শন মেন্ডেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শন মেন্ডেস
UWOshawn mendes crop.jpg
২০১৪ সালে মেন্ডেস
জন্ম
শন পিটার রাউল মেন্ডেস

(1998-08-08) আগস্ট ৮, ১৯৯৮ (বয়স ২০)
টরোন্টো, ওন্টারিও, কানাডা
পেশা
  • গায়ক
  • গান-লেখক
কার্যকাল২০১৩- বর্তমান
ওয়েবসাইটshawnmendesofficial.com

শন পিটার রাউল মেন্ডেস (জন্ম আগস্ট ৮, ১৯৯৮) হচ্ছেন একজন কানাডিয়ান গায়ক এবং গান-লেখক। ২০১৩ সালে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং এপ্লিকেশন “ভাইন” এ বিভিন্ন গানের কভার করে পোস্টিং এর মাধ্যমে তিনি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। পরের বছর তিনি সঙ্গীত পরিচালক এন্ড্রো গেরটলার এবং আইল্যান্ড রেকর্ড এর আর্টিস্ট ও রেপেরটরি জিগি চার্টন এর সাথে রেকর্ড করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। মেন্ডেস একটি এক্সটেন্ডেড প্লে(শন মেন্ডেস ইপি) এবং তাঁর প্রথম স্টুডিও এ্যালবাম ‘“হ্যান্ডরিটেন”’ প্রকাশ করেন, যার একক “স্টিচেস” যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডার টপ ১০ এ পৌঁছায়।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শন মেন্ডেস কানাডার ওন্টারিও শহরের টরোন্টোতে জন্মগ্রহণ করেন এবং শহরটির উপকণ্ঠ পিকারিং এ বড় হন। শন মেন্ডেস হচ্ছেন রিয়েল এস্টেট এজেন্ট কারিন এবং টরোন্টোর বার ও রেস্টুরেন্টগুলোর খাবার সরবরাহের ব্যবসায়ী ম্যানুয়েল মেন্ডেস এর পুত্র। তাঁর বাবা পর্তুগিজ বংশোদ্ভূত যেখানে তাঁর মা হচ্ছেন একজন ইংরেজ। সে ওন্টারিওর পিকারিং এর পাইন রাইডজ সেকেন্ডারি স্কুল এ অংশ নেয়।[১]

ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

সে ২০১৩ সালে জনপ্রিয় সামাজিক ভিডিও অ্যাপ ভাইন এ বিভিন্ন গানের কভার পোস্ট করতে থাকে এবং কয়েক মাসের ব্যবধানে কয়েক লক্ষ ভিউ এবং ফলোয়ার তুলে নেন।[২] বিভিন্ন জনপ্রিয় গানের ছয় সেকেন্ড এর রেন্ডিটিশন এর জন্য তিনি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেন।[৩] আগস্ট ২০১৪ এর মধ্যে তিনি ভাইনের মধ্যে তৃতীয় সর্বোচ্চ অনুসরণকারী গায়ক। সঙ্গীত পরিচালক এন্ড্রো গেরটলার তাঁকে ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে আবিষ্কার করেন এবং আইল্যান্ড রেকর্ড এ নিয়ে আসেন যেখানে তিনি চুক্তিবদ্ধ হন[৪] এবং ২০১৪ সালের জুনে তাঁর প্রথম একক গান “লাইফ অভ দা পার্টি” প্রকাশ করেন। তিনিই হচ্ছেন সর্বকনিষ্ঠ শিল্পী যে ১৫ বছর বয়সে বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকায় ২৫তম অবস্থানে প্রবেশ করেছে, জুলাই ১২, ২০১৪ সপ্তাহের শেষে ২৪তম গান হিসেবে।[৫]

