হেমা চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হেমা চৌধুরী
জন্ম
দুর্গা প্রভু

পেশাঅভিনেত্রীনৃত্যশিল্পী
কর্মজীবন১৯৭৫ - বর্তমান
সন্তানপুরোহিত কোন্দাবতী

হেমা চৌধুরী (জন্ম ১৯৫৫) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, যিনি মূলত মালয়ালমতামিল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি কিছু কন্নড়তেলেগু ছবিতে অভিনয় করেছেন। ১৯৭৬ সালে তেলেগু চলচ্চিত্র পেল্লি কণী পেল্লি -তে মুখ্য অভিনেত্রী হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু হলেও, তিনি ১৯৮০-এর দশকে সহায়ক চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। বিজয়া ভানি, সুভাষা, দীপা, গালী মাথু এবং নী বেরেদা কাদম্বরী-এর মতো কন্নড় ছবিতে তাঁর নেতিবাচক চরিত্রের জন্য তিনি সবচেয়ে বেশি স্মরণীয় হয়ে আছেন। তার তামিল চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে কে. বালাচন্দ্র পরিচালিত মনমথ লিলাই (১৯৭৬) কমল হাসানের বিপরীতে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য।[১] দেড় শতাধিক ছবিতে অভিনয় করা হেমাকে দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রের অন্যতম জনপ্রিয় চরিত্র শিল্পী হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

এন. টি. রমা রাও, ডঃ রাজকুমার, ডাঃ বিষ্ণুবর্ধন, কল্যাণ কুমার, রাজেশ, সুপার স্টার কৃষ্ণ, অম্বরীশ, কমল হাসান, চিরঞ্জিবী, মোহন বাবু, কৃষ্ণমরাজু, অনন্ত নাগ, শঙ্কর নাগ, লোকেশ, শ্রীনাথ মালয়ালম সুপার স্টার প্রেম নাজির, শিবরাজ কুমার, অর্জুন সরজা, রবিচন্দ্রন এবং টাইগার প্রভাকরের মতো বিখ্যাত শিল্পীদের সাথে অভিনয় করেছেন হেমা চৌধুরী। আর. বি. সরোজ দেবী, অঞ্জলি দেবী, যমুনা, জয়ন্তী, ভারতী বিষ্ণুবর্ধন, কল্পনা, শারদা, জয়প্রধা, জয়সুধা, শ্রীদেবী, কে. আর. বিজয়া, লক্ষ্মী, জয়মালা, আরথি, মঞ্জুলা এবং পদ্মপ্রিয়ার মতো নায়িকাদের সাথেও তিনি অভিনয় করেছেন।

অভিনয় ছাড়াও, চৌধুরী একজন দক্ষ কুচিপুড়ি নৃত্যশিল্পী এবং সারা বিশ্ব জুড়ে ৭০০ রও বেশি অনুষ্ঠানে অভিনয় করেছেন। তিনি তার নাচের দক্ষতার জন্য প্যানোরামা পুরষ্কার প্রাপ্ত হয়েছেন। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার কমিটি তাকে বিচারক প্যানেলে বিচারক হিসাবে তিন বছরের জন্য বেছে নিয়েছে।[২]

পূর্ব জীবন[সম্পাদনা]

হেমার জন্ম অন্ধ্র প্রদেশের তেলুগু চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় মহিলা ডাবিং শিল্পী ব্রুনদাভন চৌধুরীর কাছে। তিনি এন. টি. আর, এ. এন. আর, এস. ভি. ভি. রাঙ্গা রাও, শিবাজী গণেশন এবং এম. জি. আরের মতো কিংবদন্তি শিল্পীদের দেখে দেখে বড় হয়েছেন। তিনি চেন্নাই ফিল্ম ইনস্টিটিউট থেকে স্নাতক হন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

অভিনয়ের শিক্ষা শেষ করার পরে, হেমা ১৯৭৬ সালে অভিনেতা শ্রীধরের বিপরীতে অধিরাজ আনন্দ মোহন পরিচালিত পেল্লি কণী পেল্লি চলচ্চিত্রে প্রধান অভিনেত্রী হিসাবে অভিনয় করে তার কর্মজীবন শুরু করেন।[৩] তিনি বাঙ্গারু মনীশি (১৯৭৭), নিজাম (১৯৭৮), কোট্টা অলুদু (১৯৭৯) এর মতো বহু জনপ্রিয় তেলেগু ছবিতে কাজ করেছেন এবং ব্লকবাস্টার তামিল ছবি মনমাথা লিলাইয়ের (১৯৭৬) কমল হাসানের বিপরীতে নায়িকাদের একজন ছিলেন। তাঁর প্রথম কন্নড় চলচ্চিত্র ছিল বিজয়া ভানি (১৯৭৬) যেখানে তিনি দ্বিতীয় মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। গালি মাথু (১৯৮১) এর ধূসর ছায়াছবিযুক্ত একটি চরিত্রে তাঁর সাহসী আবির্ভাব তাকে অত্যন্ত বিখ্যাত করে তোলে। এর পর, তিনি কন্নড় সিনেমার প্রায় সমস্ত বড় পরিচালক ও অভিনেতাদের সাথে সহকারী অভিনেত্রী হিসাবে দেড় শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন।

