রাওধা আতিফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাওধা আতিফ
রাওধা আতিফ.jpg
জন্ম
জাতীয়তামালদ্বীপ
পেশামডেল অভিনেত্রী
উচ্চতা৫ ফুট ৩ ইঞ্চি (১.৬০ মিটার)
পিতা-মাতা
  • মোহাম্মদ আতিফ (পিতা)

রাওধা আতিফ (১৮ মে ১৯৯৬ - ২৯ মার্চ ২০১৭) মালদ্বীপের একজন মডেল অভিনেত্রী এবং রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের ছাত্রী ছিলেন। যিনি রাজশাহীতে আত্মহত্যা করে মারা যান।[১][২][৩]

শিক্ষা ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

রাওধা মালদ্বীপের হিরিয়া স্কুল এবং ভিলা আন্তর্জাতিক উচ্চবিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তিনি ১৪ বছর বয়সে মালদ্বীপের জাতীয় টেলিভিশনে পরিবেশ বিষক প্রচারণার মডেল ছিলেন।[৪] মালদ্বীপের ফটোগ্রাফারের ফটোশুটে অংশ নিয়ে ২০১৪ সালে মালদ্বীপে পরিচিত হন। [৪] অক্টোবর ২০১৬-এ তিনি ভোগ (ম্যাগাজিন) প্রচ্ছদে তার চিত্র প্রকাশ পায়। তিনি বাংলাদেশের রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজে চিকিৎসা বিজ্ঞানে পড়শোনা করেন।[৫] তিনি মালদ্বীপের উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে বৃত্তি পেয়েছিলেন। [৬]

মৃত্যু ও বিতর্ক[সম্পাদনা]

২৯ মার্চ ২০১৭ তারিখে রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের আবাসিক হলের একটি কক্ষে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়।[৩] তার মৃতদেহ সহপাঠিরা প্রথম দেখতে পায় হয়। [৭] রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার মৃতদেহের ময়না তদন্ত হয় । তার পিতা ও মালদ্বীপ দূতাবাস এ তদন্তে সম্মতি দেয়। [৮] তার পরিবার অভিযোগ করেছে যে চরমপন্থীগোষ্ঠি তাকে "ইসলামী পোশাক পরিধান করতে অস্বীকার করার" জন্যে হত্যা করেছিল। [৫] তবে তিনজন চিকিৎসক ময়নাতদন্ত শেষে বলেছেন রাওধা আত্মহত্যা করেছেন। তার মৃত্যু প্রাথমিকভাবে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ, তদন্তকারী মালদ্বীপ পুলিশ সেবা দলের দ্বারা তদন্ত করা হয়। [৬] তাকে রাজশাহীর হেতেমখা কবরস্থানে দাফন করা হয়। তার জানাযা ও দাফনের সময় পরিবারের সদস্যরাসহ মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত এশথে শান শাকির উপস্থিত ছিলেন। [৯]

রাওধার বাবা মোহাম্মদ আতিফও একজন ডাক্তার, তিনি এ মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলতে অস্বীকার করে।[১০] তিনি এ মৃত্যুর ঘটনায় কাশ্মিরের ছাত্র ও তার রুমমেট সিরাত পারভিনের বিরুদ্ধে ১০ এপ্রিল ২০১৭ সালে একটি মামলা দায়ের করেন। [১১] ২৪ এপ্রিল ২০১৭ তারিখে তার দেহটি দ্বিতীয় তদন্ত সংস্থা সিআইডি কাছে হস্তান্তর করা হয়। [১২] সিআইডি তদন্ত বিভাগের তদন্ত অনুযায়ী রাওধা আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রমাণ মিলে।[১৩][১৪] অস্ট্রেলিয়ায় ৬০ মিনিটস এ মৃত্যুর তদন্ত করে জানায় এতে অসাধুতা জড়িয়ে থাকতে পারে। [১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The family of a model who was found dead in a hostel in Bangladesh believe she was murdered"The Independent। ১৬ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  2. "Classmate sued over Maldivian model killing"প্রথম আলো (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  3. "Bangladesh police overrules model raudha athif's demise as murder"Avas.mv। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  4. "Maldives model found dead in Rajshahi hostel"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ মার্চ ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  5. "Vogue cover model, Raudha Athif allegedly murdered for refusing to wear Islamic clothing"Houston Chronicle। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  6. "Vogue model 'murdered over wrong clothes'"NewsComAu। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  7. "Vogue model, 20, who became a medical student commits suicide in her uni halls"The Sun (ইংরেজি ভাষায়)। ৩১ মার্চ ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  8. "Autopsy performed on Maldivian model Raudha Athif"dhakatribune.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১১-০৭ 
  9. "Raudha buried in Rajshahi town"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  10. "Death of Maldivian model: Father rejects CID findings"dhakatribune.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  11. "Maldivian model, medical student Raudha killed herself: CID"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  12. "Probe finds Raudha was not murdered"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  13. "মডেল রাওধা আত্মহত্যাই করেন"কালের কণ্ঠ। ৩০ মে ২০১৯। 
  14. "Raudha committed suicide, says CID"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  15. "60 Minutes team forced out of Bangladesh while investigating model's alleged murder"9news.com.au। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