শাদ বেগম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শাদ বেগম
شاد بیگم
Shad Begum at 2012 IWOC Award (cropped).jpg
২০১২ সালে শাদ বেগম
জন্ম২০ জানুয়ারি ১৯৭৯
পেশাসামাজিক কর্মী
ওয়েবসাইটhttp://www.abkt.org/

শাদ বেগম হলেন পাকিস্তানের একজন সামাজিক কর্মী। তিনি জন্মেছিলেন এক ধার্মিক মধ্যবিত্ত পরিবারে। তিনি ছিলেন তার পরিবারের প্রথম নারী, যিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছিলেন। তিনি তার সামাজিক কর্মকাণ্ডে সবসময় বাবা, ভাই, স্বামীর সহযোগিতা পেয়েছেন বলে অভিহিত করে থাকেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

শাদ বেগম তার এলাকার নারীদের উন্নতির জন্য ১৯৯৪ সালে 'অ্যাসোসিয়েশন ফর বিহেভিয়ার অ্যান্ড নলেজ ট্রান্সফর্মেশন' গঠন করেছিলেন। প্রথম দিকে সংগঠনটি 'আঞ্জুমান বেহবুদ-ই-খাওয়াতিন তালাশ' নামে পরিচিত ছিল।[১] তিনি তার এলাকার রক্ষণশীল সমাজ থেকে বহু বাধা বিপত্তির সম্মুখীন হয়েছিলেন। তার এলাকায় তালেবানদের আবির্ভাব ঘটলে তিনি অজ্ঞাত সশস্ত্র ব্যক্তিদের নিকট থেকে তিনি হুমকির সম্মুখীন হন এবং সংগঠনটির অফিস পেশোয়ারে স্থানান্তর করেন।

অ্যাসোসিয়েশন ফর বিহেভিয়ার অ্যান্ড নলেজ ট্রান্সফর্মেশন তার এলাকার নারী শিক্ষা, রাজনৈতিক সচেতনতা ও স্বাস্থ্য সচেতনতা নিয়ে কাজ করে চলেছে। এছাড়াও সংগঠনটি সাঁকো নির্মাণ, টিউবওয়েল স্থাপন, ইঁদারা খনন, রাস্তা নির্মাণ, স্থানীয় ব্যবসায়ীদের জন্য ক্ষুদ্রঋণের ব্যবস্থা করা ছাড়াও মাঠ পর্যায়ে নারীদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে অবদান রেখে চলেছে। সংগঠনটি পাকিস্তানপাকিস্তানের বাইরের দেশ থেকে অনুদান পেয়ে থাকে।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

২০১২ সালে আন্তর্জাতিক সাহসী নারী পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে মিশেল ওবামাহিলারি ক্লিনটনের সাথে শাদ বেগম

২০১২ সালে তার কর্মকাণ্ডের স্বীকৃতিস্বরূপ আন্তর্জাতিক সাহসী নারী পুরস্কার লাভ করেছিলেন।[২] তিনি সে বছরের ৮ মার্চ পুরস্কার গ্রহণ করেছিলেন। তিনি এসেছেন এক রক্ষণশীল এলাকা থেকে, যেখানে খুব অল্পসংখ্যক নারী বাড়ির বাইরে কাজ করেন। সেজন্য নিরাপত্তা ইস্যুর দরুন তিনি কিছু সাংবাদিককে তার পুরস্কার লাভের খবর না ছড়াতে অনুরোধ করেছিলেন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Shad Begum: A Brave Lady From Pakistan, thelovelyplanet.net, সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৩-০৮ 
  2. Pakistani activist gets US’ International Women of Courage Award, tribune.com.pk, সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৩-০৮ 
  3. Mrs Shad Begum does not want news to be spread, thefrontierpost.com, সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৩-০৮