হেমা তাঁর প্রতিটি চলচ্চিত্রের সমাপ্তির পরে দেশজুড়ে হিন্দু দেবী মন্দিরে রেশমী শাড়ি উপহার দেওয়ার রীতি অনুসরণ করেন।[৪]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

কন্নড়[সম্পাদনা]

  1. বিজয় বাণী (১৯৭৬)
  2. শুভশায়া (১৯৭৭)
  3. দীপা (১৯৭৭)
  4. দেবারা দুদদু (১৯৭৭)
  5. শ্রীদেবী (চলচ্চিত্র) (১৯৭৮)
  6. অনুবান্ধা (১৯৭৮)
  7. বারাডক্ষাইন (১৯৮০)
  8. নারদ বিজয়া (১৯৮০)
  9. নান্না রোশা নূরু বরুশা (১৯৮০)
  10. মানকু থিমা (১৯৮০)
  11. শ্রী রাঘবেন্দ্র ভাইভা (১৯৮০)
  12. গুরু শিশুয়ারু (১৯৮১)
  13. গালি মাথু (১৯৮১)
  14. আভালি জাভালী (১৯৮১)
  15. প্রেমা ম্যাথসারা (১৯৮২)
  16. কন্নু থেরেসিদা হেন্নু (১৯৮২)
  17. জিমি গালু (১৯৮২)
  18. গারুদা রেখে (১৯৮২)
  19. থিরুগু বানা (১৯৮৩)
  20. কণ্ঠ্যোগি বাসভান্না (১৯৮৩)
  21. ইরিভানু (১৯৮৪)
  22. আরাধনে (১৯৮৪)
  23. নী বেরেদা কাদম্বরী (১৯৮৫)
  24. মাসানাদা হুভু (১৯৮৫)
  25. কুরিদোদী কুরুক্ষেত্র (১৯৮৫)
  26. হাভু ইয়েনি আটা (১৯৮৫)
  27. গুন্ডা গুরু (১৯৮৫)
  28. ভায়ানকরা ভাসমাসুরা (১৯৮৫)
  29. সামপ্রদায় (১৯৮৭)
  30. থাইয়া আসে (১৯৮৮)
  31. কৃষ্ণ রুক্মিণী (১৯৮৮)
  32. দেবতা মনুষ্য (১৯৮৮)
  33. সামসারা নওকে (১৯৮৯)
  34. নিয়ায়াকাগী নানু (১৯৮৯)
  35. কৃষ্ণ নী কুনিদাগা (১৯৮৯)
  36. কিনদারী জোগি (১৯৮৯)
  37. সন্ধা শিশুনালা শরীফা (১৯৯০)
  38. মহেশ্বর (চলচ্চিত্র) (১৯৯০)
  39. কিলাদি থাথ (১৯৯০)
  40. কেম্পু গুলাবি (১৯৯০)
  41. অজয় বিজয় (১৯৯০)
  42. বঙ্গরদন্থ মাগা (১৯৯১)
  43. থাওরুমনে উদুগোর (১৯৯১)
  44. রেডিমেড গান্ডা (১৯৯১)
  45. মঙ্গলয়া (১৯৯১)
  46. গণেশ সুব্রামণ্য (১৯৯২)
  47. পুট্টা হেন্থি (১৯৯২)
  48. মিডিদা শ্রুতি (১৯৯২)
  49. প্রেমা সাঙ্গামা (১৯৯২)
  50. হলি কৃষ্ণ দিল্লি রাধা (১৯৯২)
  51. অনুরাগ গীঠে (১৯৯৪)
  52. সিডিডেদা শিব (১৯৯৪)
  53. কুরুবানা রানি (১৯৯৭)
  54. তায়েই কোট্টা সায়ার (১৯৯৯)
  55. কুবের (১৯৯৯)
  56. বীরপ্পা নায়িকা (১৯৯৯)
  57. দুর্গাদা হুলি (২০০০)
  58. দীপাবলী (২০০০)
  59. নাম্মা সংসার আনন্দ সাগর (২০০১)
  60. কানাসুগারা (২০০১)
  61. জামিন্দারু (২০০২)
  62. থাওরিগে বা ঠাঙি (২০০২)
  63. ইয়ারাদো দুদদু ইয়াল্লামনা যাত্র্রে (২০০৩)
  64. কাসু ইডডোন বসু (২০০৩)
  65. সুপার পুলিশ (কন্নড় চলচ্চিত্র) (২০০৩)
  66. শ্রীরাম (২০০৩)
  67. সমুদ্র (২০০৪)
  68. আনা থাঙ্গি (২০০৫)
  69. আইয়া (২০০৫)
  70. ভাল্মিকি (২০০৫)
  71. সাভিরা মেটটিলু (২০০৬)
  72. থাবরিনা সিরি (২০০৬)
  73. লাভা কুশা (২০০৬)
  74. সান্থা (২০০৭)
  75. গন্ডানা মনে (২০০৭)
  76. বুধিবন্ত (২০০৮)
  77. বান্ধু বালাগা (২০০৮)
  78. দেবারু কোট্টা থাঙ্গি (২০০৯)
  79. পুরুষ বড়ালী মঞ্জু ইরালী (২০০৯)
  80. বিশ্বময় প্রাণায়া (২০১০)
  81. সোগাসুগারা (২০১১)
  82. মল্লিকার্জুনা (২০১১)
  83. শক্তি (২০১২)
  84. ভাগীরথী (২০১২)
  85. গড ফাদার (২০১২)
  86. দাসাওয়ালা (২০১৩)
  87. সুপার রাঙ্গা (২০১৪)
  88. গঙ্গা (২০১৫)
  89. দশরথ (২০১৯)

