ফারুক মঈনউদ্দীন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফারুক মঈনউদ্দীন.jpg

ফারুক মঈনউদ্দীন বাংলাদেশী লেখক,সাংবাদিক ও বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার প্রাপ্ত। [১]

{{Infobox writer | image = | image_size = | alt = | caption = ফারুক মঈনউদ্দীন | pseudonym = | birth_name = | birth_date =১৯৫৮ | birth_place = চট্রগ্রাম | death_date = | death_place = | resting_place = | occupation = লেখক,সাংবাদিক,ব্যাংকার | language = বাংলা | nationality = বাংলাদেশী | ethnicity = | citizenship = | education = | alma_mater = ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় | period = | genre = | subject = | movement = | notableworks = | spouse = | partner = | children = | relatives = | influences = | influenced = | awards = [[বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার] | signature = | signature_alt = | website = | portaldisp = }}

শৈশব ও পড়ালেখা[সম্পাদনা]

১৯৫৮ সালে চট্রগ্রাম এ জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৪ সালে মতিঝিল সরকারি উচ্চ বালক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে চট্টগ্রাম কলেজ থেকে কুমিল্লা বোর্ডের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার মেধা তালিকায় দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন ১৯৭৬ সালে। তারপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতি বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালে এবি ব্যাংকে প্রবেশনারী অফিসার হিসেবে কর্মজীবনে প্রবেশ করেন। ১৯৮৭ সালের ব্যাংকিং ডিপ্লোমা পরীক্ষায় তিনি বাংলাদেশ ব্যাংক এবং অধুনালুপ্ত বিসিসিআই ব্যাংক স্বর্ণপদক লাভ করেন। এছাড়া এবি ব্যাংকে কর্মরত অবস্থায় দেশ-বিদেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এবি ব্যাংকের মুম্বাই অফিসে দীর্ঘ পাঁচ বছর প্রধান নির্বাহী হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে দৈনিক প্রথম অালোতে তাঁর লেখা মুম্বাইর চিঠি নামের নিয়মিত কলামটি অশেষ জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল। এবি ব্যাংকের ডিএমডি পদ থেকে ২০১০ সালে পদত্যাগের পর সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ডিএমডি হিসেবে নিয়োজিত থাকেন। তার পর সিটি ব্যাংকের এএমডি, চীফ রিস্ক অফিসার ও প্রধান মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন ছয় বছর।[৩] ২০১৮ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। [৪]

বইসমুহ[সম্পাদনা]

গল্পগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • বৈরী স্রোত (১৯৯০, পরিবর্ধিত সংস্করণ ২০২০)
  • আত্মহননের প্ররোচনা (কলকাতা ১৯৯৯, প্রথম বাংলাদেশ সংস্করণ ২০১৫)
  • অপরিচয়ের কালবেলা (২০০৯)
  • সেইসব শেয়ালেরা (২০১৮)

ভ্রমণ কাহিনি[সম্পাদনা]

  • মোহিনী মুম্বাই (২০০৫, পরিমার্জিত সংস্করণ ২০১৯)
  • নির্ঘুম নিউইয়র্ক (২০০৬)
  • কেনিয়ান সাফারি: মাসাই মারার প্রান্তরে (২০০৮)
  • সিংহল সমুদ্র থেকে মালয় সাগরে (২০১০)
  • সীমান্তহীন ইউরোপের প্রান্তদেশে (২০১৬)
  • বিশ্বজোড়া অনন্ত অঙ্গনে (২০১৭)
  • সুদূরের অদূর দুয়ার (২০১৯)
  • মরু গুহা ও দ্বীপের গল্প (২০২১)

অনুবাদ[সম্পাদনা]

  • শিকার: কেনজাবুরো ওয়ে (১৯৯৫)
  • আর্নেস্ট হেমিংওয়ের প্যারিসের স্মৃতিকথা (২০০৪)
  • অনন্য জীবনানন্দ: ক্লিনটন বি সিলি (২০১১)
  • চলমান ভোজের শহর: আর্নেস্ট হেমিংওয়ে (২০১৮)
  • দৌড় বিষয়ে যত কথা: হারুকি মুরাকামি (২০১৯)
  • দূর ভুবনের পাড়ে (২০২০)

প্রবন্ধ[সম্পাদনা]

  • মৃত্যুর আগে জীবনের সংগীত (২০১৩)
  • হেমিংওয়ের নারীরা (২০২১)

অর্থনীতি/ব্যাংকিং[সম্পাদনা]

  • শেয়ারবাজারে লাভজনক বিনিয়োগ (১৯৯৬)
  • বেহিসাবীর হিসাবশাস্ত্র (২০০৪)
  • বাংলাদেশের অর্থনীতি ও ব্যাংকিং খাতের দেড় দশক (২০০৭)
  • অর্থ অনর্থের ব্যাংকিং ও অর্থনীতি (২০১৬)
  • সবার জন্য হিসাবশাস্ত্র (২০১৮)

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাংলা-একাডেমি-সাহিত্য-পুরস্কার-২০১৯-ঘোষণা"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২০ 
  2. "ফারুক মঈনউদ্দীন ট্রাস্ট ব্যাংকের এমডি"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 
  3. "ফারুক মঈনউদ্দীন সিটি ব্যাংকের নতুন এএমডি"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 
  4. "ট্রাস্ট ব্যাংকের নতুন এমডি ফারুক মঈনউদ্দীন"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 
  5. "আইএফআইসি ব্যাংক সাহিত্য পুরস্কার পেলেন সৈয়দ শামসুল হক ও ফারুক মঈনউদ্দীন"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০২০