অ্যাঙ্গোলার ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

অ্যাঙ্গোলার সরকারী ভাষা পর্তুগিজ। তবে এখানকার অনেক অধিবাসী বিভিন্ন বান্টু ভাষায় কথা বলতে পারেন।

১৯৮৩ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী কৃষ্ণাঙ্গ, মেস্তিসো ও শ্বেতাঙ্গ জনগণের সরকারী ও প্রধান ভাষা পর্তুগিজ। মোট জনসংখ্যার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ ঘরে এই ভাষায় কথা বলে। দেশটির ৬০% লোক পর্তুগিজ মাতৃভাষী; এবং এদের মধ্যে অর্ধেক কেবল পর্তুগিজেই কথা বলতে পারে, বাকী অর্ধেক কোন একটি বান্টু ভাষা দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে ব্যবহার করে। [১]

অ্যাঙ্গোলার প্রায় ৪০% লোকের মাতৃভাষা বান্টু ভাষা। তবে এদের মধ্যে স্বল্পবয়সীরা পর্তুগিজ ভাষাড় প্রতি ঝুঁকে পড়ছে। ওভিমবুন্দু, উমবুন্দু ও কিকোংগো সবচেয়ে বেশি প্রচলিত তিনটি বান্টু ভাষা। অ্যাঙ্গোলার কিউবান অভিবাসীরা স্পেনীয় ভাষায় কথা বলেন, তবে তাদের বংশধরেরা এটা আর ধরে রাখছে না।

অ্যাঙ্গোলানরা যে বিদেশী ভাষা সবচেয়ে বেশী অধ্যয়ন করে, তা হল ইংরেজি।

আফ্রিকার অন্যান্য দেশগুলির তুলনায় অ্যাঙ্গোলার ভাষিক অবস্থা একটু ভিন্ন, কারণ এখানে ঔপনিবেশিক ভাষা পর্তুগিজ কথ্যভাষায় পরিণত হয়েছে এবং স্থানীয় ভাষাগুলিকে অনেকটাই হটিয়ে দিয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Medeiros, Adelardo O Português na África — Angola

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]