তামিল[সম্পাদনা]

  1. মন্মথ লিলাই (১৯৭৬)
  2. কুঙ্গুমাম সাঠাই সোল্গিরাঠু (১৯৭৮)
  3. স্টার (২০০১)
  4. নান আভানিল্লাই (২০০৭)
  5. ঠোট্টা (২০০৯)

তেলুগু[সম্পাদনা]

  1. ই কালাম দম্পাথুলু (১৯৭৫)
  2. পেলে কণী পেল্লি (১৯৭৬)
  3. মনমাথা লীলা (১৯৭৬)
  4. বাঙ্গারু মনীশি (১৯৭৮)
  5. প্রেমায়ণাম (১৯৭৮)
  6. জারুগুথুন্নাহা গল্প (১৯৭৮)
  7. নিজাম (১৯৭৯)
  8. কোট্টা অলুডু (১৯৭৯)
  9. শ্রী রাঘবেন্দ্র বৈভব (১৯৮১)
  10. প্রেমালয়াম (১৯৮৬)
  11. তন্দ্রা পাপারায়েডু (চলচ্চিত্র) (১৯৮৭)
  12. ডিস্কো সম্রাট (১৯৮৭)
  13. সুন্দরকান্দা (১৯৯২)
  14. প্রেমা বিজেতা (১৯৯২)
  15. লেডি পরিদর্শক (১৯৯৩)
  16. পুতিনটিকি রা চেল্লি (২০০৪)
  17. গোরিন্টাকু (২০০৮)
  18. মেসথ্রি (২০০৯)

মালয়ালাম[সম্পাদনা]

  1. থালাভারশাম (১৯৭৬)
  2. প্রেমশিলপি (১৯৭৭)
  3. সুন্দরিমারুদে স্বপ্নাঙ্গল (১৯৭৮)
  4. থারু ওরু জনম কুডি (১৯৭৮)
  5. কোচু কোচু থেটুকাল (১৯৮০)
  6. গরুড় রেখা (১৯৮২)
  7. পট্টানতিল নারদান (১৯৮৪)

পুরষ্কার[সম্পাদনা]

  1. নেতিবাচক ভূমিকার সেরা উদ্ভাবনী অভিনেতার জন্য চলচ্চিত্র পুরষ্কার (মহিলা) [৫]
  2. সন্তোশাম আজীবন সম্মাননা পুরস্কার - দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রের অবদানের জন্য [৬]
  3. সুবর্ণা আজীবন সম্মাননা পুরস্কার
  4. সুবর্ণ রত্ন পুরষ্কার
  5. অমোঘ রত্ন পুরষ্কার
  6. সুবর্ণ সাধাকি বিশেষ পুরষ্কার
  7. সুবর্ণা টিভির জানা ম্যাচিদা থারে পুরস্কার
  8. সেরা নৃত্য দক্ষতার জন্য প্যানারোমা পুরস্কার
  9. ৮২তম কান্নাদা সাহিত্য সম্মেলন পুরষ্কার

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Manmadha Leelai heroine Hema Chaudhary praises Kamal Haasan - Tamil Movies Portal (TamilWire.net)"web.archive.org। ২০১৮-০৮-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০৮ 
  2. "Notes for 39th National Film Awards"[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]. Notesok. Retrieved 11 November 2015.
  3. "Pelli Kani Pelli (1977)". Gomolo. Retrieved 11 November 2015.
  4. "- Kannada News"IndiaGlitz.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১১ 
  5. "Kannada Movie/Cinema News - INNOVATIVE FILM AWARDS ?STAR STUDDED STAR ORIENTED! - Chitratara.com"web.archive.org। ২০১৩-১২-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  6. "Hema Chaudhary Honored with Life Time Achievement Award". Chitraloka. 24 August 2015. Retrieved 11 November 2015.