সুরেন্দ্রমোহন ঘোষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুরেন্দ্রমোহন ঘোষ
জন্ম২২ এপ্রিল, ১৮৯৩
মৃত্যু১২ জানুয়ারি, ১৯৩৪
জাতিসত্তাবাঙালি
আন্দোলনব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলন

সুরেন্দ্রমোহন ঘোষ (ইংরেজি: Surendramohan Ghosh) (২২ এপ্রিল, ১৮৯৩ - ৭ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৬) ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন অন্যতম ব্যক্তিত্ব। তিনি ছিলেন ভারতের লোকসভার ও রাজ্যসভার সদস্য। আধ্যাত্মিক ভাবাদর্শে তিনি পণ্ডিচেরির অরবিন্দ আশ্রমের গোষ্ঠীভুক্ত। ভারতীয় ইতিহাস, দর্শন, স্মৃতি, তন্ত্র, বৈষ্ণব সাহিত্য, এবং শ্রী অরবিন্দের জীবন নিয়ে আলোচনা করতেন।[১] তিনি দীর্ঘ ২৪ বছর ব্রিটিশ রাজের কারাদণ্ড ভোগ করেছিলেন এবং জেলে অনশন করেন মোট ৯৬ দিন। তিনি হেমেন্দ্রকিশোর আচার্য চৌধুরীর প্রতিষ্ঠিত ময়মনসিংহের সাধনা সমিতির সদস্য ছিলেন।[২] তাঁর বিপ্লবী বন্ধু মহারাজ ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী তাঁরই দিল্লীর বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

সুরেন্দ্রমোহন ঘোষ ১৯৩৯ সালে বঙ্গীয় প্রাদেশিক কমিটির অ্যাাডহক সভাপতি হন। দীর্ঘদিন ঐ পদে ছিলেন। ১৯৪৬ সালে কন্সটিটূয়েন্ট এসেম্বলির সদস্য নির্বাচিত হয়ে ভারতবর্ষের ভাবী শাসনতন্ত্র তৈরির কাজে আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৫০-৫২ সালে অস্থায়ী পার্লামেন্টের সদস্য এবং ১৯৫২ সালে লোকসভার সদস্য হন। ১৯৫৬ ও ১৯৬২ সালে রাজ্যসভার সদস্য এবং ১৯৬২-৬৭ সালে পার্লামেন্টে কংগ্রেস দলের ডেপুটি নেতা ছিলেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা ৮১৬, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬
  2. ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী, জেলে ত্রিশ বছর, ধ্রুপদ সাহিত্যাঙ্গন, ঢাকা, ঢাকা বইমেলা ২০০৪, পৃষ্ঠা ২২১।