উইন্ডোজ ফোন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উইন্ডোজ ফোন
Windows Phone 8 logo and wordmark (purple).svg
Windows Phone 8 StartScreen.png
উইন্ডোজ ফোনের সর্বশেষ মুক্তি পাওয়া সংস্করণের হোম স্ক্রিনের একটি উদাহরণ, উইন্ডোজ ফোন ৮
কোম্পানি / ডেভেলপার মাইক্রোসফট কর্পোরেশন
প্রোগ্রামিং ভাষা সি, সি++[১]
ওএস পরিবার মাইক্রোসফট মোবাইল
কার্যকর অবস্থা চলতি
সোর্স মডেল বন্ধ-সোর্স
প্রাথমিক মুক্তি
  • NA ৮ নভেম্বর ২০১০
  • PAL ২১ অক্টোবর ২০১০
  • EU ২১ অক্টোবর ২০১০
সাম্প্রতিক স্থায়ী মুক্তি উইন্ডোজ ফোন ৮ (৮.০.১০৩২৭.৭৭/৮.০.১০৩২৮.৭৮) / জুলাই, ২০১৩
উপলব্ধ ভাষাসমূহ ২৫+ ভাষাসমূহ[২]
প্যাকেজ ম্যানেজার উইন্ডোজ ফোন স্টোর
এক্সএপি উইন্ডোজ ফোন ৮ এবং পরবর্তী সংস্করণগুলোতে
সমর্থিত প্ল্যাটফর্ম কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন (ভিত্তি এআরএম ৭ম সংস্করণ বা পরবর্তী)
কার্নেল ধরণ

মনোলিথিক (উইন্ডোজ সিই) (উইন্ডোজ ফোন ৭)

হাইব্রিড (উইন্ডোজ এনটি) (উইন্ডোজ ফোন ৮)
ডিফল্ট ব্যবহারকারী মাধ্যম গ্রাফিকাল (মেট্রো ইউআই)
লাইসেন্স বানিজ্যিক প্রোপ্রিয়েটারি সফটওয়্যার
ওয়েবসাইট www.windowsphone.com

উইন্ডোজ ফোন (ইংরেজি: Windows Phone) হল এক ধরণের প্রোপ্রিয়েটারি স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেমের সিরিজ, যা ডেভলপ করে থাকে মাইক্রোসফট। এটি উইন্ডোজ মোবাইলের উত্তরসূরি,[৩] যদিও পূর্বেকার প্ল্যাটফর্মের সাথে এটি বেমানান।[৪] এন্টারপ্রাইজ বাজারের পরিবর্তে এর মূল লক্ষ্য ভোক্তা বাজার।[৫] এটি প্রথম চালু করা হয় ২০১০ সালের অক্টোবরে এবং ২০১১ সালের প্রথম ভাগে এটি এশিয়াতে মুক্তি পায়।[৬] উইন্ডোজ ফোনের সর্বশেষ সংস্করণ হল উইন্ডোজ ফোন ৮, যা ২০১২ সালের ২৯ অক্টোবর চালু করা হয়।

উইন্ডোজ ফোনের সাথে মাইক্রোসফট “মডার্ন” একটি নতুন ধরণের ব্যবহারকারী মাধ্যম তৈরি করেছে (পূর্বে “মেট্রো” নামে পরিচিত ছিল)।[৭] এছাড়াও এই সফটওয়্যার তৃতীয়-পক্ষ এবং মাইক্রোসফটের সেবাসমূহের সাথে সংহত।[৮]

মাইক্রোসফট বর্তমানে উইন্ডোজ ফোনের পরবর্তী সংস্করণের জন্য কাজ করছে, যার সাংকেতিক নাম “উইন্ডোজ ফোন ব্লু” (পূর্বে ছিল “উইন্ডোজ ফোন অ্যাপোলো প্লাস”[৯])। এর সাম্ভব্য নাম হতে পারে উইন্ডোজ ফোন ৮.১ বা উইন্ডোজ ফোন ৮.৫।[১০]

