ব্রুনো মার্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
ব্রুনো মার্স
Bruno Mars down on one knee at the front of a stage, singing into a microphone, with someone in the audience holding his forearm. He is wearing black pants, a plaid button-up shirt, and a gray fedora.
মার্স ২০১০-এ লাস ভেগাসে সঙ্গীত পরিবেশন করছেন
জন্ম পিটার জিনন হার্নান্দেজ
(১৯৮৫-১০-০৮) ৮ অক্টোবর ১৯৮৫ (বয়স ৩৩)
হনুলুলু, হাওয়াই, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
বাসস্থান লস এঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
পেশা
  • গায়ক-গীতিকার
  • বহুবিদ-যন্ত্রবীদ
  • রের্কড প্রযোজক
  • নৃত্য পরিকল্পনাকার
সঙ্গীত কর্মজীবন
ধরন
বাদ্যযন্ত্রসমূহ
  • কন্ঠ
  • গিটার
  • পিয়ানো
  • কিবোর্ড
  • ড্রাম
  • পারকিউশন
  • মাউথ-অর্গান
কার্যকাল ২০০৪-বর্তমান
লেবেল
সহযোগী শিল্পী
ওয়েবসাইট brunomars.com

পিটার জিন হার্নান্দেজ (জন্ম ৮ই অক্টোবর, ১৯৮৫), পেশাগতভাবে পরিচিত ব্রুনো মার্স (/brnˈmɑːrz/), একজন মার্কিন গায়ক-গীতিকার, বহুবিদ-বাদ্যযন্ত্রবীদ, রেকর্ড প্রযোজক, এবং নৃত্য পরিকল্পনাকার। তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা হনুলুলু, হাওয়াইয়ের একটি সঙ্গীতজ্ঞ পরিবারে, অল্প বয়স থেকেই তিনি গান রচনা করতে শুরু করেন এবং তার শৈশবকালের নিজ শহরের বিভিন্ন গান প্রদর্শনের স্থান গুলোতে তিনি গান পরিবেশন করতেন। তিনি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে পাশ করেন এবং একটি সঙ্গীত কর্মজীবন অন্বেষণের লক্ষ্যে লস এঞ্জেলেসে আসেন। মোটন রেকডর্স কর্তৃক বাদ পড়ার পর, মার্স ২০০৯-এ আটলান্টিক রেকডর্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন।

২০০৯-এ, তিনি সহ-প্রতিষ্ঠা করেন দ্য স্মিজিনটন্স প্রোডাকশন টিম, যেটি প্রযোজনা করে বি.ও.বি কর্তৃক "নাথিং' অন ইউ" এবং ট্রাভি ম্যাককয় কর্তৃক "বিলিয়নিয়ার" একক দুটি। তিনি হুকস এর উভয় এককে আবিভূর্ত হন , এতে একক শিল্পী হিসেবে খ্যাতি পেতে থাকেন। তার অভিষেক স্টুডিও অ্যালবাম হচ্ছে ডু-উপস অ্যান্ড হোলিগ্যানস (২০১০), এটিতে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকার শীর্ষে থাকা একক "জাস্ট দ্য ওয়ে ইউ আর" এবং "গ্রেনাডে", সেইসাথে চতুর্থ একক "দ্য লেজী সঙ" ও। তার দ্বিতীয় অ্যালবাম, অ্যানঅর্থোডক্স জুকবক্স (২০১২), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তালিকায় ১ নম্বরে অবস্থান করে নেয়। অ্যালবামটিতে রয়েছে "লকড আউট অব হ্যাভেন", "হোয়েন আই ওয়াজ ইউর ম্যান" এবং "ট্রেজার" এর মতো আন্তর্জাতিক এককগুলো। ২০১৪-এ, Mars lent his vocals to Mark Ronson's "Uptown Funk", a single যেটি বিশ্বব্যাপী অনেক তালিকায় স্থান করে নেয়, এগুলো হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা,নিউজিল্যান্ড এবং যুক্তরাজ্য। ২০১৬-এ, তিনি তার তৃতীয় স্টুডিও অ্যালবাম ২৪কে ম্যাজিক সাথে একই শিরোনামের প্রধান একক গানটি ৭ই অক্টোবর, ২০১৬-এ প্রকাশ করেন। এখন পর্যন্ত, তিনি বিশ্বব্যাপি ১১৫ মিলিয়ন একক এবং ৯ মিলিয়ন অ্যালবাম বিক্রয় করেছেন, যেটি তাকে তৈরি করেছে সর্বোকালের সর্বোচ্চ বিক্রি সঙ্গীত শিল্পীদের একজন। ২০১০ থেকে তার সঙ্গীত কর্মজীবনে বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকায় তার সাতটি একক প্রথম স্থানে অবস্থান করেছে, এলভিস প্রেসলির পর থেকে কোন পুরুষ শিল্পীর তুলনায় তার প্রথম পাঁচটি একক দ্রুত গতিতে এটি অর্জন করে।

