মায়া হরিণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মায়া হরিণ (Indian Muntjac or Barking Deer)
Muntjac deer.JPG
সংরক্ষণ অবস্থা
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Animalia
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Mammalia
বর্গ: Artiodactyla
উপ-বর্গ: Ruminantia
পরিবার: Cervidae
উপপরিবার: muntiacinae
গণ: Muntiacus
প্রজাতি: M. muntjak
দ্বিপদী নাম
Muntiacus muntjak
Zimmermann, 1780
Muntjac distribution map.gif

মায়া হরিণ বা কাকর হরিণ (ইংরেজি: Indian Muntjac or Barking Deer) হরিণ প্রজাতির অন্যতম খর্বকায় ও লাজুক সদস্য। ছোট আকারে লালচে বাদামী পিংগল রং এর ফোঁটা বিহীন এ হরিণের চলাফেরা ও জীবনধারণ খুবই চমৎকার। মায়া হরিণ ভয় পেলে বা শিকারী প্রাণী দেখতে পেলে কুকুরের মত ঘেউ ঘেউ করে বলে এদের বার্কিং ডিয়ার বলে। দক্ষিণ ও দক্ষিণ- পূর্ব এশিয়ার বিশাল অংশ জুড়ে মায়া হরিণ দেখা যায়।

বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত।[২]

ক্রমবিবর্তন[সম্পাদনা]

জীবাশ্মবিজ্ঞানীদের মতে, বার হাজার বছর পূর্বে প্লেইস্টোসিন যুগের শেষের দিক থেকে মায়া হরিণের অস্তিত্ব ছিল। তখন থেকেই মাংস ও চামড়ার জন্য পুরো দক্ষিণ ও দক্ষিণ- পূর্ব এশিয়া জুড়ে এরা শিকার হয়ে আসছে।

বিবরণ[সম্পাদনা]

একটা পরিপক্ব মায়া হরিণের গড় ওজন ১৭ কেজি ও উচ্চতা ২২ ইঞ্চি পর্যন্ত হয়। খাটো লালচে বাদামী লোম দ্বারা এরা আবৃত। স্থান ও ঋতুভেদে লোমের রং পরিবর্তিত হয়। পুরুষ হরিণের উপরের চোয়ালের ছেদন দন্ত খুব বড় (প্রায় ১ ইঞ্চি) এবং দূর থেকে তা স্পষ্ট ভাবে দেখা যায়। আত্মরক্ষার্থ এরা এ শ্বদন্ত ব্যবহার করে। পুরুষ হরিণের এক জোড়া এক থেকে দুই ইঞ্চি লম্বা শিং থাকে। শিংএ দুই থেকে তিনটি শাখা থাকে। এরা মূলতঃ একলা চলাফেরা করে ও খাদ্যাভ্যাসে সর্বভূক। ঘাস- লতাপতা ছাড়াও পাখির ডিম এমনকি ক্ষুদ্র স্তন্যপায়ী প্রাণীও মায়া হরিণের খাদ্য।

বাসস্থান[সম্পাদনা]

উত্তর- পূর্ব ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তানের ইসলামাবাদ, চীনের দক্ষিণাঞ্চল, ইন্দোনেশিয়া ও এর দ্বীপসমূহ মায়া হরিণের আবাসস্থল। এরা সাধারণত পানির আশেপাশে বসবাস করে। পুরুষ মায়া হরিণ তার নিজস্ব এলাকায় বসবাস করে যা একাধিক স্ত্রী- মায়া হরিণের এলাকাকে স্পর্শ করে।

শ্ৰেণীবিভাজন[সম্পাদনা]

মায়া হরিণের ১৫টি উপ-প্ৰজাতি বিশ্বজুড়ে দেখা যায়-

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Timmins, R.J., Duckworth, J.W., Hedges, S., Pattanavibool, A., Steinmetz, R., Semiadi, G., Tyson, M. & Boeadi (2008). Muntiacus muntjak. 2008 IUCN Red List of Threatened Species. IUCN 2008. Retrieved on 5 April 2009. এখানে কেন মায়া হরিণ একটি কম ঝুঁকিপূর্ণ প্রজাতি তা বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।
  2. বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জুলাই ১০, ২০১২, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, পৃষ্ঠা-১১৮৪৯৭

বহিসংযোগ[সম্পাদনা]