উইন্ডোজ ফোনের প্রধান সমস্যা হল অ্যাপলিকেশনের অভাব।[১১][১২][১৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

উন্নয়ন[সম্পাদনা]

উইন্ডোজ মোবাইলের কাজ শুরু করা হয় ২০০৪ সালে। সে সময় এর সাংকেতিক নাম ছিল “ফোটোন”। কিন্তু কার্যক্রম খুব ধীর গতিতে হতে থাকে এবং চূড়ান্তভাবে প্রকল্পের কাজ বন্ধ হয়ে যায়।[১৪] ২০০৮ সালে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ মোবাইল গ্রুপ পুনরায় সংগঠিত করে এবং একটি নতুন মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমের উপর কাজ শুরু করে।[১৫] এটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ২০০৯ সালে, তবে কিছুদিন দেরি হওয়ার কারণে অন্তবর্তীকালীন সংস্করণ হিসেবে উইন্ডোজ মোবাইল ৬.৫ মুক্তি দেয় মাইক্রোসফট।[১৬]

উইন্ডোজ ফোনের উন্নয়ন খুব দ্রুত সংঘটিত হয়। তবে নতুন এই অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ মোবাইলের অ্যাপলিকেশনগুলো সমর্থন করে না। মাইক্রোসফটের মোবাইল ডেভলপার এক্সপেরিয়েন্সের জেষ্ঠ্য পন্য ব্যবস্থাপক ল্যারি লিবারম্যান ইউইককে বলেন, “যদি আমাদের আরও সময় এবং সম্পদ থাকত, তাহলে আমরা হয়ত পূর্বেকার সংস্করণের সাথে সামঞ্জস্য রাখার পরিপ্রেক্ষিতে কিছু করতে পারতাম।”[১৭] লিবারম্যান বলেন যে মাইক্রোসফট মোবাইল বাজারকে নতুনভাবে দেখার চেষ্টা করছে।[১৭]

প্রবর্তন এবং সম্প্রসারণ[সম্পাদনা]

উইন্ডোজ ফোন ৭[সম্পাদনা]

উইন্ডোজ ফোন ৭-এর লোগো।

২০১০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি, স্পেনের বার্সেলোনায় মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে উইন্ডোজ ফোন ৭-এর ঘোষণা করা হয় এবং ২০১০ সালের ৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে এটি মুক্তি পায়। ২০১১ সালের মে মাসে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ফোন ৭-এর হালনাগাদ সংস্করণ “ম্যাংগো” মুক্তি দেয়। এই সংস্করণের সাথে জুড়ে দেওয়া হয় ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ৯-এর মোবাইল সংস্করণ। এই সংস্করণ ডেক্সটপ সংস্করণের মতই ওয়েব এবং গ্রাফিক্স সমর্থন করে। এছাড়া এতে রয়েছে তৃতীয়-পক্ষ অ্যাপ্লিকেশনের মাল্টি-টাস্কিং,[১৮][১৯] পিপল হাবের জন্য টুইটার একত্রীকরণ,[২০][২১][২২] এবং উইন্ডোজ লাইভ স্কাইড্রাইভ সংযোগ।[২৩]

২০১২ সালে একটি ছোটখাট সংস্করণ মুক্তি পায় যা “ট্যাঙ্গো” নামে পরিচিত। এতে পূর্বেকার সংস্করণের ত্রুটিগুলোকে সারানো হয় এবং হার্ডওয়্যারের প্রয়োজনীয়তা খর্ব করা হয়। ফলে একটি যন্ত্রে উইন্ডোজ ফোন চালানোর জন্য ৮০০ মেগাহার্জের সিপিইউ এবং ২৫৬ মেগাবাইট র‍্যামই যথেষ্ট।[২৪]