মার্স পুরষ্কার ও মনোনয়ন অর্জন করেছেন, এর মধ্যে রয়েছে ৫টি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড, এবং টাইম'স ২০১১-এর ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় তাকে স্থান দেয়। ডিসেম্বর ২০১৩-এ, ৩০ বছরের নিচে ৩০ জন ব্যক্তির তালিকায় ফোর্বস তাকে প্রথম স্থান দেয়। মার্স তার মঞ্চ ক্রিয়াকলাপ এবং বিপরীতমুখী লোক-টানার ক্ষমতার জন্য পরিচিত।

১৯৮৫-২০০৩: প্রারম্ভের জীবন এবং সংগীতের শুরু[সম্পাদনা]

পিটার জজিন হার্নান্দেজ হনুলুলু, হাওয়াইতে ৮ অক্টোবর, ১৯৮৫-এ জন্মগ্রহণ করেন[১] তার পিতা-মাতা হচ্ছেন পিটার হার্নান্দেজ এবং বার্নাডেট সান পেড্রো বায়োট, এবং তিনি হনুলুলুর ওয়াইকিকি উপকূলে বেড়ে উঠেছিলেন। [২]

তার বাবা অর্ধেক পুয়ের্তো রিকো এবং অর্ধেক আশেকানাজি ইহুদি বংশধর (ইউক্রেন ও হাঙ্গেরি থেকে) এবং মূলত ব্রুকলিন, নিউইয়র্ক থেকে।[৩][৪][৫] তার মা একজন শিশু হিসাবে ফিলিপাইন থেকে হাওয়াই অভিবাসী হয়েছিলেন, এবং ফিলিপিনো ছিল, এবং কিছুটা স্প্যানিশ বংশোদ্ভূতও।[৩][৪] তার পিতা-মাতার দেখা হয় একটি শো-তে, যেখানে তার মা ছিল একজন হুলা নাচিয়ে[৫] দুই বছর বয়সে, তাঁর পিতার দ্বারা তাঁকে "ব্রুনো" নামকরণ করা হয়, কারণ তিনি পেশাদার কুস্তিগীর ব্রুনো সাম্মার্টিনো এর অনুরূপ ছিলেন।[৬][৭][৮]

