র্দ্জোং-গ্সার-ম্খ্যেন-ব্র্ত্সে-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
র্দ্জোং-গ্সার-ম্খ্যেন-ব্র্ত্সে-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোস

র্দ্জোং-গ্সার-ম্খ্যেন-ব্র্ত্সে-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোস (তিব্বতি: རྫོང་གསར་མཁྱེན་བརྩ་ཆོས་ཀྱི་བློ་གྲོས་ওয়াইলি: rdzong gsar mkhyen brtse chos kyi blo gros) (১৮৯৩-১৯৫৯) তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের সা-স্ক্যা ধর্মসম্প্রদায়ের একজন বিখ্যাত পণ্ডিত ছিলেন, যিনি ধর্মসামপ্রদায় নিরপেক্ষ রিস-মেদ আন্দোলনের পুরোধা পুরুষ ছিলেন।

জন্ম ও পরিবার[সম্পাদনা]

র্দ্জোং-গ্সার-ম্খ্যেন-ব্র্ত্সে-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোস ১৮৯৩ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতের খাম্স অঞ্চলের সা-ঙ্গান (ওয়াইলি: sa-ngan) নামক স্থানে ল্চাগ-গোং (ওয়াইলি: lcag gong) পরিবারগোষ্ঠীতে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম ছিল রিগ-'দ্জিন-'গ্যুর-মেদ-ত্শে-দ্বাং-র্গ্যাল-পো (ওয়াইলি: rig 'dzin 'gyur med tshe dbang rgyal po) এবং মাতার নাম ছিল ত্শুল-খ্রিম্স-'ত্শো (ওয়াইলি: tshul khrims 'tsho)। জন্মের পর তার নাম রাখা হয় 'জাম-দ্ব্যাংস-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোস (ওয়াইলি: 'jam dbyangs chos kyi blo gros)।[১]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

'জাম-দ্ব্যাংস-ছোস-ক্যি-ব্লো-গ্রোসকে 'জাম-দ্ব্যাংস-ম্খ্যেন-ব্র্ত্সে'-দ্বাং-পো (ওয়াইলি: 'jam dbyangs mkhyen brtse dbang po) নামক সা-স্ক্যা ধর্মসম্প্রদায়ের বিখ্যাত পণ্ডিতের পুনর্জন্ম হিসেবে চিহ্নিত করে র্দ্জোং-গ্সার বৌদ্ধবিহার নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ছোস-ক্যি-র্গ্যা-ম্ত্শো (ওয়াইলি: chos kyi rgya mtsho) নামক তৃতীয় কাহ-থোগ-সি-তু (ওয়াইলি: kaH thog si tu) উপাধিধারী লামার অনুরোধে তাকে কাহ-থোগ বৌদ্ধবিহারে অধিষ্ঠিত করা হয়। এই বিহারে তাকে শ্রমণের শপথ প্রদান করা হয়। পনেরো বছর বয়সে তাকে র্দ্জোং-গ্সার বৌদ্ধবিহারের প্রধান রূপে অধিষ্ঠিত করা হয়। 'জাম-দ্ব্যাংস-ব্লো-গ্তের-দ্বাং-পো (ওয়াইলি: 'jam dbyangs blo gter dbang po) তাকে মার্গফল, হেবজ্র তন্ত্র ও র্গ্যুদ-স্দে-কুন-'দুস (ওয়াইলি: rgyud sde kun 'dus) নামক তন্ত্র সঙ্কলন সম্বন্ধে, ব্রাগ-রা-ঝাব্স-দ্রুং-ব্ক্রা-শিস-র্গ্যা-ম্ত্শো (ওয়াইলি: brag ra zhabs drung bkra shis rgya mtsho) তাকে বজ্রভৈরব ও মি-ত্রা-ব্র্গ্যা-র্ত্সা (ওয়াইলি: mi tra brgya rtsa) সম্বন্ধে, ম্খান-ছেন-ব্সাম-গ্তান-ব্লো-গ্রোস (ওয়াইলি: mkhan chen bsam gtan blo gros) তাকে স্গ্রুব-থাব্স-কুন-'দুস (ওয়াইলি: sgrub thabs kun 'dus) সম্বন্ধে, 'জাম-দ্ব্যাংস-ম্খ্যেন-রাব-ম্থা'-য়াস (ওয়াইলি: 'jam dbyangs mkhyen rab mtha' yas) তাকে কালচক্র তন্ত্র সম্বন্ধে, ব্ক্রা-শিস-ছোস-'ফেল (ওয়াইলি: bkra shis chos 'phel) তাকে বজ্রকীলয় ও কালচক্র তন্ত্র সম্বন্ধে, র্গা-স্তোন-ঙ্গাগ-দ্বাং-লেগ্স-পা (ওয়াইলি: rga ston ngag dbang legs pa) তাকে মার্গফল সম্বন্ধে এবং কার্মা-ছোস-ক্যি-ন্যিন-ব্যেদ (ওয়াইলি: kar+ma chos kyi nyin byed) নামক দশম জুর-মাং-দ্রুং-পা (ওয়াইলি: zur mang drung pa) উপাধিধারী লামা তাকে চক্রসম্বরমহামুদ্রা সম্বন্ধে শিক্ষাদান করেন। এছাড়া 'জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পা'ই-ন্যি-মা (ওয়াইলি: 'jigs med bstan pa'i nyi ma) নামক তৃতীয় র্দো-গ্রুব-ছেন রিন-পো-ছে (ওয়াইলি: rdo grub chen rin po che) উপাধিধারী লামা এবং লাস-রাব-গ্লিং-পা (ওয়াইলি: las rab gling pa) তার উল্লেখযোগ্য শিক্ষক ছিলেন।[১]

