মোহাম্মদ আব্দুল হক (অনু)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মোহাম্মদ আব্দুল হক (অনু)
Mohammad Abdul Haque (Anu) (10).jpg
জন্ম (1975-02-15) ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৫ (বয়স ৪৪)
বাসস্থানঢাকা
জাতীয়তাবাংলাদেশী
জাতিসত্তাবাঙালি
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
যেখানের শিক্ষার্থীশান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি
পেশাসাংবাদিকতা
পরিচিতির কারণসাংবাদিক
অফিসকমপিউটার জগৎ
দাম্পত্য সঙ্গীসায়মা ইসরাইল হক
সন্তানজারতাজ হক সিমরা
পুরস্কারজাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পুরস্কার, ২০১৬

মোহাম্মদ আব্দুল হক (অনু) (১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৫) বাংলাদেশের একজন সাংবাদিক। তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদানের জন্য তিনি জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পুরস্কার ২০১৬ পেয়েছেন। [১]

জন্ম ও পারিবারিক পরিচয়[সম্পাদনা]

আব্দুল হক (অনু)’র জন্ম ১৯৭৫ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকার জেলার লালবাগে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আব্দুল হাই এবং মায়ের নাম সাবেরা খাতুন। তার এক ভাই এবং এক বোন।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

ওয়েস্ট অ্যান্ড হাই স্কুল থেকে ১৯৯১ সালে এসএসসি, ১৯৯৩ সালে ঢাকার রাইফেলস পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন অনু। পরবর্তীতে শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন তিনি। এছাড়া তিনি ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড লিগ্যাল এইড বিষয়ে ডিপ্লোমা ডিগ্রি অর্জন করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৯২ সালে ১৩ জুলাই থেকে বাংলা ভাষায় সর্বাধিক প্রচারিত তথ্য প্রযুক্তি ম্যাগাজিন কমপিউটার জগৎ এ কাজ শুরু করেন অনু। বর্তমানে এ পত্রিকায় নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। [২]

সাংবাদিক সংগঠন[সম্পাদনা]

অনু তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরামের মহাসচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন।[৩][৪]

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

অনু’র স্ত্রীর নাম সায়মা ইসরাইল হক। এ দম্পতির একমাত্র সন্তান জারতাজ হক সিমরা।

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]