মার্স ছয় সন্তানের একজন এবং একটি সঙ্গীত পরিবার থেকে এসেছেন যা তাকে বিভিন্ন শৈলী বিভিন্ন মিশ্রণ প্রকাশ করতে ভূমিকা রাখে। এগুলো: রেগা, রক, হিপ হপ, এবং আরঅ্যান্ডবি[৯][১০] তাঁর মা ছিলেন একজন গায়ক এবং একজন নাচিয়ে, এবং তাঁর পিতা লিটল রিচার্ড রক এবং রোল সঙ্গীত রচনা করতেন। মার্সের চাচা তাকে তিন ববছর বয়সেই মঞ্চে কাজ করতে প্রণোদিত করেছিল। মার্স মাইকেল জ্যাকসন, ইসলি ব্রাদার্স এবং টেমপ্লেটেশন্স এর গানগুলো মঞ্চে পরিবেশন করতো।[৭] চার বছর বয়সে, মার্স সপ্তাহে পাঁচদিন তাঁর পরিবারের ব্যান্ড, দ্য লাভ নোটস, এ কাজ শুরু করেন, এবং প্রিসলীর ছদ্মবেশের জন্য দ্বীপে পরিচিতি পান।[১১] ১৯৯০-এ, মার্সমিডউইক এ "লিটল এলভিস" চরিত্রে উপস্থিত হন, এবং পরে হানিমুন ইন ভেগাসে (১৯৯২) প্রধান ভূমিকায় আর্বিভূত হন,[৭][১২] এবং হাফটাইম শো ১৯৯০ আলোহা বোল এ অভিনয় করেন।[১৩]

যে সময়টি মার্স প্রিসল্লির ছদ্মবেশী হিসেবে ধারন করেছিল তা পরে তার বাদ্যযন্ত্রের বিবর্তন এবং কার্যকরী কৌশলগুলির উপর বড় প্রভাব ফেলেছিল।[১৪] জিমি হেন্ডরিক্স দ্বারা অনুপ্রাণিত হওয়ার পরে তিনি গিটার বাজানো শুরু করেন।[১৫] ২০১০ সালে, তিনি তার হাওয়াইয়ান শিকড় এবং বাদ্যযন্ত্র পরিবারকে তার সঙ্গীত কর্মজীবনের একটি প্রভাবক হিসাবে স্বীকার করেছেন, ব্যাখ্যা করছেন: "হাওয়াইতে বেড়ে ওঠা মানুষটি আমি। আমি হাওয়াইতে আমার বাবার ব্যান্ডের সাথে অনেক অনুষ্ঠান করতাম। , সবাই গান গাইছে ... আমি শুধু এটি দ্বারা ঘিরে ছিলাম। "[৩][১৬] যখন তিনি প্রেসিডেন্ট থিওডোর রুজভেল্ট উচ্চ বিদ্যালয়ে এ যোগদান করেন) তখন তিনি বিদ্যালয়ের একটি দলে পারফর্ম করতেন, যার নাম ছিল দ্য স্কুল বয়েজ।[১৭] ২০০৩ সালে, ১৭ বছর বয়সে উচ্চ বিদ্যালয়ের পাস সম্পূর্ণ হওয়ার পর, মার্স একটি সঙ্গীত কর্মজীবনের জন্য লস এঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়ায় যান।[৭] সেখানে তিনি তার পিতার দেওয়া মার্স নামটি মঞ্চ নাম হিসেবে গ্রহন করেন।[১২][১৮] উপরন্তু, নামটি গ্রহনের আরো কারন ছিলো "সঙ্গীত প্রতিষ্ঠানগুলো তাকে অন্য একজন ল্যাটিন শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করেছিলো, এমনকি স্প্যানিশ ভাষায় গান গাওয়াতেও প্রণোদিত করেছিলো।"

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

মার্সের ভাই, এরিক তাদের ব্যান্ডদল হোলিগান এর ড্রামবাদক হিসেবে নিয়োজিত রয়েছে, তাদের বোন, থিয়ারা, তাহিতি এবং প্রেসলি এমনকি চাচাত-বোন জাইমি দ্য লায়লাস নামে একটি মেয়েদের একটি ব্যান্ড দল তৈরি করেছে। যখন তিনি যুবতী ছিলেন, জাইমি পৈতৃক কারনে তাদের ভাই-বোনদের সঙ্গে ত্যাগ করেন।[১৯]

সম্পর্ক[সম্পাদনা]

