয়ারি ১৯৫৬ তারিখে এটি সোসাইটি রেজিস্টেশন অ্যাক্ট, ১৮৬০ অনুসারে একটি নিবন্ধীকৃত সোসাইটিতে পরিণত হয়। বর্তমানে ভারতের সকল রাজ্যে এই সংস্থার শাখা স্থাপিত হয়েছে। সাহিত্য অকাদেমীর অনুমোদিত ভাষাগুলি হল - অসমীয়া, বাংলা, দোরগি, ইংরেজি, গুজরাতি, হিন্দি, কন্নড়, কাশ্মিরি, কোঙ্কণি, মৈথিলি, মলায়লাম, মইথেই, মরাঠি, নেপালি, ওড়িয়া, পঞ্জাবি, রাজস্থানী, সংস্কৃত, সিন্ধি, তামিল, তেলুগুউর্দু

বিশিষ্ট বাঙালি সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় সাহিত্য অকাদেমীর সভাপতিপদে আসীন ছিলেন। এস এস নুর এই সংস্থার সহ-সভাপতি এবং প্রসিদ্ধ কন্নড় সাহিত্যিক অগ্রহর কৃষ্ণমূর্তি এর সচিব।

উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

সাহিত্য অকাদেমীর মুখ্য উদ্দেশ্য হল ভারতের বহুভাষিক সমাজব্যবস্থার মধ্যে সমন্বয় সাধন, ভারতীয় সাহিত্যের উন্নতিসাধন, উচ্চ সাহিত্যমান স্থাপন এবং ভারতের রাষ্ট্রভাষাগুলিতে রচিত সাহিত্যের পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে জাতীয় সংহতিকে সুসংবদ্ধ করা। সাহিত্য অকাদেমী প্রতিটি ভারতীয় ভাষায় পত্রিকা, মনোগ্রাফ, বিভিন্ন শ্রেণির রচনা, সাহিত্যসংগ্রহ, বিশ্বকোষ, অভিধান, গ্রন্থপঞ্জি ও সাহিত্যের ইতিহাস প্রকাশ করেন। ভারতের বিভিন্ন ভাষার মধ্যে অনুবাদ কর্ম এই সংস্থার দায়িত্বেই মূলত হয়ে থাকে। এছাড়াও বিভিন্ন ভাষা থেকে ভারতীয় ভাষাগুলিতে বিভিন্ন গ্রন্থের অনুবাদ করে থাকে অকাদেমী। এছাড়াও প্রতিবছ ৫০০০০ ভারতীয় টাকা মূল্যের সাহিত্য অকাদেমী পুরস্কার প্রদান করে অকাদেমী।

অবস্থান[সম্পাদনা]

১৯৬১ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মশতবর্ষে নির্মিত নয়াদিল্লির রবীন্দ্র ভবনে সাহিত্য অকাদেমী স্থানান্তরিত হয়। প্রসিদ্ধ স্থপতি এইচ রেহমান নির্মিত এই ভবন অন্যান্য জাতীয় আকাদেমি যথা সঙ্গীত নাটক অকাদেমীললিত কলা অকাদেমীর সঙ্গে বর্তমানে এই সংস্থারও ঠিকানা।

গঠন[সম্পাদনা]

সাহিত্য অকাদেমীর সর্বোচ্চ শাসন কর্তৃত্ব অর্পিত থাকে একটি ৯৭ সদস্যবিশিষ্ট জেনারেল কাউন্সিল এবং ২৫ সদস্যবিশিষ্ট একজিকিউটিভ বোর্ডের হাতে। এই দুই সভাই অকাদেমীর নীতিনির্দেশিকা প্রণয়ণ করে থাকেন।

জেনারেল কাউন্সিলের মেয়াদ পাঁচ বছরের। এই সভা সভাপতি বা প্রেসিডেন্ট, সহ-সভাপতি বা ভাইস-প্রেসিডেন্ট এবং রাষ্ট্রভাষাগুলির প্রতিনিধিত্বকারী একজিকিউটিভ বোর্ড সদস্যদের এবং সাহিত্য অকাদেমীর ফিনান্স কমিটিতে প্রতিনিধিত্বকারী একজন জেনারেল কাউন্সিল সদস্যকে নির্বাচিত করে। সচিব অকাদেমীর প্রধান প্রশাসনিক আধিকারিক।

এছাড়াও সাহিত্য অকাদেমীতে প্রতিটি রাষ্ট্রভাষার জন্য একটি উপদেষ্টা বোর্ড থাকে। এই বোর্ড সংশ্লিষ্ট ভাষার প্রথিতযশা সাহিত্যব্যক্তিত্বদের নিয়ে গঠিত হয়। এঁরা সংশ্লিষ্ট ভাষার উন্নতিসাধনে বিভিন্ন কর্মসূচির প্রস্তাবনা রাখেন। একজিকিউটিভ বোর্ড এই উপদেষ্টা বোর্ডকে নিয়োগ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

সাহিত্য অকাদেমীর ওয়েবসাইট (ইংরেজিতে)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]