শকুনি দীঘি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শকুনি দীঘি
মাদারীপুর, শকুনি লেক পার্ক.jpg
অবস্থানমাদারিপুর
স্থানাঙ্কস্থানাঙ্ক: ২৩°০৯′৫৭.৬″ উত্তর ৯০°১২′২৮″ পূর্ব / ২৩.১৬৬০০০° উত্তর ৯০.২০৭৭৮° পূর্ব / 23.166000; 90.20778
ধরনকৃত্রিম জলাশয়
অববাহিকার দেশসমূহবাংলাদেশ
সর্বাধিক দৈর্ঘ্য৪৮৬ মিটার
সর্বাধিক প্রস্থ১৯৮ মিটার।
পৃষ্ঠতল অঞ্চল১,০১,১৭২ বর্গমিটার
গড় গভীরতা১০ মিটার (প্রায়)
জনবসতিমাদারিপুর

শকুনি দীঘি বাংলাদেশের মাদারীপুর শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত মানবসৃষ্ট দীঘি। তটভূমিসহ শকুনি দীঘির আয়তন ১,০১,১৭২ বর্গমিটার, দৈর্ঘ্য ৪৮৬ মিটার ও প্রস্থ ১৯৮ মিটার। ১৯৪৩ সালে মাদারিপুর শহরকে প্রমত্তা আড়িয়াল খাঁ নদের পাড় থেকে নতুন করে স্থাপনের জন্য দক্ষিণে সরিয়ে আনার লক্ষ্যে এ দীঘিটি খনন করা হয়। কাগজপত্রে এর নাম  ‘শকুনি দীঘি’ হলেও স্থানীয়দের কাছে এটি ‘মাদারিপুর লেক’ হিসেবে সুপরিচিত।[১]

অবস্থান[সম্পাদনা]

মাদারিপুর পৌর এলাকায় শহরের কেন্দ্রে ১১১নং শকুনি মৌজায় (দাগ নং ৪২১) ১৯.৪৫ একর ভূমির উপর শকুনি দীঘির অবস্থান।[২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিকদের মতে, পদ্মা ও আড়িয়াল খাঁ নদীর ভাঙ্গান রক্ষায় ১৯৪৩ সালে লেকটি খনন করে এর চারপাশে নতুন শহর স্থাপন করা হয়।[৪] চল্লিশের দশকে এ অঞ্চলে মাটিকাটা শ্রমিকের অভাব থাকায় ২০ একর আয়তনের এই লেক খনন করার জন্য তৎকালীন ব্রিটিশ প্রসাশন ভারতের বিহারউড়িষ্যা অঞ্চল থেকে ২ হাজার শ্রমিক ভাড়া করে আনে। ৯ মাসে এর খনন কাজ সম্পন্ন হয়। এটি এ অঞ্চলের দীর্ঘতম লেক হিসেবে পরিচিত।[৫] মাদারিপুর পৌরসভা ২০১৩ সালে ২২ কোটি  টাকা ব্যয়ে এর সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ শেষ করে। বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল, শহীদ কানন, শিশু পার্ক, স্বাধীনতা অঙ্গন, এমপি থিয়েটার মঞ্চ, শান্তি ঘাটলা, পানাহারসহ মাদারিপুর ঘড়ি নামে একটি ওয়াচ টাওয়ার রয়েছে ‘শকুনিলেক’ প্রকল্পে।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "শকুনি লেক | আয়োজন | The Daily Ittefaq"archive1.ittefaq.com.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৩ 
  2. "বাংলাদেশ পর্যটন সংরক্ষিত এলাকা" (PDF) 
  3. "ঐতিহ্যবাহী শকুনী দীঘি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত একটি দর্শনীয় স্থান"The Daily Sangram। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৩ 
  4. "পযর্টন শিল্পের এক অপার সম্ভাবনাময় 'শকুনি লেক'"www.jaijaidinbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৩ 
  5. travelnews; travelnews (২০১৯-০৫-২৪)। "শকুনি লেক"Travel News Bangladesh (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৩ 
  6. webdesk@somoynews.tv। "শেষ হয়েছে শকুনী লেকের সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ, দর্শনার্থীদের ভিড়"somoynews.tv (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৩ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]