২০১৩ সালের জানুয়ারিতে উইন্ডোজ ফোন ৭.৮ মুক্তি পায়। এতে উইন্ডোজ ফোন ৮-এর কিছু বৈশিষ্ট্য যোগ করা হয়। যেমনঃ স্টার্ট স্ক্রিন হালনাগাদ করা হয়, বর্ণবিন্যাসের বিকল্প দ্বিগুন করা হয় এবং বিং ইমেজ অফ দ্য ডে চিত্রটিকে লক স্ক্রিনের ওয়ালপেপার হিসেবে রাখার সুবিধা প্রদান করা হয়। উইন্ডোজ ফোন ৭.৮-এর উদ্দেশ্য ছিল উইন্ডোজ ফোন ৭-এর পুরানো ফোনগুলোকে বেশিদিন টিকিয়ে রাখা। কেননা, হার্ডওয়্যার সীমাবদ্ধতার কারণে এগুলোকে উইন্ডোজ ফোন ৮-এ হালনাগাদ করা সম্ভব নয়। অবশ্য, এখনও অনেক ব্যবহারকারীর কাছে উইন্ডোজ ফোন ৭.৮-এর হালনাগাদ পৌছায়নি।

মাইক্রোসফট ঘোষণা করেছে যে উইন্ডোজ ফোন ৭.৮ পরবর্তীতেও হালনাগাদ করা হবে, যেহেতু উইন্ডোজ ফোন ৭ এবং উইন্ডোজ ফোন ৮ কিছু সময় একই সাথে বিদ্যমান থাকবে। এতে উইন্ডোজ ফোন সমর্থিত বিভিন্ন মূল্যের মোবাইল ফোন বাজারে পাওয়া যাবে।

উইন্ডোজ ফোন ৮[সম্পাদনা]

২০১২ সালের ২৯ অক্টোবর মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ফোন ৮ অবমুক্ত করে, যা উইন্ডোজ ফোন অপারেটিং সিস্টেমের দ্বিতীয় প্রজন্ম। উইন্ডোজ ফোন ৮-এ পূর্বেকার উইন্ডোজ সিই ভিত্তিক স্থাপত্যের পরিবর্তে উইন্ডোজ এনটি কার্নেল ব্যবহার করা হয়েছে। উইন্ডোজ ফোন ৭ সমর্থিত স্মার্টফোনে উইন্ডোজ ফোন ৮ হালনাগাদ করা বা চালানো সম্ভব নয়। তবে উভয় সংস্করণ একই ধরণের অ্যাপ্লিকেশন সমর্থন করে।

হার্ডওয়্যার সমর্থন[সম্পাদনা]

উইন্ডোজ ৮-এ উইন্ডোজ ৭ বা ৭.৫ এর চেয়ে উন্নতমানের হার্ডওয়্যার সমর্থন করে। এটি মাল্টি-কোর প্রসেসর এবং উচ্চ মাপের পর্দা সমর্থন করে।[২৫] উইন্ডোজ ফোন ৭ এবং ৭.৫ উচ্চমানের হার্ডওয়্যার সমর্থন না করায় প্রায়ই সমালোচিত হয়ে থাকে, কিন্তু উইন্ডোজ ফোন ৮ এর নতুন হার্ডওয়্যার একে গুগল এবং অ্যাপলের স্মার্টফোনের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ক্ষমতা প্রদান করেছে।[২৬]

নকিয়ার সাথে অংশীদারিত্ব[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি, লন্ডনে একটি সংবাদ সম্মেলনে, মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী স্টিভ বালমার এবং নকিয়ার প্রধান নিবার্হী স্টিফেন ইলোপ কোম্পানি দুটির মধ্যকার অংশীদারিত্বের কথা ঘোষণা করেন। এই অংশীদারিত্বের অধীনে নকিয়ার প্রাথমিক অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে সিম্বিয়ানের জায়গা দখল করে উইন্ডোজ ফোন।[২৭] এর মাধ্যমে স্মার্টফোন বিশ্বে এনড্রয়েড এবং আইওএস এর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আবির্ভূত হয় উইন্ডোজ ফোন। ইলোপ এনড্রয়েডের পরিবর্তে উইন্ডোজ ফোনকে বেছে নেওয়ার কারণ হিসেবে “পৃথকীকরণকে” তুলে ধরেন।

