শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ
শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ.jpg
পরিচালকহরনাথ চক্রবর্তী
প্রযোজকশ্রীকান্ত মোহতা
রচয়িতামনোতোষ চক্রবর্তী
শ্রেষ্ঠাংশেপ্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়
ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত
রঞ্জিত মল্লিক
অনামিকা সাহা
শুভাশিষ মুখোপাধ্যায়
টোটা রায়চৌধুরী
সুরকারবাবুল বোস
সম্পাদকস্বপন গুহ
প্রযোজনা
কোম্পানি
মুক্তি
  • ১৪ এপ্রিল ২০০০ (2000-04-14)
দেশ ভারত
ভাষাবাংলা
নির্মাণব্যয়৬০-৭০ লক্ষ ভারতীয় টাকা[১][২]
আয়২.৫ কোটি ভারতীয় টাকা [৩]

শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ হল ২০০০ এর একটি প্রকাশিতব্য বাংলা অ্যাকশন চলচ্চিত্র যার পরিচালক হরনাথ চক্রবর্তীশ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস প্রযোজনা সংস্থা। প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত আর গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন রঞ্জিত মল্লিক, অনামিকা সাহা, শুভাশিষ মুখোপাধ্যায় এবং টোটা রায়চৌধুরী। বাবুল বোস সুর রচনা করেছিলেন। এটি ২০০০ সালে প্রকাশিত হওয়ার সময়ে বক্স-অফিসে রেকর্ড তৈরি করার সাথে সবচেয়ে বেশি আয় করা বাংলা চলচ্চিত্র ছিল।

পটভূমি[সম্পাদনা]

প্রখ্যাত শিল্পপতি শ্রীমতী বিনোদিনী রায় (অনামিকা সাহা) তার বড় মেয়ে রূপাকে (ঋতুপর্ণা) তার ব্যবসায়িক অংশীদারের ছেলের সাথে বিয়ে করাতে চান। রুপা বিয়ের বিরুদ্ধে এবং তাই সে বাবার (রঞ্জিত মল্লিক) সহায়তায় বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। রূপা তার মামার বাড়ির যাওয়ার পথে, একটি ট্যাক্সি চালক তার জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এবং সোমু (প্রসেনজিৎ) নামের সুদর্শন এক মোটর-মেকানিক এসে তাকে রক্ষ্যা করে। সোমু তাকে তার মামার বাড়িতে নিয়ে যায়। যতোই সময় যায় রূপা ও সোমু একে অপরের কাছে চলে আসতে থাকে। একদিন তাদের মধ্যে খুব তর্ক-বিতর্ক হয় এবং তারা উপলব্ধি করে তারা একে অপরকে ভালবাসে। তারা রুপার মাকে না জানিয়ে গোপনে বিয়ে করে। শীঘ্রই, রূপার বাবার অনুরোধে সে ঘরে ফিরে আসে, তবে তার মা তার এই বিবাহকে অস্বীকার করে; পরিবর্তে তিনি তার আগের ঠিক করা ব্যবসায়িক অংশীদারের ছেলের সাথে বিয়ে দেওয়া সিদ্ধান্ত নেন। রুপার বিয়ের দিন ঠিক যখন রুপা সমস্ত আসা ছেড়ে দিয়েছে; সোমু তার ‘শ্বশুরবাড়ি’ বাড়িতে নাটকীয়ভাবে প্রবেশ করে। তবে কেবল রূপের প্রতি তার ভালবাসা কি তাকে এখানে এনেছে; নাকি সোমুর নিজের কিছু গোপনীয়তা আছে?

অভিনয়[সম্পাদনা]

বক্স অফিস[সম্পাদনা]

"শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ", পশ্চিমবঙ্গে ২ কোটি টাকার ও বেশি টাকার ব্যবসা করা প্রথম বাংলা ছবি হয়ে বক্স-অফিস ইতিহাস তৈরি করে। বড় বাজেটে তৈরি প্রায় ৬০-৭০ লক্ষ টাকায় নির্মিত,[১][২] চলচ্চিত্রেটি শেষ অবধি বক্স-অফিসে ২.৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল;[৩] এইভাবে এটি 'সর্বকালের ব্লকবাস্টার' হিসাবে ঘোষিত সমস্ত মানদণ্ড পূরণ করেছিল। প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটীর আগের চলচ্চিত্রগুলি, "শুধু একবার বল", "বাবা কেন চাকর" এবং "মনের মানুষ" ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্রেগুলিকেও ছাপিয়ে তখনকার পর্যন্ত সর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্র হয়ে উঠেছিল।[৩] এটি অবশেষে বাংলার জেলাগুলিতে ৫০ সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলেছিল এবং 'সুবর্ণজয়ন্তী' সম্পন্ন করেছিল।[৪] ২ ১/২ বছর সর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্র রেকর্ড ধারণ করার পর হরনাথ চক্রবর্তীর পরিচালনায় 'সাথী' তার রেকর্ড ভাঙে।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "RISING GRAPH"। "The Telegraph"। ১২ জানুয়ারি ২০০৪। 
  2. "TOLLYWOOD TURNS TECHNO"। "The Telegraph"। ১৪ মে ২০০১। 
  3. "Meet the duo behind Shree Ventakesh Films who helped turn around Bengali cinema"। "The Economic Times"। 
  4. "100, NOT OUT..."। "The Times Of India"। ২৪ জানুয়ারি ২০১১। 
  5. "Box-office boom sends Tollywood budgets sky-high"। "The Telegraph"। ১২ জানুয়ারি ২০০৪।