বিষয়বস্তুতে চলুন

"লিভ টাইলার" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

+
(+)
(+)
 
২০০৩ সালে টাইলার [[জাতিসংঘ শিশু তহবিল]] (ইউনিসেফ)-এর একজন শুভেচ্ছাদূত। এছাড়াও তিনি গিভেঞ্চি সুগন্ধী ও প্রসাধনীর একজন মুখপাত্র। ২০০৩ সালে তিনি স্পেসহগ ব্যান্ডের সঙ্গীতশিল্পী রয়স্টোন ল্যাংডনকে বিয়ে করেন। ২০০৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর তাঁদের একমাত্র সন্তান মিলোর জন্ম হয়। পরবর্তীতে ২০০৮ সালের মে মাসে এই দম্পতি তাঁদের আলাদা হয়ে যাবার কথা ঘোষণা করেন।
 
== প্রাথমিক জীবন ==
[[নিউ ইয়র্ক সিটি|নিউ ইয়র্ক সিটির]] মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে লিভ টাইলারের জন্ম।<ref name=dob>{{Harv|Buell|Bockris|2002|pp=164}}</ref> তিনি ছিলেন তাঁর বাবা-মায়ের প্রথম কন্যা। টাইলারের মা বেবে বিউয়েল পেশায় ছিলেন একজন মডেল, কণ্ঠশিল্পী। এছাড়া তিনি ছিলেন একজন প্রাক্তন প্লেমেট, এবং টাইলারের বাবা স্টিভ টাইলার ছিলেন অ্যারোস্মিথ ব্যান্ডের একজন সঙ্গীতশিল্পী।<ref name="news au"/> মায়ের ইচ্ছায় নরওয়েজীয় অভিনেত্রী লিভ উলম্যানের নাম অনুসারে তাঁর নাম লিভ টাইলার রাখা হয়। ৫ মার্চ, ১৯৭৭ সালে এক ''টিভি গাইড''-এর সংখ্যায় তাঁর মা লিভ উলম্যানের ছবি দেখতে পান।<ref name="dob"/><ref name="Hello - Bio"/> লিভ টাইলারের তিন জন সৎ ভাই-বোন আছে। তাঁরা হচ্ছে মিয়া টাইলার (জন্ম: ১৯৭৮),<ref name="tyler wedding">{{cite news|url=http://www.foxnews.com/story/0,2933,85696,00.html|title=Liv Tyler's Wedding Makes Her Lady of the Rings|last=Freidman|first=Roger|date=2003-05-01|publisher=[[Fox News Channel|Fox News]]|accessdate=2009-01-09}}</ref> চেলসি অ্যানা ট্যালারিকো (জন্ম: ১৯৮৯), এবং ট্যাজ মনরো ট্যালারিকো (জন্ম: ১৯৯২)।<ref>{{cite news|url=http://www.people.com/people/article/0,,1029919,00.html|title=Steven Tyler and Wife Split After 17 Years|last=Silverman|first=Stephen M.|date=2005-02-21|work=[[People (magazine)|People]]|accessdate=2009-01-09}}</ref> টাইলারের নানী ডরোথি জনসন প্রটোকল স্কুল অফ ওয়াশিংটনের গোড়াপত্তন করেছিলেন।<ref>{{cite news | url = http://www.nytimes.com/2004/11/21/fashion/21AGE.html | title = Manners in the Time of Flu | work = [[The New York Times]] | date = 2004-11-21 | first = Bob | last = Morris | accessdate = 2009-01-13}}</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
২৫,২৭৯টি

সম্পাদনা