মোঁসোরো প্রাসাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মোঁসোরো প্রাসাদ
Château de Montsoreau
Chateau de Montsoreau Museum of contemporary art Loire Valley France.jpg
মোঁসোরো প্রাসাদ ফ্রান্স-এ অবস্থিত
মোঁসোরো প্রাসাদ
মোঁসোরো প্রাসাদ, লোয়ার ভ্যালি.
সাধারণ তথ্য
অবস্থাশিল্পকলা জাদুঘর
স্থাপত্য রীতিরেনেসাঁ
অবস্থানমোঁসোরো
 ফ্রান্স
ঠিকানাChâteau de Montsoreau
49730 Montsoreau
France
স্থানাঙ্ক৪৭°১২′৫৬″ উত্তর ০০°০৩′৪৪″ পূর্ব / ৪৭.২১৫৫৬° উত্তর ০.০৬২২২° পূর্ব / 47.21556; 0.06222স্থানাঙ্ক: ৪৭°১২′৫৬″ উত্তর ০০°০৩′৪৪″ পূর্ব / ৪৭.২১৫৫৬° উত্তর ০.০৬২২২° পূর্ব / 47.21556; 0.06222
বর্তমান দায়িত্বফিলিপ মায়া
ফরাসি: Philippe Méaille ; হিন্দি: फिलिप मेाहाय
নির্মাণ শুরু হয়েছে১৪৪৩
সম্পূর্ণ১৫১৫
উচ্চতা৪৫ মি (১৪৭ ফুট)
নকশা এবং নির্মাণ
স্থপতিUnknown
ওয়েবসাইট
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট (ইংরেজি)
প্রাতিষ্ঠানিক নামসুলি-সুর-লোয়ার এবং চালোনেস এর মধ্যে লোয়ার ভ্যালি
ইংরেজি: The Loire Valley between Sully-sur-Loire and Chalonnes
ধরনসাংস্কৃতিক
মানকi, ii, vi
অন্তর্ভুক্তির তারিখ২০০০ (২৪ম সেশন)
রেফারেন্স নং৯৩৩
রাষ্ট্র ফ্রান্স
অঞ্চলইউরোপ

মোঁসোরো প্রাসাদ (ফরাসি: Château de Montsoreau ; হিন্দি: मोंसोरो महल) প্যারিস থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে পশ্চিম ফ্রান্সের মোঁসোরো শহরের লোয়ার উপত্যকায় অবস্থিত একটি রেনেসাঁ প্রাসাদ।[১][২][৩] লোয়ার নদীর বিছানায় নির্মিত লোয়ার ভ্যালি প্রাসাদের মধ্যে এটিই একমাত্র।[৪] ফরাসী সমকালীন শিল্পকলা সংগ্রাহক ফিলিপ মায়ালের (ফরাসি: Philippe Méaille) প্রতিষ্ঠিত সমকালীন শিল্পকলা জাদুঘর - মোঁসোরো প্রাসাদ হোস্ট করছেন মোঁসোরো প্রাসাদ।[৫] সমকালীন শিল্পকলা জাদুঘর - মোঁসোরো প্রাসাদ বিশ্বের থেকে ধারণাগত শিল্পীদের শিল্পকল এবং ভাষ (ইংরেজি: Art & Language) সবচেয়ে বড়  সংগ্রহ  রয়েছে।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Centre, UNESCO World Heritage। "The Loire Valley between Sully-sur-Loire and Chalonnes"UNESCO World Heritage Centre (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৩ 
  2. "Past, Present and Future at Château de Montsoreau"www.mutualart.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৩ 
  3. "Château de Montsoreau"www.pop.culture.gouv.fr। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৩ 
  4. https://www.valdeloire.org/Connaitre/Au-fil-de-l-histoire/Le-Val-de-Loire-siege-du-pouvoir-royal/Charles-VII-et-Louis-XI
  5. "Everybody Talks About Collecting with Their Eyes, Not Their Ears; Few Do It Like Philippe Meaille"Art Market Monitor (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-০৯-২২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৩ 
  6. "Largest Art & Language Collection Finds Home"artnet News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৬-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]