লিউকাসপিয়াস ডেলিনিয়েটাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

লিউকাসপিয়াস ডেলিনিয়াটাস, সানব্লিক, বেলিকা বা মডারলিস্কেন নামে পরিচিত, কার্প পরিবার-এর অন্তর্ভুক্ত একটি তাজা জলের মাছের প্রজাতি। এটি বর্তমানে লিউকাসপিয়াস গণের অন্তর্গত, এবং পূর্বে যেসব অন্তর্ভুক্ত ছিল, সেগুলো এখন লাডিগেসোসিপ্রিস বা সুইডোফোক্সিনাস-এ স্থানান্তিরত করা হয়েছে বা এল. ডেলিনিটাস-এর সঙ্গে একীভূত করা হয়েছে।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

বেলিকা একটি পাতলা টেপার্ড দেহযুক্ত মাছ যার যা সাধারণত ৪ থেকে ৬ সেমি (১.৬ থেকে ২.৪ ইঞ্চি) দীর্ঘ এবং মাঝেমাঝে ১০ সেমি (৩.৯ ইঞ্চি)-র থেকে বড়। এটির ঊর্ধ্বমুখী এবং ছোট ল্যাটারাল লাইন আছে যা গিল কভার থেকে প্রায় সাত থেকে দশ ফিস স্কেল প্রসারিত হয়। পায়ু-পাখনাটি ছোট এবং এগারো থেকে চৌদ্দ রশ্মি নিয়ে গঠিত। এটি একটি রূপালী মাছ যার একটি পাশ দিয়ে চলমান বিশেষ রঙের ব্যান্ড আছে। [১]

বিতরণ[সম্পাদনা]

একটি শুকিয়ে যাওয়া ক্ষণস্থায়ী পুকুরে "মাতৃহীন" কিশোর মাছ

বেলিকা সমগ্র নাতিশীতোষ্ণ মহাদেশীয় ইউরোপে পাওয়া যায় এবং কিঞ্চিৎ ককেশাস অঞ্চলে মধ্য এশিয়া পর্যন্তও প্রসারিত হয়। এটির পরিসরের দক্ষিণ সীমা মূলত পাইরিনিজ এবং আলপাইড বেল্ট দ্বারা চিহ্নিত।

সাধারণ নাম মডারেলিসেন হল জার্মান বংশোদ্ভূত। যদিও এটি একটি সঠিক শব্দ বলে মনে হয় যা প্রায় "মোল্ডি লিজি" হিসাবে অনুবাদ করা যেতে পারে, এটি আসলে একটি পুরানো নামের বোল্ডারাইজড সংস্করণ যা জার্মানির কিছু অংশেমাটার্লোসেকেন নামে বিদ্যমান আছে। এটির আক্ষরিক অর্থ হল "ছোট মাতৃহীন একটি", এটি শেষমেষ এই তথ্যকে নির্দেশ করে যে মডারেলিশেনের চটচটে ডিমগুলি উল্লেখযোগ্য সময়ের জন্য বাতাসের প্রকাশ সহ্য করতে পারে। জলের গাছগুলিতে জমা থাকা এগুলো কখনও কখনও হাঁস এবং তদনুরূপ পাখির পায়ে লেগে থাকে এবং সেগুলো তাদের দ্বারা ক্ষণস্থায়ী পুকুরে নিয়ে যাওয়া হয়। এই ধরনের পুকুর শুকিয়ে গেলে মাঝেমধ্যে বিপুল সংখ্যক তরুণ মডারেলিশেনদের মুখোমুখি হতে হয়, এবং প্রাপ্তবয়স্ক মাছ না থাকায় এই বিশ্বাস জন্ম দেয় যে তারা "মাতৃহীন"।

এটি গ্রেট ব্রিটেনে প্রবর্তিত হয়েছে এবং সোমারসেটের অ্যাভালন মার্শগুলিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে মনে হয় এবং উক্ত জাগায় এটি ইউরোপীয় উটারআমেরিকান মিঙ্ক উভয়ের সাথে পরজীবী ফ্লুকের একটি নতুন প্রজাতি প্রেরণের জন্য সংশ্লিষ্ট করা হয়েছে কিন্তু সেখানে এখন এটি একটি মৎস্যাশী পাখির জন্য শিকারের জন্য় এক গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।[২][৩]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Belica: Leucaspius delineatus"। NatureGate। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. James Williams (২০০৬)। "Otters on the Somerset Levels" (PDF)। Somerset Otter Group। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১৭ 
  3. "Preparing for another Spring"। The Grumpy Ecologist। ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১৭