“১৯৮৯ ওয়ার্ল্ড ট্যুর” ওপেনিং এ মেন্ডেস

তাঁর গানের গুরুত্বের জন্য, মেন্ডেস অন্যান্য তরুণ শিল্পীদের সাথে “দা ম্যাগকন ট্যুর” এর সদস্য হিসাবে পরিভ্রমণ করেন।[৬][৭] প্রারম্ভিক কাজ হিসাবে ‘“ওস্টিন ম্যাহোন”’ এর সাথেও তিনি সারাদেশ পরিভ্রমণ করেন এবং জুলাইয়ে ইপি এর মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন।[৮] ইপি প্রকাশিত হয় এবং প্রথম সপ্তাহে ৪৮,০০০ কপি বিক্রির মাধ্যমে বিলবোর্ড ২০০ এর মধ্যে ৫ম স্থান দখল করে।[৯] ২০১৪ সালে তিনি ওয়েব-স্টার ইন মিউজিক হিসাবে “টিন চয়েস” এওয়ার্ড অর্জন করেন।[১০]

এপ্রিল ১৪, ২০১৫ এ মেন্ডেস তাঁর পুর্নদের্ঘ্য অ্যালবাম “হ্যান্ডরিটেন” প্রকাশ করেন।[১১] যার প্রারম্ভিকেই “বিলবোর্ড ২০০” এর তালিকায় প্রথম স্থান দখল করে ১১৯,০০০ কপি বিক্রির মাধ্যমে। প্রথম সপ্তাহে ১০৬,০০০ কপি বিক্রি করলেও পরের সপ্তাহে তা ৮৯% লোপ পায়।[১২] অ্যালবামটির তৃতীয় গান “স্টিচেস” “বিলবোর্ড হট ১০০” এর চতুর্থ স্থান দখল করে, যা যুক্তরাষ্ট্রে তাঁর প্রথম একক হিসাবে টপ ১০ এর মধ্যে জায়গা পায়[১৩] এবং পরবর্তীতে “মেইনস্ট্রিম টপ ৪০” তালিকার প্রথম স্থান দখল করে।[১৪] মেন্ডেস “বিলিভ” নামে একটি গান রেকর্ড করেন “ডিজনি চ্যানেল অরিজিনাল মুভি” এর “ডিস্কেন্ডান্টাস(২০১৫)” ছবির জন্য। তিনি টেইলর সুইফট এর ট্যুর “দা ১৯৮৯ ওয়ার্ল্ড ট্যুর” এর সময় উত্তর আমেরিকায় অংশ নেন।[১৫]

মেন্ডেস “টাইম ম্যাগাজিন” এর ২০১৪[১৬] এবং ২০১৫ সালের সবচেয়ে প্রভাবিত করা ২৫ কিশোর এর তালিকায় যুক্ত হন।[১৭]

মেন্ডেস এবং ফিফথ হারমোনি এর ক্যামিলা কাবিলোর সাথে “আই নো হোয়াট ইউ ডিড লাস্ট সামার” গান প্রকাশ করেন নভেম্বর ১৮,২০১৫ এ। পরবর্তীতে এটি “হেন্ডরিটেন রিবিজিটেড” নামের পুনঃমুদ্রনে যুক্ত করা হয়।[১৮]

শিল্পনৈপুন্য[সম্পাদনা]

মেন্ডেস উল্লেখ করেন যে “জন মেয়র”, “এড শিরান”, জাস্টিন টিম্বারলেক এবং “ব্রুনো মার্স” হচ্ছেন তাঁর সঙ্গীত প্রভাবক।[১৯][২০]

ডিস্কোগ্রাফি[সম্পাদনা]

স্টুডিও অ্যালবাম[সম্পাদনা]

  • হ্যান্ডরিটেন (এপ্রিল ২০১৫)
  • ইল্যুমিনেট (২০১৬)
  • শন‌ মেন্ডেস (২০১৮)

পুনঃমুদ্রন[সম্পাদনা]

  • হ্যান্ডরিটেন রিবিজিটেড(নভেম্বর ২০১৫)

এক্সটেন্ডেড প্লেইস[সম্পাদনা]

  • শন মেন্ডেস ইপি (জুলাই ২০১৪)

একক[সম্পাদনা]

প্রধান শিল্পী হিসাবে[সম্পাদনা]

  • “লাইফ অভ দা পার্টি” (২০১৪)
  • “সামথিং বিগ” (২০১৪)
  • “স্টিচেস”(২০১৫)
  • “আই নো হোয়াট ইউ ডিড লাস্ট সামার”(ক্যামিলা কাবিলো এর সাথে)(২০১৫)

