সম্রাট ইওমি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইওমি
জাপানের সম্রাট
Yomeitenno.jpg
রাজত্ব৫৮৫–৫৮৭
পূর্বসূরিসম্রাট বিদাতসু
উত্তরসূরিসম্রাট শুসুন
জন্ম৫১৮
মৃত্যু৫৮৭(৬৯ বছর)
সমাধি
কাওকাছি ন শিনাগা ন হারা ন মিসাসাগি (ওসাগা)

সম্রাট ইওমি (Yōmei-tennō ৫১৮-৫৮৭) জাপানের ৩১তম সম্রাট পারম্পর্য ভাবে। (order of succession)

ইওমি রাজত্ব করেন ৫৮৫ থেকে তার মারা যাওয়ার আগে পূর্যন্ত(৫৮৭)

ঐতিহ্যগত আখ্যান[সম্পাদনা]

নিহোন শকিতে তাকে বলা হয়েছে তাছিবানা নো মিকাতো (tachibana no Toyohi no Mikoto) তাকে উল্লেখ করা হয় সম্রাট ওই (Prince Ōe) তার সৎ ভাই সম্রাট বাদাতসু মারা যাওয়ার পর রাজ্যের ভার পান।

সম্রাট বাদাতসু রাজত্ব থাকা কালে প্রভাবশালী সভাসদরে ছিলেন মনোনোবি নো মরিয়া যিনি মনোনোবি ইয়োগি নামে পরিচিত ছিলেন। আরো ছিলেন সোগা নো উমাকো যারা সম্রাট ইওমির সময় কলেও ছিলেন। উমাকো ছিলেন সোগো ইনামি নো সুকুনির পুত্র। এবং সম্রাট ইওমির দূর সম্পর্কের ভাই

৫৮৫: রাজত্বে ১৪তম বছরে সম্রাট বাদাতসু মারা যান উত্তরাধিকার ভাবে রাজত্ব পান তার ছোট ভাই কিন্তু পরোক্ষভাবেই রাজত্ব দেয়া হয় সম্রাট ইওমিকে।

সম্রাট ইওমি রাজত্ব করেন মাত্র দুই বছর। মারা যান ৬৯ বছর বয়সে।

৫৮৭: ৪র্থ মাসে সম্রাট ইওমি মারা যান তার মরদেহ কফিন রাখা হয়, পোড়া হায় না।

৫৮৭: ৫ম মাসে সশস্ত্র দ্বন্দ্ব বাধে যুদ্ধে যোগ হন মনোনোবি নো মরিয়া এবং সোগা উমাকো নো সুকুনি

৫৮৭: ৭ম মাস সম্রাট ইওমির মর দেহ পোড়া হয়।

সম্রাট ইওমি খুব অল্প সময় রাজত্ব করার ফলে রাজ্যের আইনে তেমন প্রভাব ফেলেনি তবে তিনি বৌদ্ধধর্ম প্রধান্য দেয়াতে রাজ্যে শিন্ত ধর্ম এর লোক জন কে ভাবিয়ে তোলেন। নিহোন সকির মতে সম্রাট ইওমি দুই ধর্মই মানতেন। মনোনোবি নো মরিয়া এবং সোগা উমাকো ছিলেন শিন্ত ধর্মের ভক্ত অনেকে মনে করেন এরা দুজন ষড়যন্ত্র করে তাকে মেরেছে, যদিও তিনি মারা গেছেন অসুখে

সম্রাট ইওমির সঠিক কবর এখনও পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হয় মেমোরিয়াল শিন্ত শ্রিনে (memorial Shinto shrine),ওসাকাতে

ইম্পেরিয়াল গৃহস্থালী এজেন্সি সম্রাট ইওমির সমাধিস্তম্ভ করেন মাওসোলেউম। যার নাম দেয়া হয় শিনাগা নো হারা নো মিসাসাগি। (Kawachi no Shinaga no hara no misasagi)

বংশতালিকা

সম্রাট ইওমি ছিলেন সম্রাট কিম্মেই এর ৪র্থ ছেলে এবং তার মা ছিলেন সোগা নো কিতাশিসিমি যিনি সোগা নো ইনামির মেয়ে।

সম্রাট ইওমির সমাধিসৌধ শিন্তো মন্দিরে

স্ত্রী এবং সন্তানসমূহ[সম্পাদনা]

সম্রাট ইওমির তিনজন স্ত্রী ছিলো এবং সাতজন ছেলে মেয়ে ছিলো।

সম্রাট ইওমির ছেলে রাজকুমার উমাইয়াডো যিনি রাজকুমার শতুকু নামে পরিচিত

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]