এই অংশীদারিত্বে যেসব সেবাগুলি একীভূত করা হয় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল:[২৭]

  • নকিয়া ফোনে বিং এর পাওয়ার-সার্চ
  • নকিয়া ম্যাপসের সাথে বিং ম্যাপসের একত্রীকরণ
  • নকিয়ার ওভি স্টোরের সাথে উইন্ডোজ ফোন স্টোরের একত্রীকরণ

নকিয়ার প্রথম উইন্ডোজ ফোন লুমিয়া ৮০০ এবং লুমিয়া ৭১০ ২০১১ সালের অক্টোবরে ঘোষিত হয়।[২৮][২৯] ২০১২ কনজুমার ইলেক্ট্রনিক শো-তে নকিয়া লুমিয়া ৯০০ অবমুক্ত করার ঘোষণা দেয়, যাতে রয়েছে ৪.৩ ইঞ্চি এএমওএলইডি ক্লিয়ারব্যাক ডিসপ্লে, ১.৪ গিগাহার্টজের প্রসেসর এবং ১৬ গিগাবাইটের সংরক্ষণাগার।[৩০] লুমিয়া ৯০০ প্রথম উইন্ডোজ ফোনগুলোর অন্যতম যেগুলো এলটিই সমর্থন করে এবং এটি ২০১২ সালের এপ্রিলের ৮ তারিখে অবমুক্ত হয়।[৩১] লুমিয়া ৬১০ নকিয়ার প্রথম উইন্ডোজ ফোন যা ম্যাঙ্গো অপারেটিং সিস্টেমে (উইন্ডোজ ফোন ৭.৫ রিফ্রেশ) পরিচালিত হয়। এই মডেলটির মূল লক্ষ ছিল উঠতি বাজার।

২০১৩ সালের ২ সেপ্টেম্বর, মাইক্রোসফট কর্তৃক নকিয়ার মোবাইল বিভাগ অধীগ্রহনের ঘোষণা প্রদান করা হয়।[৩২][৩৩][৩৪]

