শীটল্যান্ড ভেড়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শীটল্যান্ড
শীটল্যান্ড ভেড়া
A Shetland ram lamb with the common "Moorit" brown color
Country of originস্কটল্যান্ড
TypeHair
UseWool, meat, grazing
Traits
WeightMale: 41–57 kg
 Female: 34–45 kg
Wool colorWhite, brown, black
ভেড়া
Ovis aries

শীটল্যান্ড ভেড়া একধরনের ছোট আকারের, পশম উৎপাদনকারী ভেড়ার প্রজাতি যার উৎপত্তি শীটল্যান্ড দ্বীপে, কিন্তু বর্তমানে এটি বিশ্বের অনেক অংশে পালন করা হয়। এটি উত্তর ইউরোপীয় শর্ট-টেইল ভেড়ার গ্রুপের একটি অংশ এবং এটি বিলুপ্ত স্কটিশ ডানফেইসের সাথে নিবিড় ভাবে সম্পর্কযুক্ত। শীটল্যান্ড অনগ্রসর বা “অনুন্নত” প্রজাতি হিসেবে ‍শ্রেণীভুক্ত।[১] এই প্রজাতিটি তার খুবই মসৃন পশম, মাংস এবং চারণ সংরক্ষণের জন্য পালন করা হয়।[২]

যদিও শীটল্যান্ডরা বাণিজ্যিক প্রজাতি গুলোর তুলনায় ছোট আকারের এবং ধীরে বাড়ে তথাপি তারা কষ্টসহিষ্ণু, কম খরচে সহজে পালন যোগ্য, খাপ খাওয়াতে সক্ষম এবং দীর্ঘ্য দিন বাঁচে। শীটল্যান্ড প্রজাতিটি কয়েক শতক ধরে কঠিন অবস্থা এবং নিম্নমানের খাবারের উপরও টিকে থেকেছে কিন্তু ভাল পরিস্থিতিতে তারা আরো উন্নতি লাভ করে। শীটল্যান্ডরা অভিযোজনের অনেক পুরাতন বৈশিষ্ট্য ধরে রেখেছে তাই অন্যান্য অনেক আধুনিক প্রজাতির চেয়ে তাদের যত্ন নেয়া সহজ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

লৌহযুগের আগ পর্যন্ত বৃটিশ দ্বীপ এবং উত্তর ও পশ্চিম ইউরোপের অন্যান্য অংশের ভেড়া গুলো ছিল আকারে ছোট, খাটো লেজের, পুরুষরা শিং ওয়ালা এবং বিভিন্ন রংয়ের। কিছু খাটো লেজের ভেড়াদেরকে কিছু দুর্গম এলাকায় আবদ্ধ রেখে অন্যান্যগুলো ক্রমান্বয়ে লম্বা লেজের ভেড়াদের দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়ে যায়।[৩] এগুলোর মধ্যে ছিল স্কটিশ ডানফেইস যারা আঠার শতকের শেষ অবধি ওর্কল্যাণ্ড এবং শীটল্যান্ড সহ স্কটল্যান্ডের উচ্চভূমি এবং দ্বীপ সমূহে প্রধান ভেড়ার জাত ছিল।[৪] উনিশ শতকের শেষের দিকে ডানফেইসরা শীটল্যান্ড সহ তাদের উত্তসুরীদেরকে কিছু দ্বীপে সীমিত রেখে মূলভূমি স্কটল্যান্ড থেকে নিঃশেষ হয়ে যায়।[৫] শীটল্যান্ড জাতের ডানফেইসকে উনিশ শতকের প্রথমদিক বা তারও আগে থেকে স্বতন্ত্র হিসেবে গন্য করা হত।[৪]

জাত সংরক্ষণ[সম্পাদনা]

শীটল্যান্ড ভেড়ী মাঠে চরে বেড়াচ্ছে: এই “বেজারফেইস” নকশাকে বলে কাটমোগেট।

বিশ শতকের প্রথমদিকে ক্রস-ব্রীডিং এর কারণে শীটল্যান্ডকে হুমকির মুখে অনুভূত হয় যা তার পশমের মানকে নিচের দিকে নিয়ে যায়। এটি মোকাবেলায় ১৯২৭ সালে শীটল্যান্ড ফ্লক বুক সোসাইটি গঠিত হয় এবং এটি ভেড়াগুলোকে তাদের নিজস্ব দ্বীপে সংরক্ষণের জন্য দ্বায়িত্ব গ্রহণ করে।[৬]

