স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Samsung Galaxy S7
Samsung Galaxy S7 Edge
200px
Samsung Galaxy S7
ব্র্যান্ডSamsung Galaxy
প্রস্তুতকারকSamsung Electronics
স্লোগানBeyond Barriers
Rethink what a phone can do
সিরিজSamsung Galaxy S
মডেলSM-G930F
SM-G935F (Edge)
সর্বপ্রথম মুক্তি১১ মার্চ ২০১৬ (2016-03-11)
পূর্বসূরীSamsung Galaxy S6
সম্পর্কিতSamsung Galaxy J1 Mini
ধরনSmartphone
ফর্ম বিষয়াদিSlate
মাত্রাS7:
১৪২.৪ মিমি (৫.৬১ ইঞ্চি) H
৬৯.৬ মিমি (২.৭৪ ইঞ্চি) W
৭.৯ মিমি (০.৩১ ইঞ্চি) D
S7 Edge:
১৫০.৯ মিমি (৫.৯৪ ইঞ্চি) H
৭২.৬ মিমি (২.৮৬ ইঞ্চি) W
৭.৭ মিমি (০.৩০ ইঞ্চি) D
ওজনS7: ১৫২ গ্রাম (৫.৪ আউন্স)
S7 Edge: ১৫৭ গ্রাম (৫.৫ আউন্স)
অপারেটিং সিস্টেমAndroid 6.0 "Marshmallow"
চিপে সিস্টেমWorld: Samsung Exynos 8890
U.S./China: Qualcomm Snapdragon 820
জিপিইউWorld: Mali-T880 MP12
U.S./China Adreno 530
মেমোরিGB LPDDR4 RAM
সংরক্ষণাগার32 or 64 GB UFS 2.0
অপসারণযোগ্য সংগ্রহস্থলmicroSDXC up to 200 GB
ব্যাটারিS7: 3,000 mAh
S7 Edge: 3,600 mAh
প্রদর্শন
পিছন ক্যামেরা12 MP (1.4 µm), f/1.7 aperture, 4K video recording at 30 fps, 1080p at 60 fps, 720p at 240 fps
সম্মুখ ক্যামেরা5 MP, f/1.7 aperture
ওয়েবসাইটhttp://www.samsung.com/global/galaxy/galaxy-s7/

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এজ হচ্ছে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স এর প্রস্তুতকৃত এবং বাজারজাতকৃত একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন৷

এ মোবাইল ফোনটি স্যামসাং এর ২০১৫ সালের গ্যালা্ক্সি এস৬, এস৬ এজ এবং এস৬ এজ+ এর পরবর্তীতে বাজারজাতকৃত একটি পণ্য৷ আনুষ্ঠানিকভাবে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস এ অনুষ্ঠিত স্যামসাং এর একটি প্রেস কনফারেন্সে ফোনটির কথা জানানো হয় এবং ২০১৬ সালের ১১ মার্চ ফোনটি উত্তর আমেরিকা এবং ইউরোপে বাজারজাত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়৷[[১][২] এস৬ এবং এস৭ ফোনের মডেলগুলোতে ৫.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে এবং এজ মডেলগুলোতে ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়৷

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এ আছে ৪জিবি র্যাম। রোম আছে ৩২জিবি থেকে ৬৪জিবি পর্যন্ত। প্রসেসর হিসেবে আছে কোয়াডকোর কুআলকোম স্ন্যাপড্রাগন ৮২০।

পর্দা হিসেবে আছে ৫.১ইঞ্চি ১৪৪০ সুপার এমোলেড ডিস্প্লে। ব্যাটারি ৩৬০০এমএএইচ শক্তিধারণক্ষমতা সম্পন্ন।

সফ্টওয়্যার[সম্পাদনা]

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ অ্যানড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালোর সাথে ছাড়া হবে। সাথে থাকবে স্যামসাং টাচউইজ সফ্টওয়্যার স্যুট।

রিসিপশন[সম্পাদনা]

হার্ডওয়্যার[সম্পাদনা]

Software[সম্পাদনা]

