শিশুকামী আন্দোলন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

শিশুকামী আন্দোলন (ইংরেজি: pedophilia movement) একটি সামাজিক বা রাজনৈতিক আন্দোলন যা শিশুকামিতাকে এবং প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের মাঝে পারস্পরিক সম্মতিতে যৌনাচারকে সামাজিক এবং প্রাতিষ্ঠানিকভাবে সমর্থন করে। এই আন্দোলনের উদ্দেশ্য কিছু সামাজিক ও আইনগত পরিবর্তন নিয়ে আসা, যেমন যৌনসম্মতির বয়স বাতিল বা সংস্কার করা, শিশুকামিতাকে একটি নির্দিষ্ট যৌন অভিমুখীতা বলে প্রতিষ্ঠা করা এবং যৌনবিকৃতির বা মনোরোগের তালিকা হতে একে অপসারণ করা[১][২]

প্রাথমিকভাবে শুধু যুক্তিতর্কের খাতিরে ১৯৫০-এর দশকে নেদারল্যান্ডে মনস্তত্ত্বিক ফ্রিৎস বার্নার্ড, এবং সেনেটর ও বিচারক এডওয়ার্ড ব্রনগার্সমার সক্রিয়তায় এই আন্দোলনের জন্ম হয়। এর ফলস্বরূপ শীঘ্রই অন্যান্য অনেক দেশে শিশুকামীদের পক্ষে অনেক সমিতি গড়ে ওঠে। ১৯৭০-এর দশকের যৌন বিপ্লবের সুবাদে পশ্চিম ইউরোপে, বিশেষত নেদারল্যান্ডে এই আন্দোলন তার লক্ষ্য অর্জনের পথে অনেকটা অগ্রসর হয়, কিন্তু ১৯৮০-এর দশক থেকে এই আন্দোলন জনপ্রিয়তা হারাতে থাকে।

শিশুকামী আন্দোলনের প্রতি তৎকালীন জনমত বিরূপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করায় সামাজিক ও রাজনৈতিক ক্ষেত্রে এই আন্দোলনের অগ্রগতি ছিল যথেষ্টই সীমাবদ্ধ। বর্তমানে বেশিরভাগ দেশের সরকারই যৌনসম্মতির বয়স হিসেবে জাতিসংঘের দ্বারা নির্ধারিত আচরণবিধি মেনে চলে[৩], যদিও তা একেক দেশে একেক রকম হতে পারে। অপরপক্ষে চিকিৎসক গোষ্ঠীর মাঝে শিশুকামিতাকে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি মানসিক বা আচরণগত সমস্যা বলে গণ্য করা হয়, এবং নারী সমকামিতা বাদে প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের মাঝে সকল যৌনসম্পর্কের প্রতি ব্যাপকভাবে অসম্মতি জানান হয়[২][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Fonseca, Suheyla. «Um olhar crítico sobre o ativismo pedófilo» (portugale). Revista da Faculdade de Direito de Campos, n-ro 10 (junio 2007).
  2. Young, Mary. «The indignant page: techniques of neutralization in the publications of pedophile organizations». Child Abuse & Neglect, Vol. 4, n-ro 12 (1988), pp. 583-591.
  3. Convention on Consent to Marriage, Minimum Age for Marriage and Registration of Marriages ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৮ জুন ২০১০ তারিখে. Alta Komisariato de Unuiĝintaj Nacioj pri Homaj Rajtoj.
  4. Dallam, Stephanie. «Science or Propaganda? An examination of Rind, Tromovitch & Bauserman». Journal of Child Sexual Abuse, Vol. 9, n-roj 3/4 (2002), pp. 109-134.