১৯৭০ এর দশকে যখন রেয়ার ব্রীডস সারভাইভাল ট্রাস্ট গঠিত হয় তার মধ্যেই শীটল্যান্ড বিরল প্রজাতিতে পরিণত হয় এবং তাদের দ্বারাই এটি ক্যাটাগরী ২ (সঙ্কটাপন্ন) শ্রেণীভূক্ত হয়। তখন থেকেই এটি ক্ষুদ্র খামারীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠে এবং বর্তমানে যুক্তরাজ্যে ৩০০০ এর উপর সংখ্যা নিয়ে এটি ক্যাটাগরী ৬ (সাধারণ স্থানীয় প্রজাতি) তালিকাভূক্ত।[৭] মূল ভূখন্ডে প্রজাতিটিকে তত্ত্বাবধান করে শীটল্যান্ড শীপ সোসাইটি।[৭]

রপ্তানী এবং শীটল্যান্ড দ্বীপের বাইরের ইতিহাস[সম্পাদনা]

উনিশ শতকের গোড়ার দিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থমাস জেফারসন কয়েক বছর একটি কুখ্যাত ভেড়া পালন করেছিলেন। এই ভেড়ার চারটি শিং ‍ছিল যা আধুনিক শীটল্যান্ডদের দেখা যায় না (তবে কাছাকাছি কিছু প্রজাতিতে পাওয়া যায়)। এটিকে অন্য আরো ৪০ টি ভেড়ার সাথে হোয়াইট হাউসের সামনে প্রেসিডেন্ট স্কয়ারে রাখা হত। ১৮০৮ সালের এক বসন্তে এটি বেশ কিছু লোককে অাক্রমন করে যারা স্কয়ারের উপর দিয়ে ফাঁড়ি পথ ধরেছিলেন, এদের কিছুকে আহত করে এবং একটি ছোট ছেলেকে মেরেই ফেলে। জেফারসনের ব্যক্তিগত এস্টেট মন্টিসেলোতে সরানোর পর এটিকে মেরেই ফেলা হয় যখন এটি অন্য বেশকিছু ভেড়াকে হত্যা করেঃ জেফারসন এটিকে “জঘন্য প্রাণী” হিসেবে বর্ণনা করেছেন।[৮] শীটল্যান্ড ভেড়াদের এরকম আক্রমণাত্মক হওয়াট অস্বাভাবিক।[৯]

উত্তর আমেরিকায় জেফারসনের আসল শীটল্যান্ড এর পাল টিকে থাকেনি।[১০] এটি বিংশ শতাব্দীর আগে পর্যন্ত ছিল না যতক্ষণ পর্যন্ত শীটল্যান্ডদেরকে কানাডাতে আমদানী করে আনা হয় এবং পরে ১৯৮০ এর দশকে কানাডা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে আসা হয়।[১১] তখন থেকে একটি উত্তর আমেরিকার শীটল্যান্ড শীপ রেজিস্ট্রি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং সেখানে এখন এই প্রজাতির হাজার হাজার ভেড়া রয়েছে।[১০]

আধুনিক খামার ব্যবসায়[সম্পাদনা]

বর্তমানে, শীটল্যান্ড ভেড়া প্রধানত শীটল্যান্ড দ্বীপ এবং মুষ্টিমেয় আরো কিছু বসতিতে পালা হয়। এর কারণ হল এগুলো সেই অনুর্বর জমিতেও টিকে থাকতে পারে যে জমি গুলো অন্যভাবে কৃষিতে ব্যবহারের উপযুক্ত নয়।[৮] এগুলো শান্ত মেজাজও শীটল্যান্ড ভেড়া পালনের জন্য একটি বড় আকর্ষণ।[৯] এগুলোর খামার মুলত করা হয় তাদের দামী পশমের জন্য ‍কিন্তু মাংস উৎপাদনের জন্যও এদের পালন করা যেতে পারে।[১২]

প্রজাতির বৈশিষ্ট্যাবলী[সম্পাদনা]