ফিচার শিল্পী হিসাবে[সম্পাদনা]

  • “ওহ সেসিলিয়া(ব্রেকিং মাই হার্ট)” (দা ভাম্পস ফিচারিং শন মেন্ডেস” (২০১৪)

প্রমোশনাল সিংগেল[সম্পাদনা]

  • “এ লিটল টু মাচ” (২০১৫)
  • “নেভার বি এলোন” (২০১৫)
  • “কিড ইন লাভ” (২০১৫)
  • “বিলিভ” (২০১৫)

ভিডিওগ্রাফি[সম্পাদনা]

মিউজিক ভিডিওস[সম্পাদনা]

প্রকাশকাল এবং পরিচালকসহ মিউজিক ভিডিওসমূহের তালিকা
নাম বছর শিল্পী পরিচালক
প্রধান শিল্পী হিসাবে
"সামথিং বিগ" ২০১৪ শন মেন্ডেস জন জন অগুস্তাবো
"এ লিটল টু মাচ" ২০১৫ ব্লারি এলেস্তাদ
"নেভার বি এলোন" জন জন অগুস্তাবো
"লাইফ অভ দা পার্টি"
"আফটারটেস্ট"
"স্টিচেস" জে মার্টিন
"বিলিভ" জাস্টিন ফ্রাঙ্কিস
"আই নো হোয়াট ইউ ডিড লাস্ট সামার" শন ম্যান্ডেস ও ক্যামিলা কাবিলো রায়ান পালোটা
ফিচার শিল্পী হিসাবে
"ওহ সেসিলিয়া(ব্রেকিং মাই হার্ট)" ২০১৪ দা ভ্যাম্পস ফিচারিং শন মেন্ডেস ফ্রাঙ্ক বরিন

পরিভ্রমণ[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক কাজ
  • ২০১৪: লাইভ অন ট্যুর (অস্টিন মাহন) (উত্তর আমেরিকা)
  • ২০১৪: জিঙ্গেল বল ট্যুর
  • ২০১৫: দা ১৯৮৯ ওয়ার্ল্ড ট্যুর (টেইলর সুইফট) (উত্তর আমেরিকা)
হেডলাইনিং
  • ২০১৪-২০১৫: শন ফার্স্ট হেডলাইনিং

পদক ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

বছর সিরিমনি এওয়ার্ড মনোনয়ন ফলাফল
2014 টিন চয়েস এওয়ার্ড চয়েস ভাইনার শন মেন্ডেস মনোনীত
চয়েস ওয়েব স্টারঃপুরুষ
চয়েস ওয়েব স্টারঃ সংগীত জয়ী
২০১৫ জুনো এওয়ার্ড ব্রেকথ্রু আর্টিস্ট অভ দা ইয়ার মনোনীত
আইহার্ট রেডিও মিউজিক এওয়ার্ড বেস্ট ফ্যান আর্মি "মেন্ডেস আর্মি"
কানাডিয়ান রেডিও মিউজিক এওয়ার্ড বেস্ট নিউ গ্রুপ অভ সোলো আর্টিস্টঃসিএইচআর "লাইফ অভ দা পার্টি"
শর্টি এওয়ার্ড ভাইন মিউজিসিয়ান শন মেন্ডেস জয়ী
রেডিও ডিজনি মিউজিক এওয়ার্ড বেস্ট নিউ আর্টিস্ট rowspan="2" মনোনীত
মুচ মিউজিক ভিডিও এওয়ার্ড বেস্ট পপ ভিডিও "সামথিং বিগ"
ফ্যান ফেইভ ভিডিও জয়ী
ফ্যান ফেইভ আর্টিস্ট ওর গ্রুপ শন মেন্ডেস মনোনীত
মোস্ট বাজওর্থি কানাডিয়ান
টিন চয়েস এওয়ার্ড চয়েস ওয়েভ স্টারঃ সংগীত জয়ী
চয়েস মেইল আর্টিস্ট মনোনীত
চয়েস সামার মিউজিক স্টারঃ পুরুষ
চয়েস সংঃ মেইল আর্টিস্ট "স্টিচেস"
চয়েস মিউজিকঃ টিভি অর মুভি সং "ডেসেন্ডেন্টস(২০১৫)" থেকে বিলিভ
স্ট্রিমি এওয়ার্ড ব্রেকথ্রু আর্টিস্ট শন মেন্ডেস জয়ী
এমটিভি ইউরোপ মিউজিক এওয়ার্ড বেস্ট নিউ
বেস্ট পোস
বেস্ট কানাডিয়ান এক্ট মনোনীত
২০১৬ পিপল চয়েস এওয়ার্ড ফেবারিট ব্রেকথ্রু আর্টিস্ট পেন্ডিং