The Galaxy S7 ships with Android 6.0 "Marshmallow" and Samsung's proprietary TouchWiz software suite. A new "Always On" functionality displays a clock and notifications on-screen when the device is in standby; the display is turned off completely if the device's proximity sensor detects that it is in an enclosed space such as a pocket. Samsung claims this feature would only consume half a percentage of battery capacity per-hour. New widget panes can be displayed on the edge of the S7 Edge, in "Edge Single" and wider "Edge Single Plus" sizes.[৩] Android Marshmallow's "adopted storage" feature was disabled by Samsung and is not usable.[৪]

পূর্বের মডেল এস৬ এর সাথে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এর হার্ডওয়্যার ডিজাইন এর অনেকাংশেই মিল রয়েছে৷ এর বহিরাবরণ অনেকটাই এস৬ এর মতো৷ তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে যেমন- আরও অধিক চারকোনা হোম বাটন এবং আরেকটু প্রসারিত ক্যামেরা ইত্যাদি সংযোজনা স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ কে নতুন মাত্রা দান করেছে৷ বাজারে বিভিন্ন রং এর গ্যালাক্সি এস৭ সেট পাওয়া যায় এবং এ রংগুলো হচ্ছে কালো, সোনালী, সাদা, গোলাপী, রূপালি ইত্যাদি৷ [৫][৬]

২০১৬ সালের সামার অলিম্পিক এ অংশগ্রহণকারী প্রায় প্রতিটি প্রতিযোগীকে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ ফোনটি দেয়া হয়৷[৭] সেটটিতে সেরা স্ক্রিন প্রযুক্তি সমৃদ্ধ থ্রিডি কার্ভড ডিসপ্লে, কম আলোতে উচ্চমান সম্পন্ন ফটো ও ভিডিও এর জন্য লো অ্যাপারচার সমৃদ্ধ ডুয়েল পিক্সেল ক্যামেরা,[৮][৯][১০] দ্রুত ও ওয়ারলেস চার্জিং এর সর্বশেষ প্রযুক্তি ইত্যাদি সুবিধা রয়েছে৷ এছাড়াও স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এজ এর বাড়তি মেমরি ব্যবহারের সুবিধা এবং অসাধারণ শক্তিশালী প্রসেসরের সঙ্গে অনন্য স্টাইলের আউটলুক রয়েছে৷[১১]

  স্যামসাং এর এ এস৭ স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ভালকান এপিআই প্রযুক্তি৷ যার মাধ্যমে কোনো ধরনের ল্যাগ টাইম সমস্যা ছাড়াই সবচেয়ে বাস্তব সম্মতভাবে মোবাইল গেম খেলা সম্ভব৷ এই ফোনটিতে রয়েছে কাস্টম প্রসেসর, শক্তিশালী জিপিইউ এবং এলপিডিডিআর ৪.৪ জিবি র‍্যাম, যা দারুন পারফরমেন্স এবং অবিশ্বাস্য গতি নিশ্চিত করে৷ ফলে ব্যবহারকারীরা দ্রুততর সমন্বিত মাল্টি টাস্কিং এবং সিনারজি তৈরির সুবিধা লাভ করেন৷ স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এজ এর প্রতিটি নিখুঁত পরিপুর্ণ ফিচার ছাড়াও এটিতে রয়েছে ৫.৫" কিউএইচডি সুপার অ্যামোলেড স্ক্রিন, অলয়েজ অন ডিসপ্লে (এওডি) ফিচার, পানি ও ধুলা রোধের জন্য আইপি ৬.৮ সার্টিফিকেশন এবং অত্যাধুনিক ডিজাইন৷  

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ ফোনের বিভিন্নতা[সম্পাদনা]

গ্যালাক্সি এস৭[সম্পাদনা]

স্যামসাং এক্সাইনোস ৮৮৯০ মডেল[সম্পাদনা]

  • এস এম-জি ৯৩০এফ(ইন্টারন্যাশনাল সিঙ্গেল সিম)
  • এস এম-জি ৯৩০এফডি(ইন্টারন্যাশনাল ডুয়েল সিম, হংকং)
  • এস এম-জি ৯৩০ডাব্লিউ৮(কানাডা)
  • এস এম-জি ৯৩০এস(সাউথ কোরিয়া এস কে টেলিকম)
  • এস এম-জি ৯৩০কে(সাউথ কোরিয়া কে টি)
  • এসএম- জি ৯৩০এল(সাউথ কোরিয়া এল জি ইউ+)

কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ মডেল[সম্পাদনা]

  • এস এম-জি ৯৩০০(চায়না ওপেন মডেল)
  • এস এম-জি ৯৩০ভি(ইউএসএ ভেরিজন ওয়্যারলেস)
  • এস এম-জি ৯৩০এ(ইউএসএ এটি এন্ড টি)
  • এস এম-জি ৯৩০পি(ইউএসএ স্প্রিন্ট)
  • এস এম-জি ৯৩০টি(ইউএসএ টি মোবাইল ইউএস)
  • এস এম-জি ৯৩০আর৪(ইউএসএ ইউএস সেলুলার)
  • এস এম-জি ৯৩০৮(চায়না চায়না মোবাইল)
  • এস এম-জি ৯৩০ইউ(ইউএসএ আনলক)

গ্যালাক্সি এস৭ এজ[সম্পাদনা]

স্যামসাং এক্সাইনোস ৮৮৯০ মডেল

  • এস এম-জি ৯৩৫এফ(ইন্টারন্যাশনাল সিঙ্গেল সিম, মালয়েশিয়া)
  • এস এম-জি ৯৩৫এফডি(ইন্টারন্যাশনাল ডুয়েল সিম, মালয়েশিয়া)
  • এস এম-জি ৯৩৫ডাব্লিউ৮(কানাডা)
  • এস এম-জি ৯৩৫এস(সাউথ কোরিয়া এস কে টেলিকম)
  • এস এম-জি ৯৩৫কে(সাউথ কোরিয়া কে টি)
  • এসএম- জি ৯৩৫এল(সাউথ কোরিয়া এল জি ইউ+)

কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ মডেল[সম্পাদনা]

  • এস এম-জি ৯৩৫০(চায়না ওপেন মডেল, হংকং)
  • এস এম-জি ৯৩৫ভি(ইউএসএ ভেরিজন ওয়্যারলেস)
  • এস এম-জি ৯৩৫এ(ইউএসএ এটি এন্ড টি)
  • এস এম-জি ৯৩৫পি(ইউএসএ স্প্রিন্ট)
  • এস এম-জি ৯৩৫টি(ইউএসএ টি মোবাইল ইউএস)
  • এস এম-জি ৯৩৫আর৪(ইউএসএ ইউএস সেলুলার)
  • এস এম-জি ৯৩৫ডি(জাপান এনটিটি ডোকোমো)
  • এস এম-জি ৯৩৫জে(জাপান কেডিডিআই)
  • এস এম-জি ৯৩৫ইউ(ইউএসএ আনলক)

Reception[সম্পাদনা]

The Galaxy S7 received generally positive reviews with critics praising the return of the micro SD card slot and waterproofing, though some felt the device was too similar to the preceding Galaxy S6.[১২][১৩]

সুযোগ সুবিধা[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

  1. "Samsung Galaxy S7 and S7 Edge: Curvier, faster, micro SD expansion—available March 11"। Ars Technica। 
  2. "Samsung's Galaxy S7 and S7 Edge bring refinement to a proven design"। theverge.com। 
  3. James Rogerson। "Samsung accidentally confirms the Galaxy S7 Edge"TechRadar। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  4. "The LG G5 and Galaxy S7 won't support Android 6.0's adoptable storage"Ars Technica। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  5. "Samsung Galaxy S7: 5 Things you may not know about Samsung's new flagship"। androidbeat.com। 
  6. "Samsung Galaxy S7 and Galaxy S7 Edge Review"। ndtv.com। 
  7. "Samsung Galaxy S7 anSamsung Galaxy S7" 
  8. "Samsung Galaxy S7 camera sensors compared: Sony vs. Samsung"। gsmarena.com। 
  9. "See the Samsung Galaxy S7 camera and its blazing fast autofocus in action"। phonearena.com। 
  10. "Sony IMX378: Comprehensive Breakdown of the Google Pixel's Sensor and its Features"। xda-developers.com। 
  11. "Samsung Galaxy" 
  12. Beavis, Gareth। "Hands on: Samsung Galaxy S7 review"techradar। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১৬ 
  13. Martin, Chris। "Samsung Galaxy S7 review: The best phone of 2015 just got even better for 2016 with most of our prayers answered"PC Advisor। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১৬