হিস্টামিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হিস্টামিন
Histamin - Histamine.svg
Histamine3d.png
নামসমূহ
ইউপ্যাক নাম
2-(1H-imidazol-4-yl)ethanamine
শনাক্তকারী
ত্রিমাত্রিক মডেল (জেমল)
সিএইচইবিআই
সিএইচইএমবিএল
কেমস্পাইডার
ইসিএইচএ ইনফোকার্ড ১০০.০০০.০৯২
ইসি-নম্বর
কেইজিজি
এমইএসএইচ Histamine
ইউএনআইআই
বৈশিষ্ট্য
C5H9N3
আণবিক ভর ১১১.১৫ g·mol−১
গলনাঙ্ক ৮৩.৫ °সে (১৮২.৩ °ফা; ৩৫৬.৬ K)
স্ফুটনাঙ্ক ২০৯.৫ °সে (৪০৯.১ °ফা; ৪৮২.৬ K)
অম্লতা (pKa) imidazole: 6.04

NH2: 9.75

সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা ছাড়া, পদার্থসমূহের সকল তথ্য-উপাত্তসমূহ তাদের প্রমাণ অবস্থা (২৫ °সে (৭৭ °ফা), ১০০ kPa) অনুসারে দেওয়া হয়েছে।
YesY যাচাই করুন (এটি কি YesY☒না ?)
তথ্যছক তথ্যসূত্র

হিস্টামিন হল এক ধরনের প্রাণীজ অ্যামিন, যার রাসায়নিক নাম বিটা ইমিডাজ্যিল এসিটাইলকোলিন (Beta-imidazoyl acetylcholine) বা বিটা ইমিডাজ্যিল ইথাইল এমিন (Beta-imidazoyl ethyl amine)। মূলত, হিস্টামিন সকল স্তন্যপায়ী কলায় উপস্থিত থাকে এবং শরীরের রোগ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায়, শারীরবৃত্তীয় ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে এবং নিউরোট্রান্সমিটার হিসেবে কাজ করে থাকে। এটা কার্যত প্রাণীর শরীরের সকল কোষে পাওয়া যায়। এছাড়াও নতুন গবেষণায় জানা যায় হিস্টামিন সাদা রক্ত কোষের কেমোটেক্সিসে (chemotaxis) একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। হিস্টামিনের এক ধরনের সমাণু (H1) চুলকানি ও অন্যান্য এলার্জিক প্রতিক্রিয়ার জন্য দায়ী, আর এক ধরনের সমাণু (H2) পাকস্থলীর পাচক অ্যাসিড নিঃসরন নিয়ন্ত্রণ করে।[২]

নামকরণ[সম্পাদনা]

ল্যাটিন হিস্টোস (Histos) শব্দটির অর্থ প্রাণী কলা বা শরীরের টিস্যু এবং আয়ামিন (Amine) শব্দটি বোঝায় প্রাণীজ এমিন যা তৈরি হয় প্রাণী কলায়।

রসায়ন[সম্পাদনা]

হিস্টামিন, একটি জীবজনিত এমিন, যা তৈরি হয় একটি ইমিডাজল (imidazole) বিষমচক্রের সাথে ইথাইল এমিন (ethanamine) সংযুক্ত হয়ে। শারীরবৃত্তীয় দৃষ্টিকোণ থেকে এটি একটি অটাকয়েড (Autacoid) এবং কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের মধ্যে থেকে নিউরোট্রান্সমিটার হিসেবে কাজ করে। এটা অ্যামিনো এসিড হিস্টিডিন (histidine) থেকে উৎপাদিত হয়। ঔষধ হিসেবে হিস্টামিনের ব্যবহার খুবই সীমিত, কিন্তু যেহেতু এটি চুলকানি ও অন্যান্য এলার্জিক প্রতিক্রিয়া এবং পাকস্থলীর পাচক অ্যাসিড নিঃসরনে ভূমিকা পালন করে সেহেতু যে সমস্ত ঔষধ হিস্টামিন প্রতিরোধী তাদের ব্যবহার করে চুলকানি ও অন্যান্য এলার্জিক প্রতিক্রিয়া এবং পাকস্থলীর পাচক অ্যাসিড নিঃসরন নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এ কারণে যে সমস্ত ঔষধ হিস্টামিন প্রতিরোধী তারা ঔষধ বিজ্ঞানে গুরুত্বপূর্ণ।[৩]

সংশ্লেষণ[সম্পাদনা]

হিস্টামিন সংশ্লেষিত হয় অপরিহার্য অ্যামিনো এসিড হিস্টিডিন (Histidine) থেকে এনজাইম এল-হিস্টিডিন ডিকার্বোক্সিলেজ (L-histidine Decarboxylase) এর প্রভাবন দ্বারা।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

Windaus এবং Vogt ১৯০৭ সালে প্রথম সংশ্লেষণ দ্বারা হিস্টামিন সংশ্লেষণ করেন, তখনও হিস্টামিন যে জীবিত প্রাণী দেহে পাওয়া যায় তা আবিষ্কৃত হয়নি। ১৯১০ সালে Barger এবং Dale প্রথম ইস্ট থেকে হিস্টামিন নিষ্কাশন করেন এবং পরবর্তীতে প্রাণীদেহে এর ভূমিকা আবিষ্কার করেন। ১৬২৭ সালে বেষ্ট ও তার সহকর্মীরা যকৃত কোষ ও ফুসফুস কোষ হতে হিস্টামিন নিষ্কাশন করেন। একই বছরে আরেকজন গবেষক লুইস প্রমাণ করেন হিস্টামিন নিঃসরণ হয় আহত টিস্যু থেকে এবং অ্যান্টিজেন অ্যান্টিবডি পারস্পরিক ক্রিয়ার মধ্যে মুক্ত হয়। এই আবিষ্কার বেশ কিছু গবেষক ও আরও গবেষণার দ্বারা সমর্থিত হয়। ১৯৪৯ সালে জোনস এবং লি হিস্টামিনের একটি সমাণু (Isomer) বিটাজোল (Betazol) সংশ্লেষন করেন এবং ঔষধ বিজ্ঞানের দৃষ্টিকোণ থেকে এটাকে পরীক্ষা করেন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে হিস্টামিনের অণবিক গঠন নিয়ে ব্যাপক পরীক্ষা নিরীক্ষা ও পরিবর্তন সাধিত হয়েছে এবং এর ফলে প্রাপ্ত বিভিন্ন নতুন যৌগগুলো শরীরের উপর কি প্রতিক্রিয়া দেখায়, তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.sciencelab.com/msds.php?msdsId=9924264
  2. Wilson and Gisvold's Textbook of Organic Medicinal and Pharmaceutical Chemistry, Charles Owens Wilson, Ole Gisvold, John H. Block, John Marlowe Beale, Lippincott Williams & Wilkins, 2004
  3. Foye's Principles of Medicinal Chemistry, Thomas L. Lemke, David A. Williams Lippincott Williams & Wilkins, 2008
  4. Essentials of Medicinal Chemistry, Andrejus Korolkovas 2nd Edition

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]