বাংলাবিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাবিদ
ধরনভাষা প্রতিযোগিতা
পরিচালকতাহের শিপন
উপস্থাপকখাইরুল বাশার
বিচারক
মূল দেশবাংলাদেশ
মূল ভাষাবাংলা
মৌসুমের সংখ্যা
মুক্তি
মূল নেটওয়ার্কচ্যানেল আই
মূল মুক্তির তারিখ৭ জুলাই ২০১৭ (2017-07-07)
বহিঃসংযোগ
ওয়েবসাইট

বাংলাবিদ বা ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ হচ্ছে বাংলা ভাষাভিত্তিক প্রতিযোগিতা। নতুন প্রজন্মকে শুদ্ধ বাংলা জানা, চর্চা ও ব্যবহারে অনুপ্রাণিত করতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে ইস্পাহানি মির্জাপুর। এ প্রতিযোগিতায় শুদ্ধ বাংলা ভাষার ব্যবহার, বানান চর্চা, শুদ্ধ উচ্চারণ, শব্দগঠন, সাহিত্য, ও ব্যাকরণের সঠিক প্রয়োগের মাধ্যমে বিভিন্ন পর্বে বিভিন্ন রাউন্ড শেষে মহোৎসবের জন্য ছয় জন প্রতিযোগী বাছাই করা হয়।অতঃপর মহোৎসবে চূড়ান্ত বিজয়ী নির্ধারণ করা হয়। দেশের আটটি বিভাগের ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থী এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারে।

১ম বর্ষ[সম্পাদনা]

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-২০১৭ হচ্ছে বাংলাবিদের প্রথম বর্ষ। বাংলাবিদের প্রথম বর্ষ শুরু হয় ৭ জুলাই ২০১৭ তারিখে।[১] প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে প্রায় ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী। প্রথম আসরে সেরা বাংলাবিদ নির্বাচিত হন ঢাকার নুসরাত সায়েম। এ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় হন সিরাজুল আরেফিন (সাতক্ষীরা) এবং যৌথভাবে তৃতীয় হয় রাইসা সালসাবিল (সিলেট) ও সোয়েব সানিয়াত খান তুর্য (ঢাকা)। শীর্ষস্থান অধিকারী প্রতিযোগী পুরস্কার হিসেবে ১০ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি পায়। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে দেয়া হয়েছে যথাক্রমে ৩ লাখ টাকা ও ২ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি। এক থেকে দশম স্থান অধিকারী প্রত্যেকে পেয়েছে ৫০ হাজার টাকার সমমূল্যের ১টি করে ল্যাপটপ এবং ব্যক্তিগত লাইব্রেরি গড়ে তোলার জন্য বাংলা বই ও একটি করে বই রাখার আলমারি।

মহোৎসব[সম্পাদনা]

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ ১ম বর্ষের মহোৎসব অনুষ্ঠিত হয় ১৫ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে। ৩৫ হাজার প্রতিযোগী থেকে সর্বশেষ টিকে থাকা ৬ জন প্রতিযোগিকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এ মহোৎসব অনুষ্ঠান। বিজয়ীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ মহোৎসবের অতিথি বিচারক এবং চ্যানেল আই-এর পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ, এম এম ইস্পাহানি লি. এর উপদেষ্টা জাহিদা ইস্পাহানি ও ইস্পাহানি ফুড লি. এর পরিচালক আলী ইস্পাহানি, প্রতিযোগিতার বিচারক ড. সৌমিত্র শেখর দে, সুবর্ণা মুস্তাফা প্রমুখ।[২]

২য় বর্ষ[সম্পাদনা]

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-২০১৮ হচ্ছে বাংলাবিদের দ্বিতীয় বর্ষ। বাংলাবিদের দ্বিতীয় বর্ষ শুরু হয় ৩ আগস্ট ২০১৮ তারিখে। দ্বিতীয় বর্ষের মহোৎসব অনুষ্ঠিত হয় ৫ই অক্টোবর ২০১৮ তারিখে এবং সেরা বাংলাবিদ হয় চট্টগ্রামের দেবস্মিতা সাহা, দ্বিতীয় সেরা বাংলাবিদ হয় কারিন আশরাফ ঈন ও তৃতীয় সেরা বাংলাবিদ হয় সাদিয়া আফরোজ অন্তু।[৩] সেরা দশের বাকি প্রতিযোগিরা হলো ধ্রুব মণ্ডল(৪র্থ), এহসানুল কাদির শান্ত(৫ম), আফিয়া ইবনাত শুচি(৬ষ্ঠ), আবরার বিন কবির(৭ম), তানভীর ইসলাম(৮ম), শ্রাবন্তি সরকার(৯ম) এবং জান্নাতুল বুশরা(১০ম)। এদের মধ্যে ধ্রুব মণ্ডল ৭ম শ্রেণিতে মহোৎসবে অংশগ্রহণ করে, যা এর ৩টি বর্ষের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ। প্রথমস্থান অধিকারী পান ১০ লক্ষ টাকা, দ্বিতীয়স্থান অধিকারি পান ৩ লক্ষ টাকা এবং তৃতীয়স্থান অধিকার পান ২ লক্ষ টাকা।

মহোৎসব[সম্পাদনা]

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ এর দ্বিতীয় বর্ষের মহোৎসবটি অনুষ্ঠিত হয় ০৫ই অক্টোবর ২০১৮ সালে। অনুষ্ঠানটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে চ্যানেল আইয়ে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় রাত ০৯টা ৩৫মিনিটে।

৩য় বর্ষ[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের মার্চ মাস থেকে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ তৃতীয় বর্ষ শুরু হয়। সেরা বাংলাবিদ হন বগুড়ার শাজেদুর রহমান,দ্বিতীয় হন অন্তিকা জান্নাত এবং তৃতীয় অয়ন চক্রবর্তী । ঢাকার প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।[৪] প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারক ছিলেন কথাসাহিত্যিক ও কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক সৌমিত্র শেখর দে ও অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার। অতিথি বিচারক ছিলেন অর্থনীতিবিদ হোসেন জিল্লুর রহমান।

৪র্থ বর্ষ[সম্পাদনা]

২০২০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি চতুর্থ বর্ষ শুরু হয়।তবে করোনার কারণে স্টুডিও রাউন্ডের পূর্বেই বিভাগীয় পর্বের মাঝ পর্যায়ে চতুর্থ বর্ষ স্থগিত করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ শুরু আজ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  2. "বাংলাবিদ-১৭'র চ্যাম্পিয়ন ঢাকার মেয়ে নুসরাত সায়েম"। দৈনিক ইত্তেফাক। ২ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  3. "ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-দ্বিতীয় বর্ষ সবার সেরা দেবস্মিতা সাহা"আনন্দ আলো। ২৩ অক্টোবর ২০১৮। 
  4. প্রতিবেদক, নিজস্ব (১১ অক্টোবর ২০১৯)। "সেরা বাংলাবিদ বগুড়ার শাজেদুর"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২১