রাণী রামপাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
রাণী রামপাল
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (১৯৯৪-১২-০৪) ৪ ডিসেম্বর ১৯৯৪ (বয়স ২৩)
Shahbad, Haryana, India
মাঠে অবস্থান Forward
জাতীয় দল
2009–present India 140 (78)

রাণী রামপাল (ইংরেজি: Rani Rampal জন্ম: ৪ ডিসেম্বর ১৯৯৪)[১][২] হলেন একজন ভারতীয় নারী ফিল্ড হকি খেলোয়াড়। তিনি সাধারণত মাঠের আক্রমণভাগে খেলে থাকেন। ১৫ বছর বয়সে তিনি ভারত জাতীয় মহিলা ফিল্ড হকি দলের সবচেয়ে কমবয়সী খেলোয়াড় হিসাবে ২০১০ হকি বিশ্ব কাপে অংশগ্রহণ করেছিল।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

রাণী রামপাল ১৯৯৪ সালের ৪ ডিসেম্বর ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের কুরুক্ষেত্র জেলার শাহাবাদ মারকান্দ গ্রামের এক গরীব পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা কার্ট পুলার হিসাবে কাজ করতেন। তিনি ২০০৩ সালে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক সম্ভাবনাময় উদীয়মান ক্রীড়াবিদের জন্য প্রদত্ত পুরস্কার, দ্রোণাচার্য পুরস্কার প্রাপ্ত হিসাবে শাহাবাদ হকি একাডেমিতে বলদেভ সিংয়ের তত্বাবধায়নে প্রথম হকি প্রশিক্ষণ শুরু করেন।[৩] ভারতের বেসরকারি আর্থিক সহায়তাকরী প্রতিষ্ঠান গোস্পোর্ট ফাউন্ডেশন শুরু থেকে আজও পর্যন্ত তার স্বপ্ন পুরনে তাকে ও তার পরিবারকে আর্থিক ও অনার্থিক সহোযোগীতা ও সমর্থন করে চলেছে।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

রাণী ২০০৯ সালের জুন মাসে রাশিয়ার কাজানে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়নস চ্যালেঞ্জ টুনারমেন্টে ভারত জাতীয় দলের হয়ে অংশগ্রহন করে এবং তারা ৪ গোলে বিজয়ী হয়। এখানে তার অর্জন ছিল সর্বোচ্চ গোল স্কোরকারী এবং টুনার্মেন্টের সবচেয়ে কমবয়সী খেলোয়াড়ের খেতাব।[৫]

তিনি ২০০৯ সালের নভেম্বর মাসে এশিয়া কাপে ভারত জাতীয় দলের জন্য রৌপ্য পদক জিতেন। ২০১০ কমনওয়েলথ গেমস ও ২০১০ এশিয়ান গেমসে ভারতীয় জাতীয় দলের হয়ে খেলার পর রাণী ২০১০ সালের এফআইএইচ মহিলা অল স্টার্স দলে যুক্ত হন। এছাড়াও তিনি গুয়াঞ্জুতে অনুষ্ঠিত ২০১০ এশিয়ান গেমসে এশিয়ান হকি ফেডারেশনের অল স্টার্স দলে যুক্ত ছিলেন, যেখানে ভারতীয় দল চতুর্থ স্থানে সমাপ্ত করেছিল।

আর্জেন্টিনার রোসারিও শহরে অনুষ্ঠিত ২০১০ মহিলা হকি বিশ্ব কাপে রাণী ভারতের হয়ে ৭টি গোল করেন, যার ফলে ভারত মহিলা বিশ্ব র্যাঙ্কিংয়ে ৯ম স্থানে উঠে। এটি ছিল ১৯৭৮ সালের পরে ভারতের সবচেয়ে সেরা পারফরমেন্স। তিনি একমাত্র ভারতীয়, যে এফআইএইচ বর্ষসেরা মহিলা যুব খেলোয়াড় পুরস্কার, ২০১০ এর জন্য মনোনীত হয়েছিলেন। ২০১০ মহিলা হকি বিশ্ব কাপে সর্বাধিক ফিল্ড গোল স্কোরের জন্য তিনি টুর্নামেন্টের সেরা যুব খেলোয়াড় পুরস্কার পান।[৬]

এছাড়া রাণী রামপাল ২০১৩ জুনিয়র হকি বিশ্বকাপে টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন, যাতে ভারত হকি দল ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিল।[৭] তিনি ২০১৪ এফআইসিসিআই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন।[৮] রাণী ২০১৬ রিও অলিম্পিকে ফিল্ড হকি প্রতিযোগিতায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য ভারতীয় দলের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Rani Rampal"। The Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০১-২৬ 
  2. "Rani Rampal profile"। BBC। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০১-২৬ 
  3. "Haryana cart-puller's daughter is hockey's shining young star"The Indian Express। ৬ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৩ 
  4. "Rani named best young player at Women's Hockey World Cup"। The Times of India। ২০১০-০৯-১৩। 
  5. http://www.fih.ch/en/fih/awards/allstar/
  6. "Rani Rampal Wins 'Young Player of the Tournament'"। Sportstrack। ২০১০-০৯-১৫। 
  7. "India Eves Claim Historic Bronze Medal In The FIH Junior Women Hockey World Cup 2013"Hockey India। ৫ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৩ 
  8. "FICCI announces the Winners of India Sports Awards for 2014"IANS। news.biharprabha.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  9. "Indian women hockey team bags 2016 Rio Olympic berth"The Times of India। ২৯ আগস্ট ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ [সম্পাদনা]