শীটল্যান্ড ভেড়া অনেক বৈচিত্রময় রঙের হয়, যাদের অনেকগুলিকে তাদের প্রজনন কারীরা ঐতিহ্যবাহী নামে ডেকে থাকেন।

শীটল্যান্ড ক্ষুদ্রতম বৃটিশ প্রজাতি গুলোর মধ্যে একটি। সাধারনত ভেড়ীরা শিং বিহীন এবং ভেড়ারা শিং বিশিষ্ট যদিও শিং ‍বিশিষ্ট ভেড়ী এবং শিং বিহীন ভেড়াও হয়ে থাকে। প্রজাতিটি তার খুবই সূক্ষ্ণ, নরম পশম, উন্নত মানের মাংসের জন্য পরিচিত যদিও এর ক্ষুদ্র আকৃতি বাণিজ্যিক ভিত্তিতে মাংস বাজারজাত করনে সীমাবদ্ধতা সৃষ্টি করে।[১২] এরা ক্ষুদ্র-শরীরের প্রাণী যার মুখ, নাক এবং পা পশম বিহীন এবং ছোট খাড়া কান বিশিষ্ট। পাগুলো মাঝারি দৈর্ঘ্যের এবং অস্থিময়। উত্তরের খাটো লেজের ভেড়ার একটি পার্থক্য সূচক বৈশিষ্ট্য হল পাতা আকৃতির খাটো ‍লেজ, গোড়ার দিকে মোটা, আগায় ‍চিকন এবং পশম বিহীন শুধু লোমে ঢাকা।[১৩]

শীটল্যান্ডরা বিচিত্র রঙ ও নকশার হয়ে থাকে যাদের অধিকাংশেরেই আলাদা ঐতিহ্যবাহী নাম রয়েছে।[১৪] ভেড়ার ওজন প্রায় ৯০ থেকে ১২৫ পাউন্ড (৪১ থেকে ৫৭ কেজি) এবং ভেড়ী প্রায় ৭৫ থেকে ১০০ পাউন্ড (৩৪ থেকে ৪৫ কেজি) ওজনের হয়ে থাকে।[১৫]

পশম[সম্পাদনা]

শীটল্যান্ডের উৎপাদিত পশম ঐতিহাসিক ভাবেই একটি মূল্যবান পণ্য। শীটল্যান্ডরা অসংখ্য রংয়ের পশম উৎপন্ন করে থাকে (নিচে দেখুন), এবং এই ভিন্নতা বাণিজ্যিক ভাবে শীটল্যান্ডের পশম শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় কারণ অনেক সময় প্রাকৃতিক পশম রং করা ব্যতিতই ব্যবহৃত হয়ে থাকে। অপেক্ষাকৃত মোটা পশম থেকে টুইডও (এক প্রকার পশমী কাপড়) তৈরি করা হয় ‍কিন্তু দ্বীপ গুলো তাদের রঙচঙে তৈরি পোশাকের (ফেয়ার ইজলে নীটিং ব্যবহার করে তৈরি করা হয়) জন্যই বেশি পরিচিত এবং ঐতিহ্যবাহী লেইস শালের জন্যও যেগুলো এতই পাতলা যে, একটি বিয়ের আংটির ভিতর দিয়েই চলে যেতে পারবে। একটি ভেড়ার সম্পূর্ণ পশম ২ থেকে ৪ পাউন্ডের (০.৯ থেকে ১.৮) মধ্যে হয়ে থাকে।[১৫]

২০১১ সালের নভেম্বরে শীটল্যান্ডে উৎপন্ন শীটল্যান্ড পশম “স্থানীয় শীটল্যান্ড পশম” হিসেবে প্রটেক্টেড ডেজিগনেশন অব অরিজিন শ্রেণীতে প্রটেক্টেড জিওগ্রাফিকাল স্ট্যাটাস অর্জন করে। এটি ছিল বৃটেনের প্রথম খাদ্য বহির্ভূত পণ্য যা এই স্ট্যাটাস অর্জন করে।[১৬]

রং এবং নকশা[সম্পাদনা]