২০১১-এ মার্স মডেল জেসিকা কাবানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করা শুরু করেন।[২০][২১] ২০১৬ পর্যন্ত তারা দম্পতি হিসেবে ছিলেন, হলিউড হিলের পাশে একটি ম্যানশনে তারা বাস করতেন।

অর্জন[সম্পাদনা]

ব্রুনো মার্স পুরস্কার এবং মনোনয়ন
A black and white photograph of Bruno Mars performing with his band at a concert.
Mars performing in Houston, Texas on November 24, 2010.
মোট
পুরস্কার জয়ী 78
মনোনয়ন 251

মার্কিন গায়ক ও গীতিকার ব্রুনো মার্স ২৫১টি মনোনয়ন হতে ৭৮টি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন বিটি ডিজিটাল মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, তিনিটি ব্রিট অ্যাওয়ার্ড, একটি একো অ্যাওয়ার্ড, একটি জুনো অ্যাওয়ার্ড, পাঁচটি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড, তিনটি সোল ট্রেইন মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, এবং একটি আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ড। তিনি মনোনয়ন পেয়েছেন দুইটি আরিয়া মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, দুইটি মোবো অ্যাওয়ার্ড, নয়টি নিকেলোডিয়ন কিডস চয়েস অ্যাওয়ার্ড এবং এগারোটি নাপ ইমেজ অ্যাওয়ার্ড

মার্স শুরুতে একজন স্বীকৃত সঙ্গীত প্রযোজক এবং গীতিকার হিসেবে আবির্ভূত হয়, যিনি তাঁর দ্য স্যামেজিংটন প্রোডাকশন দলের সঙ্গে মিলে অন্যান্য শিল্পীদের জন্য গান রচনা করতেন।[২২][২৩] যেটি প্রযোজনা করে বি.ও.বি কর্তৃক "নাথিং' অন ইউ" , যেটি জিতে ২০১০-এর সোল ট্রেইন মিউজিক অ্যাওয়ার্ডের সঙ অব দ্য ইয়ার এবং ৫২তম বার্ষিক গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডে এটি রেকর্ড অব দ্য ইয়ার সহ তিনটি বিভাগের মনোনয়ন। তার অভিষেক স্টুডিও অ্যালবাম হচ্ছে ডু-উপস অ্যান্ড হোলিগ্যানস (২০১০), এটিতে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকার শীর্ষে থাকা একক "জাস্ট দ্য ওয়ে ইউ আর" এবং "গ্রেনাডে"[২৪][২৫] তিনি জিতেন সেরা পুরুষ পপ সঙ্গীত কন্ঠের জন্য ৫৩তম বার্ষিক গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড জিতেন, যখন তিনি পরে ৫৪তম বার্ষিক গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড-এ সং অব দ্য ইয়ার সহ তিনটি বিভাগে মনোনয়ন পান। ২০১১ এবং ২০১২-এ সেরা পুরুষ শিল্পীর জন্য বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে বিজয়ী হন, এগুলো হল পছন্দের পপ/রক পুরুষ শিল্পীর জন্য আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, আন্তর্জাতিক একক পুরুষ শিল্পীর জন্য ব্রিট অ্যাওয়ার্ড এবং আন্তর্জাতিক পুরুষ শিল্পীর জন্য ইকো অ্যাওয়ার্ড।

