শর্মিলা মান্দ্রে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শর্মিলা মান্দ্রে
Sharmiela Mandre at 60th South Filmfare Awards 2013.jpg
২০১৩ সালে শর্মিলা মান্দ্রে
জন্ম (1989-10-28) ২৮ অক্টোবর ১৯৮৯ (বয়স ৩১)
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন২০০৭–বর্তমান
উচ্চতা১.৬৭ মিটার (৫ ফুট   ইঞ্চি)

শর্মিলা মান্দ্রে (জন্ম: ২৮শে অক্টোবর ১৯৮৯)[১] হলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী এবং প্রযোজক। তিনি মূলত কন্নড় চলচ্চিত্রে তাঁর কাজের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি তামিলতেলুগু ভাষার চলচ্চিত্রের জন্য অধিক পরিচিতি লাভ করেছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

শর্মিলা মান্দ্রে ১৯৮৯ সালের ২৮শে অক্টোবর তারিখে ভারতের কর্ণাটকের বেঙ্গালুরুতে জন্মগ্রহণ করেছেন। তাঁর পিতামহ, আর. এন. মান্দ্রে হিন্দি ও কন্নড় চলচ্চিত্রের প্রযোজনা, বিতরণ এবং প্রদর্শনীর একজন অভিজ্ঞ কর্মকর্তা ছিলেন, যিনি ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বেঙ্গালুরু এবং মহীশূরে প্রথম শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মঞ্চ পরিচালনা করেছিলেন। তাঁর খালা সুনন্দা মুরালী মনোহর ছিলেন এক প্রখ্যাত নির্মাতা, যিনি ইন্ডিয়ান সামার, জিন্স, প্রোভোকড, জড়ি, ধাম ধুম, মিন্নালে, রামজী লন্ডনওয়ালের মতো চলচ্চিত্রের প্রযোজনা করেছেন। তিনি বেঙ্গালোরের সোফিয়া উচ্চ বিদ্যালয় হতে পড়াশোনা করেছিলেন এবং মাউন্ট কার্মেল কলেজ থেকে তাঁর ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।

পেশা[সম্পাদনা]

কন্নড় ভাষায় সজনি নামক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে অভিষেক করেছিলেন; তিনি এই চলচ্চিত্রে সমীর দত্তানির সাথে অভিনয় করেছেন। অতঃপর তিনি ২০০৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কৃষ্ণ নামক হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন; যেখানে তিনি গনেশের বিপরীতে অভিনয় করেছেন। এই চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িকভাবে একটি সফল চলচ্চিত্র ছিল। তাঁর অভিনীত অন্যান্য চলচ্চিত্রের মধ্যে নবগ্রহ (২০০৮), ভেঙ্কট ইন সঙ্কট (২০০৯) এবং স্বয়ম্বর (২০১০) উল্লেখযোগ্য।[২]

২০১২ সালে তিনি মিরাত্তল (যেটি তেলুগু চলচ্চিত্র ধী-এর পুনর্নির্মাণ ছিল) নামক তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করার মাধ্যমে তামিল চলচ্চিত্র জগতে অভিষেক করেছেন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি সুনাম অর্জন করেছেন। তিনি এরপরেই আল্লারী নরেশের বিপরীতে নিজের প্রথম তেলুগু চলচ্চিত্র কেভভু কেকায় অভিনয়ের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন। ২০১৩ সালে, তিনি নিজের নামটি শর্মিলা (Sharmila) থেকে পরিবর্তন করে শর্মীলা (Sharmiela) করেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে, একটি ঘোষণায় উল্লেখ করা হয় যে তিনি খালিদ মোহাম্মদ-এর পরিচালনায় নির্মিত কাঁথা-এ (যেটি ১৯৮৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একই নামের চলচ্চিত্রের পুনর্নির্মাণ) নায়িকা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। এই চলচ্চিত্রে তিনি দীপ্তি নাভালের চরিত্রে অভিনয় করবেন বলে জানানো হয়েছিল।[৩] অভিনয় জগত থেকে সংক্ষিপ্ত বিচ্ছেদের পর তিনি ধর্মা কীর্তিরাজের বিপরীতে মমতাজ নামক কন্নড় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন; যেটি ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Prasad S. M., Shashi (২৮ অক্টোবর ২০১৫)। "Mumtaz reincarnated"Deccan Chronicle। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৫ 
  2. http://timesofindia.indiatimes.com/entertainment/kannada/movies/news-interviews/Sharmiela-Mandre-to-quit-Sandalwood/articleshow/28631931.cms
  3. Sharmila Mandre to play Dipti Naval in Katha remake

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]