বাংলা লজ্জাবতী বানর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

Bengal slow loris[১]
Captive N. bengalensis from Laos with 6-week baby.JPG
সিআইটিইএস অ্যাপেন্ডিক্স I (CITES)[৩]
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস edit
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Mammalia
বর্গ: প্রাইমেট
উপবর্গ: Strepsirrhini
পরিবার: Lorisidae
Genus: Nycticebus
(Lacépède, 1800)
প্রজাতি: N. bengalensis
দ্বিপদী নাম
Nycticebus bengalensis
(Lacépède, 1800)
Bengal Slow Loris area.png
Range of the Bengal slow loris
প্রতিশব্দ[৪][৫]
  • Lori bengalensis Lacépède, 1800
  • Nycticebus cinereus Milne-Edwards, 1867
  • Nycticebus tardigradus typicus Lydekker, 1905
  • Nycticebus tenasserimensis Elliot, 1913
  • Nycticebus incanus Thomas, 1921

লজ্জাবতী বানর[৬] বা বাংলা লজ্জাবতী বানর বা লাজুক বানর (ইংরেজি: Bengal slow loris বা northern slow loris) (বৈজ্ঞানিক নাম:Nycticebus bengalensis) হচ্ছে লরিসিডি পরিবারের একটি বানর প্রজাতি।

অবস্থা[সম্পাদনা]

লজ্জাবতী বানর আইইউসিএন লাল তালিকায় সংকটাপন্ন হিসেবে অন্তর্ভুক্তি ঘটেছে। বাংলাদেশের ১৯৭৪[৭] ও ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-১ অনুযায়ী এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত।[৬]

আবাসস্থল[সম্পাদনা]

লজ্জাবতী বানর গাছের উঁচু শাখায় থাকতে পছন্দ করে। বাংলাদেশে পাহাড়ি চিরসবুজ বনে পাওয়া যায়, তবে আর্দ্র পত্রঝরা বনে থাকার তথ্য রয়েছে।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Groves 2005, পৃ. 122–123।
  2. Nekaris, K.A.I.; Al-Razi, H.; Blair, M.; Das, N.; Ni, Q.; Samun, E.; Streicher, U.; Xue-long, J.; Yongcheng, L. (২০২০)। "Nycticebus bengalensis"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা (ইংরেজি ভাষায়)। আইইউসিএন2020: e.T39758A179045340। ডিওআই:10.2305/IUCN.UK.2020-2.RLTS.T39758A179045340.enঅবাধে প্রবেশযোগ্য। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০২১ 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; CITES নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. Groves 2005, পৃ. 122।
  5. Groves 2001, পৃ. 99।
  6. বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জুলাই ১০, ২০১২, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, পৃষ্ঠা-১১৮৪৯০
  7. জিয়া উদ্দিন আহমেদ (সম্পা.), বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ: স্তন্যপায়ী, খণ্ড: ২৭ (ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি, ২০০৯), পৃ. ১২-১৪।