বৈশিষ্ট্যসমূহ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Lextrait, Vincent (ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "The Programming Languages Beacon, v10.0"। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩  |month= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  2. Petersen, Palle (২০ জুন ২০১২)। "Windows Phone 8 announced today: will support 50 languages"Microsoft Language Portal Blogমাইক্রোসফট। সংগৃহীত ২১ জুলাই ২০১২ 
  3. Koh, Damian (১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "Q&A: Microsoft on Windows Phone 7"CNET Asia। CBS Interactive। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  4. Ziegler, Chris (৪ মার্চ ২০১০)। "Microsoft talks Windows Phone 7 Series development ahead of GDC: Silverlight, XNA, and no backward compatibility"Engadget। AOL। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  5. Bright, Peter (১৬ মার্চ ২০১০)। "Windows Phone 7 Series in the Enterprise: not all good news"Ars Technica। Condé Nast Digital। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  6. Hollister, Sean (২৬ সেপ্টেম্বর ২০১০)। "Microsoft prepping Windows Phone 7 for an October 21 launch? (update: US on Nov. 8?)"Engadget। AOL। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  7. Chacos, Brad (১০ এপ্রিল ২০১১)। "Microsoft Now Calling It’s Windows 8 Metro Interface "Modern UI""। LAPTOP। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  8. Buchanan, Matt (১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "Windows Phone 7 Series: Everything Is Different Now"Gizmodo। Gawker Media। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  9. Rubino, Daniel (১৩ মে ২০১৩)। "Windows Phone 9 in testing with Nokia, HTC and Qualcomm hardware"WPCentral। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  10. Nay, Josh Robert (২৬ নভেম্বর ২০১২)। "Apollo Plus: Microsoft’s Next Windows Phone Update"TruTower। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  11. Chang, Alexandra (২৭ মার্চ ২০১৩)। "Microsoft Endlessly Disappoints With ‘New’ Windows Phone Apps"Wired। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  12. "Windows Phone has an app problem, but don't tell that to Microsoft"TechRadar। ২৮ মার্চ ২০১৩। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  13. Rodriguez, Salvador (২৯ জুলাই ২০১৩)। "Nokia frustrated with lack of apps, progress on Windows Phone"Los Angeles Times। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  14. Herrman, John (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "What Windows Phone 7 Could Have Been"Gizmodo। Gawker Media। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  15. Miniman, Brandon (১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "Thoughts on Windows Phone 7 Series (BTW: Photon is Dead)"Pocketnow। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  16. "Steve Ballmer wishes Windows Mobile 7 had already launched, but they screwed up"MobileTechWorld। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০০৯। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  17. ১৭.০ ১৭.১ Kolakowski, Nicholas (১৫ মার্চ ২০১০)। "Microsoft Explains Windows Phone 7 Lack of Compatibility"eWeek। Ziff Davis Media। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  18. Stevens, Tim (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Windows Phone 7's multitasking uses zoomed-out cards to check on your apps"Engadget। AOL। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  19. Cha, Bonnie (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Multitasking, IE9 coming to Windows Phone"CNET। CBS Interactive। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  20. Bright, Peter (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Windows Phone 7's future revealed: multitasking, IE9, Twitter"Ars Technica। Condé Nast Digital। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  21. Mathews, Lee (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Windows Phone 7 update to bring Twitter and SkyDrive integration, webOS style multitasking"Switched। AOL। সংগৃহীত ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  22. Stevens, Tim (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Windows Phone 7's multitasking uses zoomed-out cards to check on your apps"Engadget। AOL। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  23. Ponder, George (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "New features heading to Windows Phone 7: Multi-tasking, IE9, Skydrive and more"WPCentral.com। Mobile Nations। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  24. Warren, Tom (২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Windows Phone 7.5 update will support 256MB RAM and slower processors in April"The Verge। Vox Media। সংগৃহীত ৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  25. H., Victor। "Windows Phone 8"। Phone Arena। সংগৃহীত ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  26. Miles, Stuart। "Windows Phone 8: New hardware specs offer a new start"। Pocket Lint। সংগৃহীত ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  27. ২৭.০ ২৭.১ "Nokia and Microsoft Announce Plans for a Broad Strategic Partnership to Build a New Global Mobile Ecosystem" (Press release)। Microsoft। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগৃহীত ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  28. Cellan-Jones, Rory (২৬ অক্টোবর ২০১১)। "Nokia's First Windows Phone 7 Handset"বিবিসি নিউজ অনলাইন। বিবিসি। সংগৃহীত ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  29. Haeger, Charlotte (৩১ অক্টোবর ২০১১)। "Nokia's Windows Phone announced alongside the 800, hitting select markets by end of year"Governor Technology। সংগৃহীত ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  30. "Detailed specifications for the Nokia Lumia 900"নকিয়া। সংগৃহীত ৮ নভেম্বর ২০১৩ 
  31. Harris, Jason (২৬ মার্চ ২০১২)। "Mark your calendars: Nokia Lumia 900 available for purchase in the US"Nokia Conversations। নকিয়া। সংগৃহীত ৮ নভেম্বর ২০১৩ 
  32. "The Next Chapter: An open letter from Steve Ballmer and Stephen Elop"অফিসিয়াল মাইক্রোসফট ব্লগ। ২ সেপ্টেম্বর ২০১৩। সংগৃহীত ৮ নভেম্বর ২০১৩ 
  33. Pierce, David (২ সেপ্টেম্বর ২০১৩)। "Microsoft buys Nokia's Devices and Services Unit, unites Windows Phone 8 and its hardware maker"দ্য ভার্জ। সংগৃহীত ৮ নভেম্বর ২০১৩ 
  34. Worstall, Tim (৮ সেপ্টেম্বর ২০১৩)। "The Real Reason Microsoft Bought Nokia. Transaction Costs"ফোর্বস। সংগৃহীত ৮ নভেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Windows Phone