একটি ভেড়ার যত রকম রং এবং নকশা হতে পারে শীটল্যান্ড ভেড়ার সবগুলোই হয়ে থাকে যদিও সম্পূর্ণ সাদা এবং সম্পূর্ণ মূরিট (লালচে বাদামী) বা কালই সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। রং এবং নকশার অনেক গুলোরই শীটল্যান্ড উপভাষায় নাম রয়েছে- এগুলো নর্ন ভাষা থেকে উদ্ভূত যা আগে শীটল্যান্ডে প্রচলিত ছিল এবং একই রকম নাম কমপক্ষে অন্য একটি নরডিক ভাষায়ও ব্যবহৃত হয় যেমনঃ আইসল্যান্ডের।[১৪]

প্রজাতি সংগঠন এগারটি প্রধান রং স্বীকৃতি দিয়েছে (অধিকাংশেরেই অনেক ভিন্ন শেড রয়েছে): হালকা ধুসর, ধুসর, সাদা, এমস্কেট (কালচে নীলাভ-ধুসর), মাস্কেট (হালকা ধুসর বাদামী), শায়েলা (গাঢ় ইস্পাত-ধুসর), কাল, লালচে, মূরিট (লালচে বাদামী), মিওগেট (মিষ্টি হলুদাভ বাদামী) এবং গাঢ় বাদামী।[১৪]

শরীরে ত্রিশটি ভিন্ন নকশা এবং চিহ্ন স্বীকৃত, এদের মধ্যে অনেকগুলোই মিলিত ভাবে থাকতে পারে।[৭] এর মধ্যে রয়েছে কাটমোগেট (“বেজারফেইস”: পেট এবং নাক ও মুখের চারপাশে গাঢ় ছায়া, অন্যত্র হালকা), গুলমোগেট (“মাফলন”, এরা কাটমোগেটের বিপরীত: হালকা পেট, মুখ গাঢ় সাথে চোখের চারপাশে হালকা দাগ, অন্যত্র গাঢ়),ইউগলেট (সাধারনত পান্ডার মত চোখের চারপাশে গাঢ়র সাথে হালকা ডোরা), ব্লেসেট (মুখের নিচে গাঢ়র সাথে সাদা দাগ),  স্মিরস্লেট (মাজলের চারপাশে সাদা দাগ), সকেট (পায়ে সাদা মোজা), বেরসুগেট (বিভিন্ন রঙের অনিয়মিত ডোরা) এবং বিয়েলসেট (ভিন্ন রঙের কলার)।[৭][১৪]

বাচ্চা দেয়া[সম্পাদনা]

অন্যান্য “আদিম” প্রজাতির মত এই ভেড়ী গুলোর প্রজননও খুবই ‍ঋতুু ভিত্তিক, অক্টোবর এবং নভেম্বরে গরম হয় (উত্তর গোলার্ধে), এবং বসন্ত বা গরমের সময় বাচ্চা দেয়। প্রজাতি গুলোর স্থানীয় দ্বীপ গুলোতে বাচ্চা প্রসবের হার ১৩০%। আবার যখন ভেড়ী গুলো ভাল চারণ ভূমি পায় তখন সাধারণত জমজ বাচ্চাই হয় বিশেষত প্রাপ্ত বয়স্ক ভেড়ীতে। শীটল্যান্ড ভেড়ী গুলো কষ্টসহিষ্ণু, সহজে বাচ্চা প্রসব করে, মা হিসেবে ভাল এবং যথেষ্ট দুধ উৎপন্ন করে। স্বাস্থ্যবান ভেড়ার বাচ্চারা ৪ থেকে ৭ পাউন্ড (২ থেকে ৩ কেজি) এর মধ্যে ওজন নিয়ে জন্মায়।[১৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Shetland".
  2. "The Shetland Breed".
  3. Ryder, M. L. "History of Sheep Breeds in Britain" (PDF).
  4. Culley, George (1807).
  5. Trow-Smith, Robert.
  6. "Shetland sheep history".
  7. "RBST Sheep" (PDF).
  8. "Sheep".
  9. "About Shetland Sheep. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে
  10. Vorwald Dohner, Janet (2002).
  11. Ekarius, Carol (2008).
  12. "Shetland Sheep Meat".
  13. "Shetland Breed Standard".
  14. "1000 Years of Shetland Sheep". sheep-isle.dk.
  15. "Shetland".
  16. "Native Shetland wool secures protected status".
  17. "Shetland sheep lambing" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]