মইন উদ্দীন আহমদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মইন উদ্দীন আহমদ
মইন উদ্দীন আহমদ.jpg
রাজশাহী-১ আসনের সাংসদ
কাজের মেয়াদ
১৯৭৩ – ১৯৭৫
পূর্বসূরীশুরু স্বাধীনতা লাভ
উত্তরসূরীশাহজাহান মিয়া
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ
কাজের মেয়াদ
১৯৮৬ – ১৯৮৮
পূর্বসূরীশাহজাহান মিয়া
উত্তরসূরীমাহবুবুল আলম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১ নভেম্বর ১৯৩৬
শিবগঞ্জ, ব্রিটিশ ভারত
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু২ সেপ্টেম্বর ২০১১
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
সন্তানসামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল
প্রাক্তন শিক্ষার্থীস্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ
ডাকনামমন্টু ডাক্তার

ডাঃ মইন উদ্দীন আহমদ (১ নভেম্বর ১৯৩৬-২ সেপ্টেম্বর ২০১১) যিনি মন্টু ডাক্তার নামে সর্বাধিক পরিচিত।[১] বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার রাজনীতিবিদ, মুক্তিযোদ্ধা ও চিকিৎসক ছিলেন। তিনি রাজশাহী-১চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ উপজেলা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য[২][৩]

জন্ম ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

মইন উদ্দীন আহমদ ১ নভেম্বর ১৯৩৬ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মৃত কালিম উদ্দীন আহমেদ চিকিৎসক ছিলেন ও মাতা মৃত বেগম দেল আফরোজ। তিনি রোকেয়া আহমেদকে বিয়ে করেন। তার ছেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ উপজেলা) আসনের সাংসদ সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল। তিনি স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস অর্জন করে চিকিৎসা পেশায় নিয়োজিত হন।[১]

রাজনৈতিক ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মইন উদ্দীন আহমদ চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ছিলেন ১৯৭৩-১৯৭৭ সাল পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। তিনি ১৯৬৫-১৯৭০ সালে মনাকষা ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৬ সালের ছয়দফা, ১৯৬৯ সালের অসহোযোগ আন্দোলন, গণঅভ্যুত্থান, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তিনি সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। তিনি ২২ নভেম্বর ১৯৭১ সাল পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধের ৭নং সেক্টরের মোহদীপুর সাব-সেক্টরের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ছিলেন শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান।[১]

তিনি ১৯৭০ সালে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য ও ১৯৭১-১৯৭২ সালে গণপরিষদ সদস্য ছিলেন।[১] ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে তিনি তৎকালীন রাজশাহী-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[২] ১৯৭৯ সালের দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী হয়ে অংশগ্রহণ করে পরাজিত হন। ১৯৮৫ সালে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৮৬ সালের তৃতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ উপজেলা) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৩]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

মইন উদ্দীন আহমদ ২ সেপ্টেম্বর ২০১১ সালে মৃত্যুবরণ করেন।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ১৬ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "১ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "৩য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "মইনুদ্দীন আহম্মেদ মন্টু ডাক্তার, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ইতিহাসে একটি ঐতিহাসিক একটি নাম"ajkerbangladeshnews24.com। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। ১৬ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০২০