তার দ্বিতীয় অ্যালবাম, অ্যানঅর্থোডক্স জুকবক্স (২০১২), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তালিকায় ১ নম্বরে অবস্থান করে নেয়। অ্যালবামটিতে রয়েছে "লকড আউট অব হ্যাভেন", "হোয়েন আই ওয়াজ ইউর ম্যান" এবং "ট্রেজার" এর মতো আন্তর্জাতিক এককগুলো। "লকড আউট অব হ্যাভেন" এবং "হোয়েন আই ওয়াজ ইউর ম্যান" বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকায় অবস্থান করে।[২৫] অ্যালবামটি ৫৬তম বার্ষিক গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড-এ চারটি বিভাগে মনোনয়ন পায়। ২০১৩-এ, অ্যালবামটি জুনো অ্যাওয়ার্ড লাভ করে। "লকড আউট অব হ্যাভেন" ২০১৩-এর সেরা গানের জন্য এমটিভি ইউরোপ মিউজিক অ্যাওয়ার্ড লাভ করে। অতিরিক্ত, ২০১৩ ও ২০১৪-এ মার্স ধারাবাহিকভাবে বছরের সেরা আন্তর্জাতিক শিল্পী হিসেবে দুইটি NRJ Music Awardsএনআরজে মিউজিক অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন। ২০১৪-এ, তিনি জিতেন আন্তর্জাতিক পুরুষ একক শিল্পী হিসেবে একটি ২০১৪ ব্রিট অ্যাওয়ার্ড এবং মার্ক রনসন-এর একক আপটাউন ফাঙ্ক সহযোগে। গানটি সেরা একক হিসেবে ব্রিট অ্যাওয়ার্ড, বছরের সেরা গান হিসেবে সোল ট্রেইন মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, বছরের সেরা আন্তর্জাতিক কাজ হিসেবে আপরা মিউজিক অ্যাওয়ার্ড এবং বছরের সেরা রের্কড ও সেরা দ্বৈত পপ/দলগত পারফরমেন্সের জন্য দুটি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড জিতে। ২০১৬-এ রের্কডিং বিভাগে হলিউড ওয়াক অব ফ্রেম অর্জন করেনেবং তার তৃতীয় অ্যালবাম, ২৪কে ম্যাজিক, এই অ্যালবামের "দ্যাটস হোয়াট আই লাইক একক গান যেটি বিলবোর্ড ১০০ তালিকায় প্রথম স্থানে অবস্থান করা তার সপ্তম একক গান। একই বছর, তিনি গ্রহন করেন এনজেআর আর্টিষ্ট অব অনার। ২০১৭-এ, তিনি অর্জন করেন আইহার্ট রেডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে সংষ্কারক পুরষ্কার এবং এডেল এর তৃতীয় অ্যালবাম ২৫-এ প্রযোজক হিসেবে কাজের জন্য তিনি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড ফর অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার এর জন্য ৫৯তম গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডে পদক অর্জন করেন। তিনি ২৪কে ম্যাজিক অ্যালবামের জন্য ২০১৭-এ আরো জিতেন সেরা পুরুষ আরঅ্যান্ডবি/পপ শিল্পী এবং ভিডিও অব দ্য ইয়ার

ডিস্কোগ্রাফি[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

কর্নসাট ট্যুর[সম্পাদনা]

হেডলাইনিং
কো-হেডলাইনিং;
উদ্বোধনী প্রদশর্ন
  • হ্যান্ডস অল ওভার ট্রুর (২০১০) (উত্তর আমেরিকান বাছাইকৃত দিন)

