হলদে চোখ ছাতারে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
হলদে চোখ ছাতারে
Chrysomma sinense.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: পক্ষী
বর্গ: Passeriformes
পরিবার: Sylviidae
গণ: Chrysomma
প্রজাতি: C. sinense
দ্বিপদী নাম
Chrysomma sinense
(Gmelin, 1789)
প্রতিশব্দ

Pyctorhis sinensis

হলদে চোখ ছাতারে (Chrysomma sinense) একটি প্যাসেরাইন গায়ক প্রজাতির পাখি। এদের দক্ষিণ এশিয়ার খোলা ঘাস এবং ছোট ঝোঁপের মধ্যে দেখতে পাওয়া যায়। প্রজনন মৌসুমে সাধারণত পুরুষ পাখি ঝোঁপের মাথায় ও ঘাসের ডগায় বসে জোরে গান গায়।[২]

আকার[সম্পাদনা]

হলদে চোখ ছাতারে লালচে-বাদামি রঙের পাখি। দেহের দৈর্ঘ্য ১৮ সেন্টিমিটার এবং ওজন ১৮ দশমিক ৩ গ্রামের মত। প্রাপ্তবয়স্ক পাখির কানসহ পিঠ পুরোপুরি লালচে-বাদামি রঙের। হলুদ চোখ ঘিরে থাকে সাদা ভ্রুরেখা। চোখের বেড় কমলা-হলুদ রঙের, থুতনি, গলা ও বুক সাদা, বগল ও তলপেটে রয়েছে হালকা পীত রঙের আভা। ঠোঁট কালো, খাটো, মোটা ও শক্ত। পা ও পায়ের পাতা হলুদ। কমলা ও বাদামি মুখ প্রজনন মৌসুমে কালোতে রূপ নেয়। পুরুষও মেয়েপাখির চেহারা একই রকম।[২]

Yellow-eyed Babbler (Chrysomma sinense) in Hodal W IMG 6229.jpg

খাদ্য[সম্পাদনা]

হলদে চোখ ছাতারে সাধারণত পোকামাকড়, যেমন ফড়িং, শুঁয়াপোকা ও মাকড়সা খায়। রসালো ফল ও ফুলের মধুও এদের খুব প্রিয় খাদ্য। এরা মধুর জন্য লাল টকটকে ফুলে ভরা মাদার ও শিমুল ফুলে বিচরণ করে।[২]

স্বভাব[সম্পাদনা]

হলদে চোখ ছাতারে সাধারণত উঁচু ঘাস, ঝোপ, তৃণময় পাহাড়ের ঢাল, মাঝারি গুল্ম লতা, বাঁশবন, চাষের জমির কাছে ও আখখেতে বিচরণ করে। এরা স্থির হয়ে এক জায়গায় বেশিক্ষণ থাকেনা। ঝোপঝাড়ের মধ্যে খাবারের জন্য পোকা খুঁজে বেড়ায় এরা। এ পাখি ভীরু স্বভাবের, হঠাৎ ভয় পেলে এক ঝোপ থেকে আরেক ঝোপে লাফ দিয়ে পালায় এবং দ্রুত ঝোপের আড়ালে অদৃশ্য হয়ে যায়। ভয়ে পালানোর সময় কর্কশ স্বরে কিচিরমিচির করে ডাকে।[২]

বাসা[সম্পাদনা]

হলদে চোখ ছাতারে পরিষ্কার গলায় ডাকে। জুন-নভেম্বর মাসে ঘাসের গোড়ায় কিংবা ভূমির খুব কাছে অন্য উদ্ভিদের ঘাস দিয়ে মোচাকার কিংবা বাটির মতো বাসা বানায়। বাসার বাইরের দিকে মাকড়সার জালের প্রলেপ থাকে। মাটি থেকে প্রায় দুই মিটার উঁচুতে ঝোপের দুই ডালের সংযোগস্থলে বা দুটি ঘাসের ডাঁটার মধ্যে দোলনার মতো করে বাসা বাঁধে ও ডিম পাড়ে। ডিম পাটকিলে সাদা রঙের এবং সংখ্যায় তিন থেকে পাঁচটি হয়। ডিম সাধারণত ১৫-১৬ দিনে ফোটে। পুরুষ ও মেয়েপাখি উভয় মিলে সংসারের কাজ করে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. BirdLife International (২০১২)। "Chrysomma sinense"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2012.1প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন। সংগৃহীত ১৬ জুলাই ২০১২ 
  2. হলদে চোখ ছাতারে, সৌরভ মাহমুদ, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: নভেম্বর ১১, ২০১৩ খ্রিস্টাব্দ।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]