১১৭ নং ওয়ার্ড, কলকাতা পৌরসংস্থা

স্থানাঙ্ক: ২২°৩০′০৭″ উত্তর ৮৮°২০′১৬″ পূর্ব / ২২.৫০১৮৩৩° উত্তর ৮৮.৩৩৭৮০৬° পূর্ব / 22.501833; 88.337806
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ওয়ার্ড নং ১১৭
কলকাতা পৌরসংস্থা
Interactive Map Outlining Ward No. 117
ওয়ার্ড নং ১১৭ কলকাতা-এ অবস্থিত
ওয়ার্ড নং ১১৭
ওয়ার্ড নং ১১৭
কলকাতায় অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২২°৩০′০৭″ উত্তর ৮৮°২০′১৬″ পূর্ব / ২২.৫০১৮৩৩° উত্তর ৮৮.৩৩৭৮০৬° পূর্ব / 22.501833; 88.337806
দেশ ভারত
StateWest Bengal
শহরকলকাতা
অঞ্চলTollygunge Circular Road (Chandubabur Jheel-Buroshibtala)
লোকসভা কেন্দ্রকলকাতা দক্ষিণ
বিধানসভা কেন্দ্রবেহালা পূর্ব
বরো১৩
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট২১,৮২৪
PIN৭০০ ০৩৪
এলাকা কোড+৯১ ৩৩

ওয়ার্ড নং ১১৭, কলকাতা পৌর সংস্থা, বরো নং ১৩ এর কলকাতা মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের প্রশাসনিক বিভাগ যা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের টালিগঞ্জ সার্কুলার রোডের (চান্দুবাবুর ঝিল-বুড়োশিবতলা) আশেপাশের অংশগুলিকে আচ্ছাদন করে।

ভূগোল[সম্পাদনা]

ওয়ার্ড নং ১১৭ এর সীমানা ঃ উত্তরে টালিগঞ্জ সার্কুলার রোড এবং এসএনরোয় রোড; পূর্ব দিকে টালির নালা; দক্ষিণে রায় বাহাদুর এসিআর রোড এবং প্রাণ কৃষ্ণ চন্দ্র লেন; এবং পশ্চিমে বুড়োশিটালা মেইন রোড।

ওয়ার্ডটি কলকাতা পুলিশের বেহালা থানা পরিবেশন করে। [১][২][৩]

বেহালা মহিলা থানা দক্ষিণ পশ্চিম বিভাগের অধীনে সমস্ত পুলিশ জেলাগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করে, অর্থাৎ সরসুনা, তারাতলা, বেহালা, পার্নশ্রী, ঠাকুরপুকুর এবং হরিদেবপুর। [১]

ডেমোগ্রাফিক্স[সম্পাদনা]

ভারতের ২০১১ সালের আদম শুমারি অনুসারে, কলকাতা পৌর কর্পোরেশনের ১১৭ নং ওয়ার্ডের মোট জনসংখ্যা ছিল ২১,৮২৪, এর মধ্যে ১১,১২১ (৫১%) পুরুষ এবং ১০,৭০৩ (৪৯%) মহিলা ছিলেন। Years বছরের নিচে জনসংখ্যা ছিল ১,৭৪২ জন। ১১৭ নং ওয়ার্ডে মোট সাক্ষরতার সংখ্যা ছিল ১,,৩৭.৬ (৬ বছরের বেশি জনসংখ্যার ৮..৫৩%)। [৪]

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গের দ্বিতীয় সর্বাধিক শিক্ষিত জেলা is [৫] কলকাতা জেলার সাক্ষরতার হার ১৯৫১ সালে ৫৩.০% থেকে বেড়ে ২০১১ সালের আদমশুমারিতে ৮৬.৩% হয়েছে। [৬]টেমপ্লেট:Literacy in KMC wards

নির্বাচনের উপাত্ত[সম্পাদনা]

ওয়ার্ডটি একটি পৌরসংস্থা কাউন্সিল নির্বাচনী এলাকা গঠন করে এবং বেহালা পূর্ব (বিধানসভা কেন্দ্র) এর একটি অংশ। [৭]

নির্বাচন
বছর
গণপরিষদ কাউন্সিলর নাম পার্টি অধিভুক্তি
২০০৫ ওয়ার্ড নং ১১৭ সাইলেন দাশগুপ্ত ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস [৮]
২০১০ সাইলেন দাশগুপ্ত সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস [৯]
২০১৫ সাইলেন দাশগুপ্ত অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস [১০][১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kolkata Police"South West Division। KP। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৮  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "police" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  2. Kolkata: Detail Maps of 141 Wards with Street Directory, Fourth Impression 2003, Map No. 87, D.P. Publication and Sales Concern, 66 College Street, Kolkata-700 073.
  3. "Table 3 District Wise List of Statutory Towns (Municipal Corporation, Municipality, Notified Area and Cantonment Board), Census Towns and Outgrowths, West Bengal, 2001"Census of India 2001। Census Commission of India। ২১ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. "2011 Census – Primary Census Abstract Data Tables"West Bengal – District-wise। Registrar General and Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮l 
  5. "District Census Handbook Kolkata, Census of India 2011, Series 20, Part XII B" (PDF)Page 25: District Highlights, 2011 Census। Directorate of Census Operations, West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  6. "District Census Handbook Kolkata, Census of India 2011, Series 20, Part XII A" (PDF)Pages 63-64: Literacy Rate। Directorate of Census Operations, West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  7. "Delimitation Commission Order No. 18 dated 15 February 2006" (PDF)West Bengal। Election Commission। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 
  8. Search the web for COUNCILLORS OF KOLKATA MUNICITIPAL CORPORATION. In the search list click on this. On clicking one gets an option for "List of KMC Councillors" at the bottom of the page. Press <Open> to get to Adobe Acrobat file.
  9. "Kolkata Municipal Corporation General Election Results 2010"। Government of West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 
  10. Prabahat Khabar, Hindi newspaper, print edition, 29 April 2015
  11. "Ward-wise winners" (PDF)Gazette Notification। West Bengal State Election Commission। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