খাম্স-ব্যেদ-মা-থাং মহাবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা[সম্পাদনা]

কুড়ি বছর বয়সে তিনি গ্ঝান-ফান-ছোস-ক্যি-স্নাং-বা (ওয়াইলি: gzhan phan chos kyi snang ba) এবং দ্বোন-স্তোদ-ম্খান-পো-'জাম-দ্ব্যাংস-ম্খ্যেন-রাব (ওয়াইলি: dbon stod mkhan po 'jam dbyang mkhyen rab) নামক দুই বৌদ্ধ ভিক্ষুর সহযোগিতায় র্দ্জোং-গ্সার বৌদ্ধবিহারে খাম্স-ব্যেদ-মা-থাং (ওয়াইলি: khams byed ma thang) নামক একটি মহাবিদ্যালয় স্থাপন করেন। এই মহাবিদ্যালয় পরবর্তীকালে অসাম্প্রদায়িক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে ওঠে যেখানে তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের সমস্ত সম্প্রদায়ের শিক্ষা সম্বন্ধে অধ্যয়নের ব্যবস্থা করা হয়। এই মহাবিদ্যালয় ধীরে ধীরে অসাম্প্রদায়িক রিস-মেদ আন্দোলনের পীঠস্থানে পরিণত হয়। তিনি রোং-মে-'ছি-মেদ-দ্কার-মো-স্তাগ-ত্শাং (ওয়াইলি: rong me 'chi med dkar mo stag tshang) নামক স্থানে এই মহাবিদ্যালয়ের সাধনকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেন।[১]

শেষ জীবন[সম্পাদনা]

ছাপ্পান্ন বছর বয়সে তিনি ত্শে-রিং-ছোস-ল্দান (ওয়াইলি: tshe ring chos ldan) নামক এক মহিলাকে বিবাহ করে ভিক্ষুর শপথ ত্যাগ করেন। ১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দে এই দম্পতি র্দ্জোং-গ্সার বৌদ্ধবিহারের ওপরে একটি পর্বতগাত্রে খ্যুং-ছেন-দ্পাল-র্দ্জোং (ওয়াইলি: khyung chen dpal rdzong) নামক একটি সাধনকেন্দ্র স্থাপন করেন। ১৯৫৮ খ্রিষ্টাব্দে মূল বিহার সহ এই ভবনটি সম্পূর্ণ রূপে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। ১৯৫৫ খ্রিষ্টাব্দে তিনি সাম্যবাদী চীনের বিরুদ্ধে খাম্স অঞ্চলের গণপ্রতিরোধের অনুমান করে র্দ্জোং-গ্সার বৌদ্ধবিহার ছেড়ে সিক্কিম পালিয়ে চলে যান, যেখানে ১৯৫৯ খ্রিষ্টাব্দে তার মৃত্যু ঘটে।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gardner, Alexander (ডিসেম্বর ২০০৯)। "Jamyang Khyentse Chokyi Lodro"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-১০-২৫ 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Bradburn, Leslie, ed. 1995. Masters of the Nyingma Lineage. Cazadero: Dharma Publications, 1995.
  • Nyoshul Khenpo. 2005. A Marvelous Garland of Rare Gems. Richard Barron, trans. Junction City, California: Padma Publication.
  • Tulku Thondup. 1996. Masters of Meditation and Miracles: The Longchen Nyingthig Lineage of Tibetan Buddhism. Boston: Shambhala.