রহস্যকাহিনী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মিস্ট্রি, ১৯৩৪ সালের রহস্যকাহিনী সাময়িকীর প্রচ্ছদ

রহস্যকাহিনী একটি সাহিত্যবর্গ যেটাতে কোনো রহস্যময় খুন বা অপরাধের সমাধান করা হয়। এটি সাহিত্যের অপেক্ষাকৃত নতুন শাখা। রহস্যকাহিনী কখনো কখনো গোয়েন্দা কাহিনীতে রূপ নিতে পারে, তবে এটি প্রায়শই "হার্ড-বয়েলড" গল্পের তীব্র বাস্তবতা ও মারামারির বিপরীতে রহস্যময় অথচ যৌক্তিক জগৎ উপস্থাপন করে।

সূচনা[সম্পাদনা]

সাহিত্যে অপেক্ষাকৃত নতুন শাখা এই রহস্যকাহিনীর ধারা গড়ে উঠেছে গত ২০০ বছর ধরে। ইংরেজ রেনেসাঁর সময় স্বাক্ষরতা বেড়ে যায়, লোকে বই পড়া শুরু করে আর ফলে তারা তাদের চিন্তাভাবনায় ক্রমশ ব্যক্তিবাদী হয়ে ওঠে। এই চিন্তাধারায় তারা যুক্তিকে সম্মান করতে শেখে এবং সক্ষম হয় সমস্যার সমাধান করতে।[১][২]

১৮০০-র পূর্বে রহস্যকাহিনীর না থাকার সম্ভাব্য একটি কারণ হলো প্রকৃত পুলিশ বাহিনীর অভাব। শিল্পবিপ্লবের আগে বহু শহরেই নিরাপত্তার জন্যে কনস্টেবল ও নৈশপ্রহরী ছাড়া কেউ থাকত না। স্বাভাবিকভাবেই, কনস্টেবলটি শহরের প্রত্যেককে ব্যক্তিগতভাবে চিনত। তাই যেকোন অপরাধই হয় দ্রুত সমাধান হতো নইলে কখনোই হতো না। যেহেতু শিল্পায়নের ফলে লোকেরা শহরে এসে ভিড় করতে থাকলো, পুলিশও প্রাতিষ্ঠানিক রূপ নিলো; প্রয়োজন পড়লো প্রাইভেট ডিটেকটিভের, আর এভাবেই সৃষ্টি হলো রহস্য উপন্যাস।[৩]

শ্রেণীবিভাগ[সম্পাদনা]

রহস্যকাহিনীকে বিভিন্ন শ্রেণীতে ভাগ করা যায়: "প্রথাগত রহস্য", "আইনী থ্রিলার", "মেডিক্যাল থ্রিলার", "কোজি মিস্ট্রি", "পুলিশী তদন্ত", "হার্ড-বয়েলড" ইত্যাদি।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "A Short History of the Mystery" [অকার্যকর সংযোগ]
  2. "Mystery Time Line" 
  3. Gilber, Elliot (১৯৮৩)। The World of Mystery Fiction। Bowling Green, OH: Bowling Green State University Popular Press। আইএসবিএন 0-87972-225-8 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]