ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড
ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ডস
ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড এর সবুজ লোগো.png
আরও যে নামে পরিচিতবর্ন সার্ভাইভর: বিয়ার গ্রাইল্স
আলটিমেট সার্ভাইভাল
ফরম্যাটএ্যাডভেঞ্চার
রিয়েলিটি
বিদেশে
সার্ভাইভাল
অভিনয়েবিয়ার গ্রিলস
বর্ণনাকারীবিয়ার গ্রিলস
মৌসুম সংখ্যা
পর্বসংখ্যা৭৬ (বিশেষ পর্ব সহ) (পর্বের সংখ্যা)
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকাল৪৫ মিনিট
প্রোডাকশন কোম্পানিডিভার্স প্রোডাকসন্স
পরিবেশকডিসকভারি কমিউনিকেশনস
সম্প্রচার
মূল চ্যানেলডিসকভারি চ্যানেল
মূল প্রদর্শনী১০ মার্চ ২০০৬ (2006-03-10) – ২৯ নভেম্বর ২০১১ (2011-11-29)

ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড,[১] আরও বলা হয় বর্ন সার্ভাইভর: বিয়ার গ্রাইল্স,[২] আল্টিমেট সার্ভাইভাল,[৩][৪] সার্ভাইবাল গেম,[৫] অথবা কথ্য হিসাবে কেবল বিয়ার গ্রাইল্স ইন দ্য ইউনাইটেড কিংডম হল একটি টেলিভিশন ধারাবাহিক সারভাইভাল সিরিজ, যেটির সঞ্চালনা করেন বিয়ার গ্রিলস| এটি প্রথমে চ্যানেল ৪ এ বর্ন সারভাইভর শিরোনামে সম্প্রচারিত হত| পরবর্তীতে ডিসকভারি চ্যানেল যুক্তরাজ্য শাখা এর সম্প্রচার স্বত্ব ক্রয় করে নেয়|

পটভুমি[সম্পাদনা]

সিরিজটির প্রতিটি এপিসোডে বেয়ার গ্রিলস কোন এক দুর্গম বন্য এলাকায় অভিযানে বের হন।শুরুতেই দেখানো হয় হেলিকপ্টার বা অন্য কোন উড়ন্ত বা অন্য যে কোন বাহন দ্বারা তাকে এবং তার শ্যুটিং টিমকে নির্ধারিত স্থানে নামিয়ে দেয়া হয়। শ্যুটিং টিম তার বেঁচে থাকার বিভিন্ন কলাকৌশল ও লোকালয়ে পৌছানোর তথ্যবহুল দৃশ্যাবলি ধারণ করে। প্রায় প্রতিটি পর্বেই বিয়ার গ্রিলস এক দিন ও এক রাতের সময় ব্যয় করেন। তবে কিছু পর্বে তিনি লোকালয়েও সারভাইভাল অভিযান প্রদর্শন করেন।

পর্বসমূহ[সম্পাদনা]

মৌসুম পর্ব মৌসুমের প্রথম অভিনয় মৌসুমের শেষ অভিনয়
মৌসুম ১ ১৫ মার্চ ১০, ২০০৬ জুলাই ২০, ২০০৭
মৌসুম ২ ১৩ সেপ্টেম্বর ১১, ২০০৭ জুন ৬, ২০০৮
মৌসুম ৩ ১০ আগষ্ট ৬, ২০০৮ জুন ২, ২০০৯
মৌসুম ৪ ১১ আগষ্ট ১২, ২০০৯ ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১০
মৌসুম ৫ জুন ১৯, ২০১০ সেপ্টেম্বর ২২, ২০১০
মৌসুম ৬ ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১১ মার্চ ২৪, ২০১১
মৌসুম ৭ জুলাই ১১, ২০১১ নভেম্বর ২৯, ২০১১

নামকরণের আঞ্চলিক ভিন্নতা[সম্পাদনা]

যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং ভারত এই প্রোগ্রামটিকে ম্যান ভার্সেস ওয়াল্ড নামে ডাকা হয়। তবে, অন্যান্য দেশে এটিকে অপর ভিন্ন ভিন্ন নামে নামকরণ করা হয়েছে। যেমন : যুক্তরাজ্যের ডিসকভারি চ্যানেলে এটিকে বর্ন সারভাইভর: বিয়ার গ্রিলস নামে নামকরণ করা হয়েছে। এছাড়া একই নামে যুক্তরাজ্য থেকেও বিয়ার গ্রিলসের জীবনীভিত্তিক বই প্রকাশিত হয়েছে। মূলত এ সবগুলো সংস্করণই মুল ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ডের ক্ষুদ্র পরিবর্তিত সংস্করণ। ক্ষুদ্র পরিবর্তনটি সাধিত হয়েছে সংস্করণের শিরোনাম এনিমেশনে এবং বিয়ার গ্রিলসের নিজ কন্ঠে বলা ভূমিকা উপস্থাপনায়। এই দুটি বিষয় ছাড়া মোটামুটি অনুষ্ঠানের প্রায় সকল মৌলিক বিষয় সবগুলো সংস্করণেই অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে।

সমালোচনা[সম্পাদনা]

বিখ্যাত এই সিরিজটির বিরুদ্ধে বহুবার অসংখ্য প্রতারণার অভিযোগ ওঠে। এর মধ্যে বেশ কিছু পর্বে একলা থাকার কথা বলে ক্যাম্প ইন্সট্রাক্টর সঙ্গে রাখা, দৃশ্যের প্রয়োজনে নিকটবর্তী এলাকা থেকে পশু ভাড়া করে আনা এবং ক্যামেরায় বণ্য জন্তু বলে মিথ্যাচার করা, বেয়ার গ্রিলস একটি অর্ধমৃত আগ্নেয়গিরির গিরিমুখে থাকা অবস্থায় কয়লা ও তেলের দ্বারা নকল ধোয়া তৈরি করা যাকে ক্যামেরার সামনে বিষাক্ত সালফার ডাই অক্সাইড হিসেবে বর্ননা করা হয়, এরকম আরও অসংখ্য অভিযোগ আসতে থাকে। পরবর্তীতে ডিসকভারি চ্যানেলচ্যানেল ফোর অভিযোগ মেনে নেয় এবং পুনরায় এডিট করে কিছু পর্ব সম্প্রচার করে এবং ডিভিডি রিলিজ দেয় যাতে বলা হয়, দর্শকদের শেখার জন্য এই কৌশলগুলো গ্রহণ করা হয়েছে। এতদস্বত্ত্বেও তারা বেশ কিছু পর্বে আর সংশোধন করে নি এবং পূর্বের অবস্থাতেই প্রচার চালিয়ে গিয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Bear Grylls' Official Site: Latest News"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৭-০১...the last series of Man Vs Wild/Born Survivor... 
  2. "Born Survivor: Bear Grylls – Discovery Channel"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৭-০১ 
  3. "Ultimate Survival: Discovery Channel" (Dutch ভাষায়)। ২০০৮-০৬-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৭-০১ 
  4. "TV Schedule: Discovery Channel – Ultimate Survival/Man vs. Wild" (Dutch/English ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৭-০১ 
  5. "ディスカバリーチャンネル"। ২০১১-০৬-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৬-২৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]