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Shawn Mendes: How a six-second video launched the next Justin Bieber"Telegraph.co.uk। জানুয়ারি ১৬, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ২৭, ২০১৫ 
  2. "Getting Honest With Shawn Mendes"Honest Blue। ৬ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  3. "Shawn Mendes: 5 Things You Need To Know About The Vine Star Turned Chart-Topping Singer (PHOTOS)"Headlines & Global News। ২০১৫-১০-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১১-১৪ 
  4. "How Shawn Mendes Is Turning Vine Fame into A Music Career"Billboard। জুলাই ১৮, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৮, ২০১৪ 
  5. "Shawn Mendes, 15-Year-Old Vine Celebrity, Makes Record-Breaking Debut on Billboard Hot 100"Idolator। জুলাই ২, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৩, ২০১৪ 
  6. "Girls go gaga for Vine video boys at Itasca meet and greet DailyHerald.com"Daily Herald। মার্চ ৩, ২০১৪। 
  7. Gregory, Ted (ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৪)। "Viners' meet and greet fosters teen idol frenzy Boys encounter stardom as popular producers of Twitter app's 6-second videos"Chicago Tribune 
  8. "'Secret' is out: Austin Mahone announces album, tour"USA Today। এপ্রিল ৪, ২০১৪। 
  9. Caulfield, Keith (এপ্রিল ১৫, ২০১৫)। "Shawn Mendes Album On Course for No. 1 Debut on Billboard 200 Chart"Billboard। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২, ২০১৫ 
  10. Brown, Harley (জুন ৪, ২০১৪)। "Vine Superstar Shawn Mendes Signed to Island Records (Exclusive)"Billboard 
  11. Caulfield, Keith (এপ্রিল ২২, ২০১৫)। "Shawn Mendes' 'Handwritten' Debuts at No. 1 on Billboard 200 Chart"Billboard। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৩১, ২০১৫ 
  12. Caulfield, Keith (২০১৫-০৪-২৯)। "Alabama Shakes Scores Its First No. 1 Album on Billboard 200 Chart"Billboard। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-২৯ 
  13. Trust, Gary (অক্টোবর ২৬, ২০১৫)। "The Weeknd Tops Hot 100; Adele No. 1 Next Week?"Billboard। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৬, ২০১৫ 
  14. "Shawn Mendes 'Believe' Song For Disney's 'Descendants'"J-14। অক্টোবর ২, ২০১৫। 
  15. "Vance Joy, Shawn Mendes tapped to support Taylor Swift on her "1989" tour"Headline Planet। নভেম্বর ৩, ২০১৪। 
  16. "The 25 Most Influential Teens of 2014"TIME Staff। Time। অক্টোবর ১৩, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ১৬, ২০১৫ 
  17. "The 30 Most Influential Teens of 2015"TIME Staff। Time। অক্টোবর ২৭, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ১৬, ২০১৫ 
  18. "Shawn Mendes & Camila Cabello Announce 'I Know What You Did Last Summer' Duet: Hear a Preview"Billboard। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১১-১৪ 
  19. Pankey, William (মে ২৭, ২০১৫)। "Q&A: Shawn Mendes talks touring, musical influences and having a No. 1 album"AXS। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৫ 
  20. Lynn, Jennifer (সেপ্টেম্বর ২, ২০১৪)। "MTV Meets: Shawn Mendes"MTV। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]