বিষয়বস্তুতে চলুন

মালদ্বীপের সাংবিধানিক গণভোট, ১৯৫২

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

১৯৫২ সালের ১৭ এবং ১৮ এপ্রিল মালদ্বীপে একটি সাংবিধানিক গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নতুন সংবিধান দেশকে রাজতন্ত্র থেকে প্রজাতন্ত্রে রূপান্তরিত করবে।

পটভূমি[সম্পাদনা]

১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি সুলতান আবদুল মজিদ দিদির মৃত্যুর পর দেশটির সংসদ সদস্যরা মোহাম্মদ আমিন দিদিকে পরবর্তী সুলতান হিসেবে বেছে নেন। তবে তিনি বলেছিলেন যে "মালদ্বীপের জনগণের স্বার্থে আমি মুকুট এবং সিংহাসন গ্রহণ করব না"।

গণ মজলিস ১৩ এপ্রিল দেশের ভবিষ্যত শাসন কাঠামো নির্ধারণের জন্য আমিন দিদিকে চেয়ারম্যান করে একটি কমিশন গঠনের জন্য ভোট দেয়। অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে ছিলেন ফামুলাদেইরি কালেগেফান, প্রধান বিচারপতি আবদুল্লাহ জালালুদিন, মজলিস স্পিকার মালিম মুসা মাফাই কিলেগেফান, ডেপুটি ওয়াজিরুল-আউজম ইব্রাহিম মোহাম্মদ দিদি, কোলহুমাডুলু অ্যাটলের এমপি ইব্রাহিম শিহাব, গালোহুর এমপি বুচা হাসান কালিগেফান এবং ফাদিপল্লে অ্যাটলের প্রধান কানা কালিগেফান[১] ১৬ এপ্রিল গণ মজলিস একটি প্রজাতন্ত্র গঠনের কমিশনের সিদ্ধান্তকে নিশ্চিত করে এবং পরবর্তী দুই দিনের মধ্যে একটি নতুন সংবিধানের উপর গণভোট আয়োজন করে। যাইহোক গণভোট শুধুমাত্র মালেতে অনুষ্ঠিত হবে।[১]

ফলাফল[সম্পাদনা]

১৮ এপ্রিল বিকাল ৪টায় গণভোটের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছিল।[১] একটি বৃহৎ সংখ্যাগরিষ্ঠ পক্ষে ভোট দেয় এবং নতুন সংবিধান ১৯৫৩ সালের ১ জানুয়ারী কার্যকর হয়। একটি নির্বাচনে প্রায় ৯৬% ভোট পেয়ে জয়ী হয়ে দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি হন দিদি।[২] যাইহোক সে বছর ২১ আগস্ট তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়। একই মাসে একটি গণভোটের পর দেশটি ৭ মার্চ ১৯৫৪ সালে মুহম্মদ ফরিদ দিদি সুলতান হিসেবে রাজতন্ত্রের মর্যাদায় ফিরে আসে।[৩]

১৯৬৮ সালে এই বিষয়ে তৃতীয় গণভোট অনুষ্ঠিত হয় যার ফলে দেশটি দ্বিতীয়বারের মতো প্রজাতন্ত্রে পরিণত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ameen's Republic Maldives Culture
  2. Hassan Amir Islamism and radicalism in the Maldives ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৬ মার্চ ২০১৪ তারিখে Monterey, California. Naval Postgraduate School
  3. The Constitution ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০০৮-০৫-১১ তারিখে The President's Office