ভারতীয় শকুন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ভারতীয় শকুন
Indian vulture on cliff.jpg
Indian vulture
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Aves
বর্গ: Accipitriformes
পরিবার: Accipitridae
গণ: Gyps
প্রজাতি: G. indicus
দ্বিপদী নাম
Gyps indicus
(Scopoli, 1786)
প্রতিশব্দ

Gyps indicus indicus

ভারতীয় শকুন (Gyps indicus) বিশ্বের অতি প্রাচীন শকুনের একটি প্রজাতি, যা প্রধানত ভারত, পাকিস্তাননেপালে দেখা যায়। এদের সংখ্যা ক্রমশ কমে আসায় ২০০২ সালে আইইউসিএন মহাবিপন্ন হিসাবে চিহ্নিত করে এদের আইইউসিএন-এর লাল তালিকাভুক্ত করে। ডাইক্লোফেনাক বিষক্রিয়ায় রেচনজনিত ব্যর্থতার ফলে ভারতীয় শকুনের মৃত্যু ঘটছে।[১]

বিবরণ[সম্পাদনা]

দীর্ঘ চঞ্চুযুক্ত এই শকুনেরা মাঝারি আকারের ও ভারী প্রকৃতির হয়। এদের পালক দ্বারা আবৃত দেহ ধূসর, ফ্যাকাসে ও পালকের শক্ত অংশ গাঢ় বর্ণের হয়ে থাকে। এদের ডানা প্রশস্ত ও লেজ ছোট। এদের মাথা ও গলা পালকহীন ও চঞ্চু অধিকতর লম্বা।[২]

এরা ৮০-১০৩ সেমি (৩১-৪১ ইঞ্চি) লম্বা ও এদের ডানা ১.৯৬-২.৩৮ মি. (৬.৪-৭.৮ ফিট) হয়ে থাকে। এরা গ্রীফন শকুনের চেয়ে ছোট ও হালকা হয়।[৩] হালকা বাদামি রঙের পালকাবৃত দেহ দেখে এদের অন্যান্য প্রজাতিদের থেকে আলাদা করে যায়।

আচরণ[সম্পাদনা]

এরা সাধারণত উচ্চ দুরারোহ পাহাড়ে শাবকের জন্ম দেয়, তবে বিভিন্ন সময়ে এরা রাজস্থানের গাছেও বংশবৃদ্ধি করে থাকে। এরা অনেকসময় উচ্চ অট্টালিকায়ও (যেমন- চতুর্ভুজ মন্দির, ওড়ছা) শাবকের জন্ম দিয়ে থাকে। অন্যান্য শকুনের মতো এরাও জনহীন প্রান্তে পরে থাকা মৃত প্রাণীর দেহাবশেষ খেয়ে থাকে। এরা ঝাঁকে ঝাঁকে উড়তে থাকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Gyps indicus"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2016-3প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন। ২০১৬।  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ অবৈধ; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "iucn" নাম একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  2. Ferguson-Lees, J. and Christie, D.A. (2001). Raptors of the world. Houghton Mifflin Harcourt. আইএসবিএন ০-৬১৮-১২৭৬২-৩
  3. "The Peregrine Fund"। The Peregrine Fund। ২০১০-১১-০৩। সংগৃহীত ২০১১-০৫-৩১