| style="width: 50%;text-align: left; vertical-align: top; " |

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. De Castro, Cynthia (জানুয়ারি ৫, ২০১১)। "Bruno Mars: The Fil-Am Artist with Universal Appeal"Asian Journal। Los Angeles। ২০১১-০১-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৭, ২০১১ 
  2. "Bernadette del Pedro Bayot"। Geni.com। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৬, ২০১৫ 
  3. Trivino Alarcon, Jesus (ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭)। "Mr. Everything"Latina। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭ 
  4. Smolenyak, Megan (নভেম্বর ১২, ২০১২)। "What Race Is Bruno Mars?"Huffington Post। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৬, ২০১২ 
  5. Farber, Jim (অক্টোবর ৩, ২০১০)। "Bruno Mars follows his summer of hits with a big debut album 'Doo-Wops & Hooligans'"Daily News। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৬, ২০১০ 
  6. Pete Lewis। "Bruno Mars: Out of this World!"Blues & Soul। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২২, ২০১০ 
  7. Moniz, Melissa (এপ্রিল ১৪, ২০১০)। "Starring Bruno Mars"MidWeek। Honolulu। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০ 
  8. Daid Yi (অক্টোবর ১২, ২০১০)। "Bruno Mars, Far East Movement lead Asian-American pop music wave taking over the Billboard charts"Daily News (New York)। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১২, ২০১০ 
  9. Paul Lester (সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১০)। "New band of the day: Bruno Mars (No 865)"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০ 
  10. "Bruno Mars and Phillip Lawrence"American Society of Composers, Authors and Publishers। মার্চ ১৮, ২০১০। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০ 
  11. "Bruno Mars on Songwriting, Singing as a Tot, Working with Ne-Yo"Vibe। অক্টোবর ৪, ২০১০। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ৭, ২০১১ 
  12. "Bruno Mars gravitates toward a stellar solo career"USA Today। সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০। সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১০ 
  13. Hawaii News Now (২০১৪)। "Little 'Bruno' rocked the Aloha Bowl in 1990"Hawaii News Now। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৮, ২০১৬ 
  14. Gentry, Colin (সেপ্টেম্বর ২২, ২০১০)। "4Music.com meets Bruno Mars"4Music। মার্চ ৪, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১১ 
  15. Oldenburg, Ann (মার্চ ১৩, ২০১২)। "Bruno Mars poses on the cover of 'Playboy'"USA Today। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৫, ২০১৭ 
  16. "Greetings From Bruno Mars (YouTube video)"Elektra Records 
  17. Jim Mendoza (ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৪)। "Bruno Mars' friends and family amazed at his success"Hawaii News Now। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৪ 
  18. Georgette Cline। "10 Questions for Bruno Mars"Rap-Up। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৩, ২০১০ 
  19. Roland, Driadonna (এপ্রিল ১২, ২০১৩)। "Bruno Mars' Sisters Taking Their Turn on the Spotlight Band on 'The Lylas' And Of Course They're Getting A Reality Show"MTV। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬ 
  20. Rodriguez, Priscilla (জানুয়ারি ২৯, ২০১৪)। "8 tings to know about Bruno Mars' girlfriend"Latina। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২৮, ২০১৫ 
  21. "On the Cover: The Secret History of Bruno Mars"Rolling Stone। এপ্রিল ২৪, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ মে ৯, ২০১৪ 
  22. Lester, Paul (১৩ সেপ্টেম্বর ২০১০)। "New band of the day: Bruno Mars (No 865)"The GuardianGuardian News and Media। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১০ 
  23. Wete, Brad (১৩ এপ্রিল ২০১০)। "So who is Bruno Mars? A Q&A with the guy behind B.O.B's smash hit 'Nothin' On You'"Entertainment WeeklyTime Inc.। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১০ 
  24. Jeffries, David। "Bruno Mars Charts & Awards - Billboard Singles"AllMusic। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১৬ 
  25. Jeffries, David। "Bruno Mars Charts & Awards - Billboard Singles"AllMusic। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
কানইয়ে ওয়েস্ট
স্যাটারডে নাইট লাইভ সঙ্গীত অতিথি
অক্টোবর ৯, ২০১০
উত্তরসূরী
কিংস অব লিওন
পূর্বসূরী
ক্রিষ্টিনা এ্যাপলগেইট
স্যাটারডে নাইট লাইভ উপস্থাপক
অক্টোবর ২০, ২০১২
উত্তরসূরী
লুইস সি.কে
পূর্বসূরী
প্যাশন পিট
স্যাটারডে নাইট লাইভ সঙ্গীত অতিথি
অক্টোবর ২০, ২০১২
উত্তরসূরী
ফান.
পূর্বসূরী
কেন্ড্রিক লামার
স্যাটারডে নাইট লাইভ সঙ্গীত অতিথি
(সঙ্গে মার্ক রনসন)

নভেম্বর ২২, ২০১৪
উত্তরসূরী
নিকি মিনাজ