লাকুটিয়া জমিদার বাড়ি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লাকুটিয়া জমিদার বাড়ি
Lakutia Zamindar Bari.jpg
বিকল্প নামলাখুটিয়া জমিদার বাড়ি
জমিদার রাজচন্দ্র রায়ের বাড়ি
সাধারণ তথ্য
ধরনবাসস্থান
অবস্থানবরিশাল সদর উপজেলা
ঠিকানালাকুটিয়া গ্রাম
শহরবরিশাল সদর উপজেলা, বরিশাল জেলা
দেশবাংলাদেশ
খোলা হয়েছেআনুমানিক ১৬০০-১৭০০ শতকে
স্বত্বাধিকারীরাজচন্দ্র রায়
কারিগরী বিবরণ
পদার্থইট, সুরকি ও রড
তলার সংখ্যা০২ (দুই)

লাকুটিয়া জমিদার বাড়ি বাংলাদেশ এর বরিশাল জেলার বরিশাল সদর উপজেলার লাকুটিয়া গ্রামে অবস্থিত এক ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ি[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

জমিদার বাড়িটি আনুমানিক ১৬০০ কিংবা ১৭০০ সালে জমিদার রাজচন্দ্র রায় নির্মাণ করেন। রাজচন্দ্রের পুত্র পিয়ারীলাল রায় একজন লব্ধপ্রতিষ্ঠিত ব্যারিস্টার ও সমাজসেবী ছিলেন। তাঁর দুই পুত্র বিখ্যাত বৈমানিক ইন্দ্রলাল রায় এবং বক্সার পরেশলাল রায়। তবে এই জমিদার বংশের মূল প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন রূপচন্দ্র রায়। জমিদার বংশের লোকেরা অনেক জনহিতকর কাজ করে গেছেন। তারা তখনকার সময়ে উল্লেখযোগ্য "রাজচন্দ্র কলেজ" ও "পুষ্পরানী বিদ্যালয়" নির্মাণ করেছিলেন। বর্তমানে এখানে তাদের কোনো উত্তরসূরি নেই। এখানে শেষ জমিদার ছিলেন দেবেন রায় চৌধুরী। পরে তিনি ভারতের কলকাতায় স্ব-পরিবারে চলে যান এবং সেখানেই মৃত্যুবরণ করেন। তবে তিনি তার মেয়ে মন্দিরা রায় চৌধুরীকে বরিশালের কাশিপুরের মুখার্জী বাড়িতে। তিনি এখনো এখানে বসবাস করতেছেন।

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

বসবাসের জন্য দ্বিতল বিশিষ্ট্য একটি প্রাসাদ রয়েছে। এছাড়াও একটি মঠ, দিঘী ও মাঠ রয়েছে।

বর্তমান অবস্থা[সম্পাদনা]

বর্তমানে প্রাসাদের অনেকাংশ প্রায় ধ্বংস হয়ে গেছে। ভবনগুলি শ্যাওলা পরে আচ্ছাদিত হয়ে আছে ৷ স্থানীয় জনশ্রুতি অনুসারে এই ভবনগুলি বদজ্বীন ও ভূতপ্রেত দ্বারা সংক্রামিত হয়ে আছে ৷ এখন এটি বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন তত্ত্বাবধায়নে রয়েছে। এখানে বিভিন্ন পর্যটকগণ পরিদর্শন করতে আসেন ৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]