মঙ্গলা বানসোডে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মঙ্গলা বানসোডে
জন্ম (1954-01-26) ২৬ জানুয়ারি ১৯৫৪ (বয়স ৬৭)
জাতীয়তাভারতীয়
পরিচিতির কারণতামাশা শিল্পী
দাম্পত্য সঙ্গীরামচন্দ্র বানসোডে
পুরস্কারবিঠাবাই নারায়ণগাঁওকর আজীবন অর্জন সম্মাননা পুরস্কার,
আনা ভাই সাঠা পুরস্কার
ওয়েবসাইটmangalabansode.com

মঙ্গলা বানসোডে হলেন মহারাষ্ট্র রাজ্যের একজন ভারতীয় তামাশা লোকশিল্পী এবং তিনি বিঠাবাই নারায়ণগাঁওকরের কন্যা।[১] তিনি মহারাষ্ট্র সরকার কর্তৃক প্রদত্ত বিঠাবাই নারায়ণগাঁওকর আজীবন অর্জন সম্মাননা পুরস্কার জিতেছেন।[২] তিনি নিজের ছেলে নিতিনের সাথে কাজ করেন, যিনি এই শৈলীতে তাঁর পরিবারের পঞ্চম প্রজন্ম।[৩] বলা হয়ে থাকে যে তিনি মহারাষ্ট্রের তামাশা গোষ্ঠীর একমাত্র মহিলা মালিক।[১] তিনি কারাদের নিকটবর্তী কারাওয়াড়ি গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর গোষ্ঠীতে ১৫০ জন মানুষ কাজ করে।[৪]

কাহিনী[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের জানুয়ারিতে গোয়া লোকোৎসবে অভিনয়ের ঠিক আগে,[৫] তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে একটি গুজব ছড়িয়েছিল। এর ফলে তিনি অনুষ্ঠান বন্ধ করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে বাধ্য হয়েছিলেন।[৬] ২০১৩ মরসুমে তাঁর গোষ্ঠী নারায়ণগাঁওয়ের তামাশা মেলায় সকলের মধ্যে বৃহত্তম অগ্রিম অর্থ অর্জন করেছিল।[৭] বলা হয় যে বানসোডের নাতনি, যিনি নিজে একজন ডাক্তার, তিনি তাঁর ঠাকুমার পেশা থেকে নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে নিয়েছিলেন। নিজের বৈবাহিক পরিস্থিতির উন্নতিকল্পে তিনি এই কাজ করেছিলেন। কিন্তু মঙ্গলা চেয়েছিলেন, তাঁর নিজের এই নাতনী সায়ালি, যে তাঁর পুত্র নিতিনের মেয়ে, যেন ষষ্ঠ প্রজন্মের প্রতিভূ হয়ে এই অভিনয় শিল্পে আসে।[৩][৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Faleiro, Sonia। "The Other India: Mangalaji's Tamasha Party"India Ink। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  2. "Lata Mangeshkar Award for LifetimonAchievement announced for Krishna Kalle"India.com। ২০১৪-০৮-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  3. Abp Majha (২০১৬-০৯-০৮), माझा कट्टा: लावणी सम्राज्ञी मंगला बनसोडे, সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  4. "Pune: Tamasha groups feel the heat of drought as bookings dip by 40%"The Indian Express। ২০১৬-০৪-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  5. "Goa's Lokotsav becoming India's biggest Folk and Craft Fest"Goa News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  6. "मी ठणठणीत आहे, हितशत्रुंनी माझ्या मृत्यूची अफवा पसरवली - मंगला बनसोडे"Eenadu English Portal। ২০১৬-১২-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  7. "तमाशा पंढरीत झाली २ कोटींची उलाढाल -Maharashtra Times"Maharashtra Times। ২০১৩-০৪-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮ 
  8. "The last act"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১২-১৮